কাশ্মীর নিয়ে জওহরলাল নেহেরুর চরম ভুল শোধরালেন নরেন্দ্র মোদী

2161
কাশ্মীর নিয়ে জহরলাল নেহেরুর ভুল শোধরালেন নরেন্দ্র মোদী/The News বাংলা
কাশ্মীর নিয়ে জহরলাল নেহেরুর ভুল শোধরালেন নরেন্দ্র মোদী/The News বাংলা

কাশ্মীর নিয়ে জহরলাল নেহেরুর ভুল শোধরালেন নরেন্দ্র মোদী। কাশ্মীর নিয়ে ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত মোদী সরকারের; কাশ্মীর থেকে তুলে দেওয়া হল ৩৫এ ও ৩৭০ ধারা। রাষ্ট্রপতির সইয়ের পর; সোমবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ রাজ্যসভায় ঘোষণা করলেন; কাশ্মীর পুনর্গঠনের পরিকল্পনা। সংবিধানের ৩৭০ ধারা অনুসারে জম্মু ও কাশ্মীরকে দেওয়া বিশেষ অধিকার বাতিল করে দেওয়া হল। কেন্দ্রীয় সরকারের তরফ থেকে; ৩৫এ ধারাও বাতিল করা হয়েছে।

এদিন রাজ্যসভায় দাঁড়িয়ে অমিত শাহ জানিয়েছেন যে; দেশের অখণ্ডতা রক্ষা করার জন্যই সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিল করল কেন্দ্র। এর ফলে; জম্মু ও কাশ্মীরের আর বিশেষ মর্যাদা থাকল না। সরকারের তরফ থেকে আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ জানিয়েছেন; জম্মু ও কাশ্মীরের উন্নয়নের জন্যই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। রাষ্ট্রপতির সই হবার পরেই বাতিল হয়ে গেল; আর্টিকেল ৩৭০ ও ৩৫এ।

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীরি মুসলিমদের প্রতি বার্তা দিল কাশ্মীর থেকে বিতাড়িত পণ্ডিতরা

জহরলাল নেহেরুর ভুল; আর্টিকেল ৩৭০ ধারা অনুযায়ী; ভারতের রাষ্ট্রপতিরও ক্ষমতা ছিল না; কাশ্মীরের সংবিধানকে বরখাস্ত করার। আর্টিকেল ৩৭০ অনুযায়ী; জম্মু কাশ্মীরের জাতীয় পতাকা; ভারতের জাতীয় পতাকার থেকে আলাদা এবং এখানে ভারতের জাতীয় পতাকা-কে অপমান করা কোন অপরাধ নয়।

আর্টিকেল ৩৭০ অনুযায়ী জম্মু কাশ্মীরে; ভারতীয় দণ্ডবিধি বা IPC( Indian Pinal Code) কাজ করে না; এখানে RPC( Ranbir Pinal Code) অনুযায়ী সমস্ত কাজ হত। ভারতের সমস্ত রাজ্যে বিধানসভার মেয়াদ পাঁচ বছর; কিন্তু কাশ্মীরের বিধানসভার মেয়াদ ছয় বছর। আর্টিকেল ৩৭০ অনুযায়ী; কাশ্মীরের লোকেদের দ্বিনাগরিকত্ব ছিল। একটি ভারতের এবং আরেকটি কাশ্মীরের। আর্টিকেল ৩৭০ অনুযায়ী; এখানে হিন্দু ও শিখরা সংখ্যালঘু হওয়া সত্ত্বেও; কোন সংরক্ষণ এর সুবিধা পেত না।

প্রতিবাদী শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়; জহরলাল নেহেরু ও শেখ আবদুল্লার এই আর্টিকেল ৩৭০ ও আর্টিকেল ৩৫এ; প্রবর্তন এর তীব্র বিরোধিতা করেছিলেন শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়; এবং জোর করে কাশ্মীরে প্রবেশ করেছিলেন। তাঁর দাবী ছিল; “এক নিশান, এক বিধান, এক প্রধান”। তখন নিয়ম ছিল; ভারত সরকারের পারমিট ছাড়া; কাশ্মীরে প্রবেশ করা যাবে না। ২০ জুন ১৯৫৩ তে শ্রীনগরে; রহস্যময়ভাবে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় এর মৃত্যু হয়।

শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের সেই দাবী মেনে; ও জহরলাল নেহেরুর সেই ভুলের খেসারত মেটালেন; প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। ভারতবাসীর আশা পূরণ করল মোদী সরকার; মত রাজনৈতিক মহলের। তবে বিরোধীদের চরম সমালোচনার মধ্যে পরেছে মোদী সরকার। তবে সিদ্ধান্ত যে ঐতিহাসিক; তা বলছেন সবাই।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন