সংসার খরচের টাকা বাঁচিয়ে, নরেন্দ্র মোদীর মন্দির নির্মাণ করছেন রাজ্যের মুসলিম মহিলারা

599
গল্প হলেও সত্যি, নরেন্দ্র মোদীর মন্দির নির্মাণ করছেন রাজ্যের মুসলিম মহিলারা/The News বাংলা
গল্প হলেও সত্যি, নরেন্দ্র মোদীর মন্দির নির্মাণ করছেন রাজ্যের মুসলিম মহিলারা/The News বাংলা

হ্যাঁ, গল্প হলেও সত্যি। আশ্চর্যজনক হলেও এমন ঘটনাই ঘটেছে। নরেন্দ্র মোদীর মন্দির নির্মাণ করছেন; রাজ্যের মুসলিম মহিলারা। উত্তরপ্রদেশের মুজফফরনগরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নামে; একটা আস্ত মন্দির তৈরি করছেন তাঁরা। তিন তালাক প্রথা শেষ করেছেন মোদী; সেই কারণে মন্দির নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুসলিম মহিলারা। নিজেদের সংসার খরচের টাকা বাঁচিয়ে; দেশের প্রধানমন্ত্রীর জন্য মন্দির নির্মাণের খরচ তুলছেন ছাপোষা মুসলিম মহিলারা।

উত্তরপ্রদেশের মুজফফরনগরে মোদীর মন্দির নির্মাণ করছেন একদল মুসলিম মহিলা। তিন তালাক প্রথার অবসান করার জন্যই; তারা মোদীর মন্দির তৈরি করছেন বলে জানিয়েছেন। মুসলিম মহিলা সংগঠনটির নেত্রী রুবি গজনি বলেছেন; “মুসলিম মহিলাদের জন্য প্রধানমন্ত্রী মোদী অনেক কিছু করেছেন ও করছেন। উনি সম্মান পাওয়ার যোগ্য। তিন তালাক প্রথার অবসান করে; আমাদের জীবনে বিরাট পরিবর্তন এনেছেন মোদী। বিনামূল্যে বাড়ি, গ্যাস সংযোগ দিয়েছেন। আর কী চাইতে পারি ওনার থেকে?”।

আরও পড়ুনঃ মশা মারতে কামান দাগা, ইঁদুর ধরতে কোটি টাকা

মুসলিম মহিলারা মনে করেন; গোটা বিশ্বজুড়ে সম্মানিত হচ্ছেন নরেন্দ্র মোদী। নিজের দেশেও তাঁর সম্মান পাওয়া দরকার। মুজফফরনগরে জেলাশাসকের কাছে; ইতিমধ্যেই মন্দির নির্মাণের কথা জানিয়ে স্মারকলিপি জমা দিয়েছেন মুসলিম মহিলারা। নিজেদের সংসারের খরচ বাঁচিয়ে; এই মন্দির নির্মাণের খরচ তুলেছেন তাঁরা। রুবি গজনির কথায়; “মুসলিম মহিলাদের তরফে স্পষ্ট বার্তা দিতে চাই; আমরা নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে রয়েছি। ওনাকে মুসলিম বিরোধী তকমা দেওয়ার পিছনে কোনও কারণই নেই”।

আরও পড়ুনঃ এনআরসি হচ্ছেই, মমতার বাংলায় দাঁড়িয়ে ঘোষণা অমিত শাহের

মুসলিম মহিলাদের এই মন্দির নির্মাণের ঘটনা সামনে আসায়; এই নিয়ে দেশ জুড়ে প্রচার শুরু করেছে বিজেপি। বিজেপি মানেই মুসলিম বিদ্বেষী; এই ধারণা এবার ঘোচাবার সুযোগ করে দিয়েছেন মুজফফরনগরের এই মুসলিম মহিলারা। যোগী সরকারের নির্দেশে জেলাশাসক যে অনুমতি দেবেন; সেই নিয়ে কারোর মনে কোন সংশয় নেই। কিছুদিনের মধ্যেই শুরু হয়ে যাবে; মোদী মন্দির নির্মাণের কাজ; এমনটাই জানা গেছে।

হিন্দু ও মুসলিম দুই সম্প্রদায়ই; এই মোদী মন্দির নির্মাণে হাত লাগাবে বলেই জানা গেছে। তবে মুজফফরনগরের মুসলিম সমাজে; এই নিয়ে তর্ক বিতর্ক শুরু হয়েছে। শেষ পর্যন্ত মুসলিম ইমামরা কি সিদ্ধান্ত নেন সেটাও এখন দেখার।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন