সরকারি কর্মীদের ডিএ ও নতুন পে স্কেল নেই, মন্ত্রী বিধায়কদের ভাতা বাড়ালেন মমতা

147
বিধানসভায় মন্ত্রী বিধায়কদের ভাতা বাড়লেও পিছিয়ে অন্যান্য রাজ্যের থেকে/The News বাংলা
বিধানসভায় মন্ত্রী বিধায়কদের ভাতা বাড়লেও পিছিয়ে অন্যান্য রাজ্যের থেকে/The News বাংলা

বিধানসভায় বিধায়কদের উদ্দেশ্যে; বড় ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিন বিধানসভা অধিবেশনে; রাজ্যের মন্ত্রীদের পাশাপাশি; সমস্ত বিধায়কদের ভাতা বৃদ্ধির কথা ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। দীর্ঘদিন ধরে দৈনিক ভাতা বৃদ্ধির; যে দাবি মন্ত্রী ও বিধায়করা জানিয়েছিলেন; তা অবশেষে পূরণ হল। “সরকারি কর্মীদের ডিএ ও নতুন পে স্কেল নেই; মন্ত্রী বিধায়কদের ভাতা বাড়ালেন মমতা”; কটাক্ষ সরকারি কর্মীদের সংগঠনের।

বিধানসভায় বামফ্রন্ট এবং কংগ্রেসের পরিষদীয় দলনেতারা; বিধায়ক এবং মন্ত্রীদের ভাতা বৈষম্য নিয়ে সরব হন। এর আগে অন্যান্য রাজ্যের তুলনায় রোজগারে অনেকটাই পিছিয়ে ছিল; এই রাজ্যের বিধায়ক ও মন্ত্রীরা। ফলে অনেক দিনের চাপে; এবার ভাতা বাড়ল বেশ খানিকটা।

আরও পড়ুনঃ দলিত জামাই, খুনের হুমকি দিলেন বিধায়ক নিজের মেয়েকে

বিধানসভা চলাকালীন প্রত্যেক বিধায়ক; প্রতিদিন উপস্থিত থাকার জন্য ভাতা পেয়ে থাকেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এ দিন বিধানসভায় বলেন; বিধায়ক এবং মন্ত্রীদের ভাতা বাড়ানো হবে। বিধায়কদের দৈনিক ভাতা বাড়বে দ্বিগুণ; মন্ত্রীদের দেড়গুণ।

আরও পড়ুনঃ ওসামা বিন লাদেনের মত, পাকিস্তানে ঢুকে কি দাউদ ইব্রাহিমকে খতম করতে পারবে ভারত

বামফ্রন্টের আমলে বিধানসভায় উপস্থিতির জন্য প্রতি বিধায়কের ভাতা ছিল ৭৫০ টাকা; তৃণমূল আমলে তা বেড়ে দাঁড়ায় ১০০০ টাকা। এখন মুখ্যমন্ত্রীর বেতন ২৭,০০১ টাকা; মুখ্যমন্ত্রী ভাতা বাবদ পাবেন ৯০,০০০ টাকা; অতএব মুখ্যমন্ত্রীর মোট বেতন হবে; মোট ১,১৭,০০১ টাকা।

আরও পড়ুনঃ মমতার সঙ্গী হয়ে টাটাকে তাড়িয়ে, এখন চরম ভুলের মাসুল দিচ্ছে সিঙ্গুরবাসী

পূর্ণমন্ত্রীর মূল বেতন ২২,০০০ টাকা; ভাতা পাবেন ৯০,০০০ টাকা, মোট ১,১২,০০০ টাকা। রাষ্ট্রমন্ত্রী মূল বেতন পাবেন ২১,৯০০ টাকা; ভাতা বাবদ পাবেন ৯০,০০০ টাকা; অতএব মোট পাবেন ১,১১,৯০০ টাকা। বিধায়ক ২১,৮৭০ টাকা পাবেন মূল বেতন; আর ভাতা বাবদ পাবেন ৬০,০০০ টাকা, মোট দাঁড়াল ৮১,৮৭০ টাকা।

বিধানসভায় এদিন, এই প্রস্তাব পাশ হয়ে যায়। মুখ্যমন্ত্রীর প্রস্তাব; রাজ্যের অর্থ দফতর পাশ করলেই নতুন হারে ভাতা পাবেন বিধায়ক এবং মন্ত্রীরা। তবে তাতেও এই রাজ্যের তুলনায় এগিয়ে থাকবে; দেশের বাকি রাজ্যগুলি।

এরপরেই মুখ খোলে সরকারি কর্মীদের সংগঠনগুলি। তাঁদের অভিযোগ, “কর্মীদের বহুদিনের দাবী সত্ত্বেও; ডিএ ও নতুন পে স্কেল নেই; কিন্তু মন্ত্রীদের ও নিজের মাইনে ঠিকই বাড়িয়ে নিলেন মুখ্যমন্ত্রী”।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন