চীনের প্রাচীরের মত ভারত পাক সীমান্তে প্রাচীর দিচ্ছে মোদী সরকার

2858
চীনের প্রাচীরের মত ভারত পাক সীমান্তে প্রাচীর দিচ্ছে মোদী সরকার/The News বাংলা
চীনের প্রাচীরের মত ভারত পাক সীমান্তে প্রাচীর দিচ্ছে মোদী সরকার/The News বাংলা

৩৭০ ধারা বিলোপের পর থেকেই ক্রমশ অশান্ত হচ্ছে ভারত পাক সীমান্ত। ভারতীয় গোয়েন্দারা ইতিমধ্যে জানিয়েছেন; সীমান্তে বড়সড় হামলা চালাতে পারে পাক জঙ্গি সংগঠন গুলি। সীমান্তে কড়া পাহারায় ভারতীয় সেনা ও সীমান্ত রক্ষা বাহিনী। তবুও পাকিস্তানের তরফ থেকে ক্রমাগত চলছে হামলার সুযোগ খোঁজা। ভারতীয় সেনার ছাউনি নিশানা করে মাঝে মাঝেই গুলি ছুঁড়ছে পাক জঙ্গিরা।

পাক জঙ্গির ক্রমাগত হামলার ফলে ব্যপক ক্ষয়ক্ষতি হচ্ছে সাধারণ মানুষের; ছড়াচ্ছে আতঙ্ক। এবার সীমান্তের গ্রামগুলিকে রক্ষা করতে; সীমান্তে থাকা গ্রামের নিরাপরাধ লোকজনকে বাঁচাতে; ভারতীয় সেনার তরফে ভারত-পাক সীমান্ত বরাবর একটি পাঁচিল করার কথা ভাবা হচ্ছে।

আরও পড়ুনঃ এবার কাশ্মীরি টুইটার অ্যাকাউন্ট বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নিলো মোদী সরকার

ভারত পাক সীমান্ত জুড়ে প্রায় ১০ মিটার উঁচু একটি পাঁচিল দেবার চিন্তা ভাবনা শুরু হয়েছে ভারতীয় সেনার তরফে। এর ফলে ভারত পাক সীমান্ত আরও মুজবুত হবে। অনুপ্রবেশ আটকানো অনেক সহজ হবে। সেনা আধিকারিকরা মনে করছে; পাক বাহিনীর প্ররোচনা আটকাতে এই পাঁচিল সাহায্য করবে।

সেনার তরফে জানানো হয়েছে; ভারত পাক আন্তর্জাতিক সীমান্ত বরাবর এই পাঁচিল তৈরির ভাবনা চিন্তা ইতিমধ্যে শুরু হয়ে গেছে। এখনও পর্যন্ত পরিকল্পনা অনুজায়ী; জম্মু কাশ্মীরের আখনুর থেকে শুরু করে কাঠুয়া পর্যন্ত একটি ১৩৫ ফুট চওড়া পাঁচিল করার প্রস্তাব দিয়েছে সীমান্ত সুরক্ষা বাহিনী।

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীর ইস্যুতে পাকিস্তান বোকার স্বর্গে বাস করছে, কেঁদে ফেললেন পাক বিদেশমন্ত্রী

সেনা আধিকারিক জানিয়েছেন; মোদী সরকারকে ইতিমধ্যে এই প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে সেনার তরফ থেকে। কেন্দ্র থেকেও আশ্বাস পাওয়া গেছে এই ব্যাপারটি নিয়ে চিন্তা ভাবনা করে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব বাস্তবে আনা।

সীমান্ত সুরক্ষা বাহিনীর তরফে জানানো হয়েছে; আগামী কয়েকমাসের মধ্যেই এই বিষয়ে চূড়ান্ত কাজ শুরু হবে। আখনুর থেকে কাঠুয়া জেলার ১২২টি গ্রাম থেকে জমি অধিগ্রহণ কড়া হবে এই পাঁচিলের জন্য।

সীমান্তে অনুপ্রবেশ রুখতে অনেক কড়া ব্যবস্থা নিয়েছে সেনাবাহিনী; যেমন বিদ্যুৎ সংযোগে কাঁটাতার লাগানো হয়েছে সীমান্তে অনুপ্রবেশ রুখতে। কিন্তু এরপরেও অনেক ক্ষেত্রেই সেগুলি ভেঙ্গে; ফাঁকফোকর হয়ে যায়। উঁচু পাঁচিল তৈরি হয়ে গেলে নিরাপত্তা আরও সুনিশ্চিন্ত হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন