নাগ পঞ্চমীতে জেনে নিন সেই ইতিহাস, কি কারণে পূজা পায় নাগ দেবতা

246
নাগ পঞ্চমীতে জেনে নিন সেই ইতিহাস কি কারণে পূজা পায় নাগ/The News বাংলা
নাগ পঞ্চমীতে জেনে নিন সেই ইতিহাস কি কারণে পূজা পায় নাগ/The News বাংলা

নাগপঞ্চমী; শ্রাবণ মাসের কৃষ্ণ পঞ্চমী অর্থাৎ পূর্ণিমার পরে; যে কৃষ্ণপক্ষ তার পঞ্চম দিন। নাগপঞ্চমীতে মনসাপুজোর রেওয়াজ আছে গোটা ভারতে। অনন্ত নাগ; বাসুকি নাগ; শঙ্খ নাগ; পদ্ম নাগ এমন সব কত কত নামের সর্পদেবদেবীর পুজো করা হয় এ দিন। ঘরের মূল প্রবেশ পথের দু’পাশে মনসা ডাল বা সিজ ভেঙে এনে রাখা হয়। এটি কাঁটা যুক্ত; ক্যাকটাস জাতীয় গাছ।

গরুড় পুরাণ থেকে জানা যায়; ব্রহ্মার পুত্র কাশ্যপ মুনির তৃতীয় স্ত্রী রুদ্র ছিলেন নাগ বংশের কন্যা। তিনিই নাগকুলের জননী। অন্যদিকে কাস্যপ মুনির অন্য এক স্ত্রী জন্ম দেন গরুড়ের। এই কারণে; রুদ্র অতন্ত্য বিরূপ ছিলেন তাঁর প্রতি। ছোটবেলা থেকে মায়ের প্রতি দ্বিচারিতা দেখে; গরুড় প্রতিজ্ঞা করে নাগ কূলকে ধংস করবে।

আরও পড়ুনঃ কেন মা কালীর পায়ের নিচে বাবা মহাদেব

প্রায় সমস্ত বিদ্বান এই ব্যাপারে এক মত যে; নাগ ভারতের অত্যন্ত প্রতাপী জাতি। আধুনিক নাগ এই নাগ প্রজাতিরই বংশজ। পুরাতত্ত্ববিদের মতে; নাগবংশী নাগলোক সমুদ্রতল অথবা গোড়া থেকেই উষ্ণকোটিবন্ধীয় পর্বতমালায় থাকতেন। তারা খুব পরিশ্রমী; এবং জ্ঞানী ছিলেন।

মহাভারতেও এই নাগেদের উল্লেখ আছে। কথিত আছে; নাগ কন্যা খুব সুন্দরী হতেন। তৃতীয় পাণ্ডব; অর্জুনের স্ত্রী উলুপি ছিলেন; এমনই এক নাগকন্যা। ভারতের পাশাপাশি চিনেও নাগলোক নিজের সম্বন্ধ বিস্তার করেছিল। ভারতের মতো সেখানেও তাদের পুজো হয়।

আরও পড়ুনঃ বৃহস্পতিবার কি ভাবে লক্ষ্মী পুজো করলে, আপনি হতে পারেন লাখপতি

মহাভারতে জানা যায়; কুরু বংশীয় রাজা পরীক্ষিত তক্ষক নাগের আঘাতে মারা গেলে তাঁর পুত্র জন্মেজয় প্রতিজ্ঞা করেন পৃথিবী থেকে নাগ বংশকে ধংস করবেন। তিনি এক যজ্ঞ শুরু করেন; যেখানে হাজার হাজার সাপ যজ্ঞের আগুনে এসে পড়তে থাকে। জরৎকারু মুনির পুত্র আস্তিকের হস্তক্ষেপে এই যজ্ঞ বন্ধ হয়। যে দিনটিতে সর্প যজ্ঞ বন্ধ হয়; সেই দিনটা ছিল শ্রাবণ মাসের শুক্ল পঞ্চমী।

পারিবারিক উন্নতি ও কুশলের জন্য; এই পুজাকে অতন্ত্য জরুরি বলে মনে করে লক্ষ লক্ষ ভারতবাসী। উত্তর ভারতের বহু জায়গায়; নাগ পঞ্চমী উপলক্ষে সাপকে দুধ খাইয়ে পুজো করা হয়। এই পুজোর বিভিন্ন ব্যাখ্যা দেওয়া হয়।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন