মমতাকে চাপে ফেলে ফের কেন্দ্রীয় কর্মীদের ডি এ বাড়াল মোদী সরকার

345
বাংলাকে হতাশ করে কেন্দ্রীয় কর্মীদের ডি এ বাড়াল মোদী সরকার/The News বাংলা
বাংলাকে হতাশ করে কেন্দ্রীয় কর্মীদের ডি এ বাড়াল মোদী সরকার/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

ফের কেন্দ্রীয় কর্মীদের মহার্ঘভাতা বা ডি এ বাড়াল নরেন্দ্র মোদী সরকার। আর এদিকে বাড়ল বাংলার রাজ্য সরকারি কর্মীদের ক্ষোভ। ফের ব্যবধান বাড়ল কেন্দ্রীয় কর্মী ও রাজ্য সরকারি কর্মীদের মাইনেতে। কেন্দ্রের এই ঘোষণায় উপকৃত হবেন বর্তমান কর্মী ও পেনশনভোগীদের নিয়ে প্রায় ১ কোটি মানুষ ও তাদের পরিবার।

লোকসভা ভোটের আগেই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের জন্য সুখবর নিয়ে এল নরেন্দ্র মোদী সরকার। ভোটের দিনক্ষণ ঘোষণার ঠিক আগেই আগে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা বা ডি এ বাড়াল কেন্দ্র সরকার। ৩ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা বা ডি এ বাড়ান হল।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় ক্ষোভ বাড়িয়ে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের বেতন বাড়াচ্ছে মোদী সরকার

লোকসভা ভোটের আগেই দেশ জুড়ে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের মুখে হাসি। বাড়ল ডি এ। বর্তমানে ৯ শতাংশ হারে ডি এ পান কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরা। তার সঙ্গে যুক্ত হতে চলেছে আর ৩ শতাংশ। ফলে তাঁদের প্রাপ্য মহার্ঘ ভাতা বেড়ে দাঁড়াল ১২ শতাংশ। সরকারি কর্মীদের মহার্ঘ ভাতা দিতে সরকারি কোষাগারে আরও চাপ পড়তে চলেছে।

এই বর্ধিত ডি এ এর সুবিধা পাবেন অবসরপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় কর্মীরাও। মঙ্গলবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ২০১৯ সালের ১ জানুয়ারি থেকেই বর্ধিত ডি এ কার্যকর করা হবে।

আরও পড়ুনঃ ভারতের সব মন্দির গুঁড়িয়ে দেবার হুমকি পাকিস্তানের মন্ত্রীর

গত ডিসেম্বরে শেষ হওয়া ষান্মাষিকের জন্য উদ্বৃত্ত হিসেবে কেন্দ্রকে ২৮,০০০ কোটি টাকা হস্তান্তরের কথা ঘোষণা করেছে ভারতীয় রিজার্ভ ব্যাংক। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এই ঘোষণার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের ভাতা বৃদ্ধি করল মোদী সরকার।

পুরোটাই লোকসভা ভোটের আগে সুবিধা নেবার চেষ্টা, বলে মোদী সরকারের সমালোচনা করেছে কংগ্রেস। অন্যান্য বিরোধীরাও ভোটের মুখে এই ধরণের ঘোষণার সমালোচনা করেছে। বলা হয়েছে যেটা আগেই করা যেত সেটা ভোটের সুবিধা নেওয়ার জন্য ঠিক এই সময়ে ঘোষণা করা হল।

আরও পড়ুনঃ ভারতকে হুঁশিয়ারি দিলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান

এর আগে জানুয়ারিতেই কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের ন্যূনতম বেতন ১৮ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ২১ হাজার টাকা। এর ফলে, সরকারি চাকরির সর্বনিম্ন পর্যায়ে ঢুকেই একজন কর্মীর বেতন শুরু হবে ২১ হাজার টাকা থেকে। যদিও দাবি ছিল ২৬ হাজার টাকার। তবু ভোটের মুখে এটাও লাভ কেন্দ্রীয় কর্মীদের।

আরও পড়ুনঃ পাকিস্তান নিয়ে বড় সিদ্ধান্ত রিলায়েন্সের মুকেশ আম্বানির

বেতন ও পেনশন সংশোধনের উদ্দেশ্যে পে-ম্যাট্রিক্সের সকল পর্যায়ে ২.৫৭– এই ফিটমেন্ট ফ্যাক্টরটিকে কাজে লাগানো হয়। যদিও কেন্দ্রীয় ইউনিয়নগুলি এটা ৩.৬৮ করার দাবিতে আন্দোলন করছে। প্রতিরক্ষা বাহিনীর জন্যও পে-ম্যাট্রিক্সকে আরও উন্নত ও বাস্তবমুখী করে তোলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা।

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীরে বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাদের নিরাপত্তা তুলে নিল মোদী সরকার

কেন্দ্রীয় কর্মীদের সঙ্গে রাজ্য কর্মীদের মহার্ঘ ভাতার ব্যবধানের পরিমাণ ফের বাড়ল। যথারীতি এই ঘোষণাতে ফের ক্ষোভ বেড়েছে বাংলার সরকারি কর্মীদের মধ্যে। ক্ষোভ প্রকাশ করেছে রাজ্য সরকারি কর্মীদের সংগঠনগুলি। কেন্দ্রীয় কর্মী ও রাজ্য সরকারি কর্মীদের মধ্যে মহার্ঘ ভাতার ব্যবধান বাড়িয়ে লোকসভা ভোটের আগে বাংলায় মমতাকে বেশ চাপে রাখলেন মোদী।

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

আরও পড়ুনঃ পাকিস্তানের মাটিতে ঢুকে জঙ্গি ঘাঁটিতে হামলার অনুমতি চাইল দেশের সেনা
আরও পড়ুনঃ ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসবাদী হামলা হবে জানিয়েছিলেন কাশ্মীর পুলিশের আধিকারিক
আরও পড়ুনঃ পাক জঙ্গিদের খুঁজে বের করে মারতে সেনাকে পূর্ণ স্বাধীনতা দিল মোদী সরকার
আরও পড়ুনঃ দেশ জুড়ে বদলার দাবি, কাউকে ছাড়া হবে না জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন