মোদী ক্যাবিনেটের সিদ্ধান্তে বিলগ্নিকরণের পথে দেশের পাঁচ রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা

285
মোদী ক্যাবিনেটের সিদ্ধান্তে বিলগ্নিকরণের পথে দেশের পাঁচ রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা/The News বাংলা
বাজেট পেশের শুরুতেই, মোদী সরকারের প্রশংসা করেন, সীতারমন/The News বাংলা

মোদী ক্যাবিনেটের সিদ্ধান্তে; বিলগ্নিকরণের পথে দেশের পাঁচ রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা। মোট পাঁচটি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বেসরকারিকরণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে; মোদী সরকার। যার মধ্যে রয়েছে, তেল সংস্থা বিপিসিএল, সিপিং কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়া এবং কনকর। বিলগ্নীকরণ হয়ে যাওয়ার পর; সরকারের হাতে এইসব সংস্থায় অংশীদারিত্বের পরিমাণ থাকবে; ৫১ শতাংশের নিচে। এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে; কেন্দ্রীয় সরকার।

ভারত পেট্রোলিয়ামের বেসরকারিকরণের পর থেকেই; মোদী সরকারের দিকে আঙুল তুলতে শুরু করেছিল বিরোধীরা। পাঁচটি রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থার বিলগ্নীকরণের সিদ্ধান্তের পর; বিরোধীদের সেই প্রতিবাদের সুর আরও চড়েছে। দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে; মোদী সরকারি সম্পত্তি বিক্রি করে দিচ্ছে, এতে লাভের কিছুই হবে না।

আরও পড়ুুন অযোধ্যা রায়ের বিরুদ্ধে ফের আদালতে যাওয়া নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত মুসলিম সম্প্রদায়

তাতে বরং দেশের অর্থনৈতিক অবস্থা আরও তলানিতে ঠেকবে; ক্ষোভ বিরোধীদের। ভারত পেট্রোলিয়াম দেশের দ্বিতীয় বড় তেল পরিশোধনকারী সংস্থা। অর্থনীতি বিষয়ক ক্যাবিনেট কমিটি সরকারের হাতে থাকা ভারত পেট্রোলিয়ামের ৫৩.২৯ শতাংশ শেয়ারের পুরোটাই বিক্রি করা হবে, জানিয়েছে কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক। অর্থনীতি বিষয়ক ক্যাবিনেট কমিটি শিপিং কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়ার ৬৩.৭৫ শতাংশ অংশীদারিত্ব শেয়ার; বিক্রি করা হবে বলে জানানো হয়েছে।

বাদ যায়নি কন্টেনার কর্পোরেশন অফ ইন্ডিয়াও। এর ৩০.৮ শতাংশ শেয়ার বিলগ্নিকরণ করা হবে। কন্টেনার কর্পোরেশনের ৫৪.৮০ শতাংশ অংশীদারিত্ব সরকারের কাছে রয়েছে। যার বিলগ্নিকরণের সিদ্ধান্তের পর; ২৪ শতাংশ শেয়ার পড়ে থাকবে সরকারের হাতে। এই তালিকায় রয়েছে; টিএইচডিসি এবং নর্থ ইস্টার্ন ইলেকট্রিক পাওয়ার কর্পোরেশন লিমিটেড। সীতারমন জানিয়েছেন সংস্থাগুলির বেসরকারিকরণের পরেও এর ম্যানেজমেন্ট সরকারই নিয়ন্ত্রণ করবে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন