বছর ঘুরে গেলেও, আজও বিচার পায় নি বাংলার ‘দলিত মেয়ে’ মণিকা মাহাতো

5209
বছর ঘুরে গেলেও, আজও বিচার পায় নি বাংলার দলিত মেয়ে মনিকা মাহাতো
বছর ঘুরে গেলেও, আজও বিচার পায় নি বাংলার দলিত মেয়ে মনিকা মাহাতো

মানব গুহ, কলকাতাঃ বছর ঘুরে গেলেও, আজও বিচার পায় নি; বাংলার ‘দলিত মেয়ে’ মণিকা মাহাতো। পুরুলিয়ার বান্দোয়ানের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী মণিকা মাহাতো; ধর্ষণ ও হত্যার বিচার, আজও শেষ হয় নি। বান্দোয়ানের ডক্টর এন ঝা উচ্চ বিদ্যালয়ের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্রী মণিকা; ২০১৯ এর ৩ মে থেকে নিখোঁজ ছিল। পড়তে গিয়ে আর ফেরেনি। বান্দোয়ানে জেঠুর বাড়িতে থেকে; পড়াশোনা করত মণিকা। নিখোঁজ হওয়ার ঠিক একসপ্তাহ পর; ১০ মে পুরুলিয়ায় জমিরটিলার জঙ্গলে পাওয়া যায় মণিকার ক্ষতবিক্ষত, নগ্ন দেহ। পুলিশ জানায়, মণিকার শরীরে ছিল কামড়ের দাগ। ভারী কিছু দিয়ে তার শরীরে; হাড়গুলি পর্যন্ত ভেঙে দেওয়া হয়। খুনের আগে তার উপরে চলেছে; অকথ্য অত্যাচার। তাকে পোড়ানোরও চেষ্টাও হয়েছিল। পরিবারের দাবি, মনিকাকে গণধর্ষণ করে; খুন করা হয়েছিল। আজও কারোর শাস্তি হয় নি।

আরও পড়ুনঃ নির্যাতিতার বাড়িতে গিয়ে মুখ না খোলার হুমকি, হাথরস কাণ্ডের আসল ভিলেন জেলাশাসক প্রবীণ কুমার

মণিকার দুই সহপাঠীকে গ্রেফতার করেছিল পুলিশ; পরে ছাড়াও পেয়ে যায়। তারপরে, বাংলার পুলিশ জানিয়ে দেয়; খুন হলেও ধর্ষণ হয় নি। মণিকা মাহাতো ধর্ষণ ও হত্যার বিচার চেয়ে; ঝাড়গ্রামে পথে নামে আদিবাসী কুড়মি সমাজ। ছাত্রীটির পরিবারের অভিযোগ ছিল; রীতিমতো ছক কষে অপহরণ করা হয়েছিল মণিকাকে। তারপরে, তার উপরে অকথ্য নির্যাতন চালিয়ে, খুন করে; দেহ ফেলে দেওয়া হয় টিলার উপরে। জেলা পুলিশ অবশ্য জানায়; ময়নাতদন্তে মণিকাকে ধর্ষণের কোন প্রমাণ মেলেনি। তবে ভিসেরা রাখা আছে। সিআইডি চাইলে তদন্ত করতে পারে। সেই তদন্ত আর হয়ে ওঠে নি।

পরিবারের দাবি, এই ঘটনার পরে; কেউই তাদের পাশে দাঁড়াননি। ভোটবাজারে এই ঘটনাকে; কেউ গুরুত্বই দেয়নি। কোন নেতা নেত্রী সাংসদ; পরিবারের কাছে যায় নি। কলকাতার রাজপথে, এর প্রতিবাদে বিচার চেয়ে; কেউ মিছিলও করে নি। এই ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্তের জন্য; সিবিআই তদন্তের দাবি জানানো হয়েছে। কিন্তু তাও দেওয়া হয় নি। সবাই কেমন চেপে গেছে এই ঘটনা।

আরও পড়ুনঃ কত বড় প্রভাবশালীর ছেলে, হাথরস কাণ্ডে কাদের আড়াল করতে চাইছে যোগী সরকার

মণিকার বাবা সমীরকুমার মাহাতো জানান; ৩ মে বিকেলেই তাঁরা থানায় অভিযোগ করেছিলেন। তার পরেও থানায় গিয়েছেন বারবার। কিন্তু পুলিশ অভিযোগ নিতে; গড়িমসি করে। অভিযোগ পাবার পরেও; কিছুই করে নি পুলিশ; অভিযোগ মণিকার পর্সরিবারে। সপ্তাহ পার করে বান্দোয়ান থেকে বেশ খানিকটা দূরে; টিলার উপরে পাওয়া যায় তার পচাগলা দেহ। বাংলার এই দলিত মেয়ে আজও; বিচার পায় নি।

কলকাতা থেকে, পুরুলিয়ার বান্দোয়ানের না হাতরাসের দুরত্ব বেশি? পুরুলিয়ার বান্দোয়ানে কবে যাবেন নেতা নেত্রীরা? পুরুলিয়ার বান্দোয়ানের ঘটনায় যে পুলিশ অফিসাররা; অভিযোগ নিতে চান নি বা যাদের অনিহায় এখনও পর্যন্ত মামলার কোন অগ্রগতি হয় নি; সেই সব পুলিস কর্মীদের কবে সাসপেন্ড করা হবে? সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হবে কি? আজও জানতে চায় মণিকা মাহাতোর পরিবার।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন