কলকাতায় জাতির জনক মহাত্মা গান্ধী মিউজিয়াম

92
কলকাতায় জাতির জনক মহাত্মা গান্ধীর মিউজিয়াম/The News বাংলা
কলকাতায় জাতির জনক মহাত্মা গান্ধীর মিউজিয়াম/The News বাংলা

হাতে গোনা কদিন পর থেকেই শুরু হয়ে যাবে; পুজোর ছুটি। দুর্গা পুজোর পাঁচদিনের পর থেকেই; আমদ প্রিয় বাঙালি ভিড় করবে যাদুঘর আর চিড়িয়াখানায়। আর তাদের জন্যই আছে সুখবর। এই দুর্গা পুজোতেই; কলকাতা পেতে চলেছে নতুন যাদুঘর। গান্ধীর ব্যবহার করা বিভিন্ন জিনিস দেখার জন্য; আর ছুটে যেতে হবে না দিল্লীতে। এবার কলকাতাতেই; মহাত্মা গান্ধীর স্মরনে তৈরি হল এই যাদুঘর। গান্ধীর জন্মদিনেই; এই উপহার পেতে চলেছে কলকাতাবাসী।

১৯৪৭ সালে দেশের স্বাধীনতা অর্জনের আগেই; কলকাতার বেলেঘাটা অঞ্চলের একটি বাড়িতে প্রায় ৩ সপ্তাহ ছিলেন মহাত্মা গান্ধী। সেই সময়ে তাঁর কিছু বিরল ছবি এবং ব্যবহৃত জিনিসপত্রকে নিয়ে শহরে তৈরি হল একটি গান্ধী স্মৃতি সংগ্রহশালা।

আরও পড়ুনঃ ঠাকুর দেখতে যাওয়ার আগেই জেনে নিন, কোন পুজোর কি থিম

আগামী ২ অক্টোবর একটি পূর্ণাঙ্গ যাদুঘর হিসাবে সাধারণের জন্যে খুলে দেওয়া হবে সেটি। দাঙ্গাবাজদের শান্ত করার জন্য দেশ স্বাধীন হওয়ার ঠিক আগেই ১৯৪৭ সালের অগাস্ট মাসে বেশ কয়েকজন অনুগামীকে নিয়ে এই বাড়িতেই ছিলেন মহাত্মা গান্ধী। সেই সময় ৩১ অগাস্ট থেকে অনির্দিষ্টকালের উপবাসেও বসেন এই বাড়িতেই।

পূর্ব কলকাতা গান্ধী স্মারক সমিতির একজন আধিকারিক জানান; গান্ধীজি ও তাঁর অনুগামীরা ‘হায়দারি মঞ্জিল’ নামে পরিচিত এই ভবনে চলে আসেন এবং দুটি ঘর নিয়ে সেইসময় থাকতে শুরু করেন। তবে ৪ সেপ্টেম্বর মহাত্মা গান্ধী এই ভবন থেকে চলে যাওয়ার পর; ভবনটির আর সেভাবে দেখভাল করা হয়নি।

পরে ২০০৯ সালে; তৎকালীন রাজ্যপাল গোপাল কৃষ্ণ গান্ধি এই জায়গাটি পরিদর্শন করার সময় তিনি গান্ধী স্মারক সমিতিকে মহাত্মার ব্যবহৃত জিনিসপত্র নিয়ে ওই প্রদর্শনশালা খোলার পরামর্শ দেন।

আরও পড়ুনঃ আব তেরা কেয়া হোগা কালিয়া, জীবনের রঙ্গমঞ্চে শোলের কালিয়ার পার্ট শেষ

সেই থেকেই এই ভবনটিকে; সমিতি একটি ছোট “যাদুঘর” হিসাবে পরিচালনা করেছে। যেখানে সবার দেখার জন্যে রয়েছে মহাত্মার ব্যবহৃত চরকা, টুপি,খড়ম, বালিশ এবং গদি সহ গান্ধিজির ব্যবহৃত বহু জিনিস।

২০১৮ সালে রাজ্য সরকার পুরোপুরি এই ভবনটির দায়িত্ব নেয় এবং এটির সংস্কার করা হয়। জাতির জনকের দেড়শতম জন্মবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে; আগামী বুধবার এই সংস্কারকৃত ভবনটি রাজ্য পরিচালিত যাদুঘর হিসাবে খুলে দেওয়া হবে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন