মন্দিরের মূর্তিকে জড়িয়ে কুরুচিপূর্ণ ছবি পোস্ট করে পুলিশের জালে মুজিবর

1350
মন্দিরের মূর্তিকে জড়িয়ে কুরুচিপূর্ণ ছবি পোস্ট করে পুলিশের জালে যুবক/The News বাংলা
মন্দিরের মূর্তিকে জড়িয়ে কুরুচিপূর্ণ ছবি পোস্ট করে পুলিশের জালে যুবক/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

বৃহদেশ্বর মন্দিরের মূর্তিকে জড়িয়ে কুরুচিপূর্ণ ইঙ্গিত করা যুবক; মুজিবর রহমান পুলিশের জালে। আর এই নিয়ে তোলপাড় গোটা তামিলনাড়ু। ফুঁসছে গোটা দেশ। উত্তেজনা বাড়ার আগেই অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল পুলিশ।

তামিলনাড়ুর তাঞ্জাভুরের বৃহদেশ্বর মন্দিরের মূর্তিকে জড়িয়ে; কুরুচিপূর্ণ ছবি তোলা এবং সেই ছবি স্যোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করায়; তীব্র বিক্ষোভের জেরে ধৃত মুজিবুর রহমান নামে এক যুবক। মুজিবুর রহমান নামের ২৮ বছরের ওই যুবককে; ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাতের অপরাধে গ্রেফতার করা হয়েছে।

তামিলনাড়ুর হাজার বছরের পুরাতন বৃহদেশ্বর মন্দির; চত্বরে থাকা মূর্তিকে জড়িয়ে যৌন ইঙ্গিতপূর্ণ ছবি তুলে স্যোশাল মিডিয়ায় পোস্ট করে ধৃত মুজিবুর। তারপরেই স্যোশাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে সেই পোস্ট। ইতিহাস সুরক্ষা কমিটি থেকে শুরু করে; বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠনের তরফে মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানান হয়। অবশেষে তাকে গ্রেফতার করে ত্রিচি থানার পুলিশ।

অভিযোগ সামনে আসে, যখন ওই ব্যক্তি মন্দির চত্বরে থাকা কিছু নারী মূর্তিকে জড়িয়ে চুম্বন এবং যৌন ইঙ্গিতপূর্ণ কুরুচিকর ভঙ্গিমায়; তোলা কিছু ছবি ফেসবুকে পোস্ট করে। ফেসবুকে পোস্ট করে অভিযুক্ত ব্যক্তি রমজানের শুভেচ্ছাবার্তা পাঠায় এবং মূর্তিগুলোকে কাপড় পরানো উচিৎ বলেও মন্তব্য করে।

ত্রিচি পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে; ধৃত মুজিবুর রহমানের বাড়ি মাদুরাইয়ের ওটাক্কাদাই এলাকায় এবং ত্রিচিতেই ওই ব্যক্তি খাবার ডেলিভারির কাজ করে। ঈদের ছুটিতে বুধবার সে বৃহদেশ্বর মন্দিরে যায় এবং কুরুচিপূর্ণ ওই ছবি গুলো তুলে সে পোস্ট করে।

এরপরেই বিভিন্ন সংস্থা থেকে; অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। ভারতীয় দণ্ডবিধির ২৯৫ এবং ২৯৫-এ ধারায়; ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাতের অপরাধে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, দক্ষিন ভারতের বড় বড় মন্দির গুলোর মধ্যে অন্যতম বৃহদেশ্বর মন্দির। ১০০৩ থেকে ১০১০ খ্রিষ্টাব্দের মধ্যে; চোল রাজা প্রথম রাজরাজ এই মন্দির নির্মাণ করেন। চোল রাজাদের সময়ে নির্মিত বৃহদেশ্বর মন্দির সহ গঙ্গাইকোন্ড চোলাপুরম এবং ঐরাবতেশ্বর মন্দির পরবর্তী সময়ে ইউনেস্কো ওয়ার্ল্ড হেরিটেজ সাইটের অন্তর্ভুক্ত হয়।

এই মন্দিরের মূর্তির অবমাননা মানতে পারেননি কেউই। তাই ধর্মীয় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ার আগেই গ্রেফতার করা হল; অভিযুক্ত মুজিবর রহমানকে। তার ফেসবুক পোস্ট থেকে ছবিগুলি সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু তার আগেই দেশ জুড়ে ভাইরাল সেই অশ্লীল ছবি।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন