মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ কি খারিজ হচ্ছে, স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়কে তীব্র ভর্ৎসনা কলকাতা হাইকোর্টের

5416
মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ কি খারিজ হচ্ছে, স্পিকার বিমানকে তীব্র ভর্ৎসনা কলকাতা হাইকোর্টের
মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ কি খারিজ হচ্ছে, স্পিকার বিমানকে তীব্র ভর্ৎসনা কলকাতা হাইকোর্টের

মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ কি খারিজ হচ্ছে; স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়-কে তীব্র ভর্ৎসনা কলকাতা হাইকোর্টের। ‘বিধানসভার স্পিকার বেআইনি কাজ করেছেন’; পাবলিক আকাউন্টস কমিটির চেয়ারম্যান মামলায়; তৃণমূল নেতা ও স্পিকারকে তীব্র ভর্ৎসনা হাইকোর্টের। “স্পিকার সাংবিধানিক দায়িত্ব পালনে; সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছেন। মনে হচ্ছে, কারও পরামর্শ মতো; কাজ করেছেন। উনি নিজের জালে; নিজেই জড়িয়ে গিয়েছেন”। কলকাতা হাইকোর্ট মঙ্গলবার পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার স্পিকারকে; তৃণমূল কংগ্রেস নেতা মুকুল রায়কে বিধায়ক পদ খারিজের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত ঘোষণা করার আবেদনের বিষয়ে; ৭ অক্টোবরের মধ্যে সিদ্ধান্ত নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে।

মুকুল রায়ের পিএসি চেয়ারম্যান থাকার বিষয়টি; বিধানসভার স্পিকারের দিকে ঠেলল কলকাতা হাইকোর্ট। একই সঙ্গে মুকুল রায়ের পিএসি চেয়ারম্যান থাকা নিয়ে মামলায়; স্পিকারের ভূমিকায় অসন্তোষ প্রকাশ করল আদালত। স্পিকার বেআইনি কাজ করেছেন বলে; পর্যবেক্ষন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দলের ডিভিশন বেঞ্চের।বিধানসভার পাবলিক অ্যাকাউন্টস কমিটি (PAC) চেয়ারম্যান হওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত; ৭ অক্টোবরের মধ্যে সিদ্ধান্ত নেবেন বিধানসভার অধ্যক্ষ। সেই সঙ্গে আদালত স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে; ৭ অক্টোবরের মধ্যে কোনো সিদ্ধান্ত না নেওয়া হয়; তাহলে হাইকোর্ট নিজের মতো সিদ্ধান্ত নেবে।

আরও পড়ুনঃ কুণাল ঘোষ ও ‘পেড মিডিয়া’কে চরম লজ্জায় ফেললেন লকেট চট্টোপাধ্যায়

প্রধান বিচারপতি রাজেশ বিন্দাল এবং বিচারপতি রাজর্ষি ভরদ্বাজের বেঞ্চ; মুকুল রায়ের PAC-র চেয়ারম্যান পদে নিয়োগের বিরুদ্ধে মামলায়; স্পিকারের ভূমিকায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন। আদালত এদিন জানায়, মুকুলের পিএসসি-র চেয়ারম্যান থাকার বিষয়টি; স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় নিতে পারেন। কারণ, বিধানসভার যাবতীয় কার্যকলাপ, নিয়ম অনুসারে; স্পিকারই পরিচালনা করে থাকেন। এই প্রেক্ষিতে আদালত স্পিকারকে ৭ অক্টোবরের মধ্যে; সিদ্ধান্ত নিতে নির্দেশ দিয়েছেন; না হলে হাইকোর্ট নিজেই সিদ্ধান্ত নেবে।

এখানেই শেষ নয়, আদালতের পর্যবেক্ষণ, সময়ের মধ্যে আবেদনের নিষ্পত্তি করার; সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ থাকা সত্ত্বেও, স্পিকার সেই ফাইল চেপে বসেছিলেন! মুকুল রায়ের বিধায়ক পদ খারিজের আবেদনটি; তিনমাসের বেশি সময় ধরে পড়ে আছে। তারপরেও কেন পদক্ষেপ; করলেন না বিধানসভার স্পিকার? প্রশ্ন আদালতের। কৃষ্ণনগর উত্তর থেকে ২০২১ সালের মে মাসে; বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি-র টিকিটে জয়ী হন মুকুল। এরপরে ১১ জুন তিনি যোগ দেন; শাসক দল তৃণমূলে; জুলাই মাসে তাকে বিধানসভায় PAC-র চেয়ারম্যান করা হয়।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন