বিজেপির অপপ্রচারে কান দেবেন না, বুলবুলের জন্য পাঠান টাকার প্রচার আসলে ভাঁওতা

184
বিজেপির অপপ্রচারে কান দেবেন না/The News বাংলা
বিজেপির অপপ্রচারে কান দেবেন না/The News বাংলা

বিজেপির অপপ্রচারে কান দেবেন না; বুলবুলের জন্য পাঠান টাকা ভাঁওতা এই শিরোনামে টুইটারে পোস্টার দিল অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেস। সেই পোস্টারে স্পষ্ট লেখা হয়েছে; বিজেপির অপপ্রচারে কান দেবেন না। বিজেপির তরফে প্রচার করা হচ্ছে; কেন্দ্রীয় সরকার নাকি বুলবুল ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্থ মানুষের সাহায্যার্থে ৪১৪ কোটি টাকা প্রদান করেছে। কিন্তু এই দাবি মিথ্যা। এই টাকাটি স্টেট ডিসাস্টার রেস্পন্স ফান্ডের আওতায় রাজ্যের পাওনা টাকা।

পোস্টারে এও লেখা হয়েছে; প্রত্যেক রাজ্য এই টাকা পেয়ে থাকে। বুলবুল ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য; কোনও বাড়তি টাকা কেন্দ্র পাঠায়নি। পোস্টারের নিচে অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে; একথাও লেখা হয়েছে ‘বাংলা বিরোধী বিজেপি’।

আরও পড়ুন: নৌবাহিনীর টুপি পরে নৌ দিবস পালন করলেন নরেন্দ্র মোদী

সোমবার বিধানসভায় দাঁড়িয়ে; মোদীর বিরুদ্ধে সুর চড়িয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন বুলবুলে বিপর্যস্ত রাজ্যকে সাহায্য করেনি কেন্দ্র। আশ্বাস দিয়েও হাত গুটিয়ে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি দল পাঠিয়েও; বাংলাকে কোনও ক্ষতিপূরণ পাঠায়নি কেন্দ্রীয় সরকার।

বিধায়সভায় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে উদাসীনতার অভিযোগ তুলে তিনি বলেছিলেন; যখন একে একে সুর চড়া হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর; তার ঠিক পরেই; বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্থ বাংলার জন্য ৪১৪.৯০ কোটি টাকা ইতিমধ্যেই বরাদ্দ করা হয়েছে বলে জানিয়ে দিয়েছিল কেন্দ্র।

আরও পড়ুন: বাংলায় এনআরসি হচ্ছেই, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে শিলমোহর কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার

শুধু তাই নয়; প্রতিবেশী রাজ্য ওড়িশার জন্য ৫৫২ কোটি টাকা বরাদ্দ করেছেন মোদী সরকার। রাজ্যের বিপর্যয় মোকাবিলার জন্য কেন্দ্রের যে তহবিল থেকেই এই টাকা দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে কেন্দ্রের তরফে।

তারপরেই সারা বাংলা জুড়ে বিজেপি প্রচার শুরু করে দেয়; বাংলার বুলবুল ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের জন্য ৪১৪ কোটি টাকা রাজ্যকে দিয়েছে মোদী সরকার। কিন্তু বিজেপির সব কথাকে মিথ্যে বলে দাবি করা হয়েছে; অল ইন্ডিয়া তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে।

বিজেপির পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে; বুলবুলের দাপট কমলে; মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর মধ্যে ফোনে কথা হয়। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহও মুখ্যমন্ত্রীকে ফোন করেন। এরপরেই কেন্দ্র বিপর্যয় মোকাবিলা দফতররে প্রতিনিধিদের বাংলায় পাঠায়। টিম এসে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেও যায়। তার পরেই নাকি এই বরাদ্দ ঘোষণা করা হয়।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন