গুজব ছড়ানোর দায়ে, কাশ্মীরি টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল মোদী সরকার

187
এবার কাশ্মীরী টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিলো মোদি সরকার/The News বাংলা
এবার কাশ্মীরী টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিলো মোদি সরকার/The News বাংলা

কাশ্মীর নিয়ে ভুয়া খবর ছড়ানোর অভিযোগে; আটটি কাশ্মীরি টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদী সরকার। দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের পক্ষ থেকে; টুইটার সংস্থার উদ্দ্যেশে; এই বিষয়ে অনুরোধ করা হয়। তাতে লেখা হয়েছে; “কাশ্মীরের আটটি টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে ভুয়ো খবর ছড়ানো হচ্ছে। মানুষকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা চলছে। এতে কাশ্মীরের শান্তি বিঘ্নিত হচ্ছে। এই আটটি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়া হোক”। ভুয়ো খবর ছড়ানোয়; এবার কড়া ব্যবস্থা নিচ্ছে মোদী সরকার

কাশ্মীর নিয়ে ভুয়ো খবর ছড়াচ্ছে কিছু টুইটার অ্যাকাউন্ট। সেগুলি কাশ্মীর থেকেই পরিচালনা করা হচ্ছে। সেই টুইটার অ্যাকাউন্টগুলি অবিলম্বে বন্ধ করার জন্য; টুইটার কর্তৃপক্ষকে চিঠি লিখল নরেন্দ্র মোদী সরকার। এই ভুয়ো খবর ছড়ানোর অভিযোগ রয়েছে; বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা সৈয়দ আলি গিলানির বিরুদ্ধেও। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক যে আটটি টুইটার অ্যাকাউন্টের; নামের তালিকা দিয়েছে তা হল;

১। @kashmir787 Voice of Kashmir ২। @Red4Kashmir MadihaShakil Khan ৩। @arsched Arshad Sharif ৪। @mscully94 Mary Scully ৫। @sageelaniii Syed Ali Geelani ৬। @sadaf2k19 ৭। @RiazKha61370907 ৮। RiazKha723

গত ৫ আগস্ট কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপের ঘোষণার পরেই; ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে; বন্ধ রয়েছে টেলিফোন পরিষেবাও। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক দাবি করেছে; উপত্যকার পরিস্থিতি এখন শান্তিপূর্ণ রয়েছে।

আরও পড়ুনঃ চীনের প্রাচীরের মত ভারত পাক সীমান্তে প্রাচীর দিচ্ছে মোদী সরকার

তবে সোশ্যাল মিডিয়াতে; এই নিয়ে একাধিক ভুয়ো খবর ছড়িয়ে পড়েছে। ১০,০০০ কাশ্মীরি শ্রীনগরে বিক্ষোভ দেখিয়েছে বলে খবর শোনা যাচ্ছে। সেই বিক্ষোভে গুলিও চলে বলে খবর ছড়ায়। পুলিস-প্রশাসনের পক্ষ থেকে; সেই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে বলা হয়েছে; একটিও গুলি চলেনি কাশ্মীরে।

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তান বোকার স্বর্গে বাস করছে, কেঁদে ফেললেন পাক বিদেশমন্ত্রী

কাশ্মীরের পরিস্থিতি একেবারেই শান্তিপূর্ণ ও নিয়ন্ত্রিত রয়েছে বলে জানায় প্রশাসন। কিন্তু উষ্কানি যে থামবে না; সেটা আগাম আঁচ করতে পেরেই; টুইটার কর্তৃপক্ষকে চিঠি লিখে সন্দেহভাজন টুইটার অ্যাকাউন্টগুলি; বন্ধ করে দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে সরকার। গত ৫ আগস্ট জম্মু–কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা প্রদানকারী; ৩৭০ ধারা তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্রীয় সরকার। পাশাপাশি জম্মু–কাশ্মীর পুনর্গঠন বিল পাশ করে; রাজ্যটিকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ভাগ করেছে নরেন্দ্র মোদী সরকার।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন