ইসরোর চন্দ্রাভিযান সাফল্যে মুগ্ধ নাসা, ভারতের সঙ্গে মহাকাশ পদক্ষেপ নিল আমেরিকা

1062
ইসরোর চন্দ্রযান সাফল্যে মুগ্ধ নাসা, ভারতের সঙ্গে বড়সড় পদক্ষেপ নিল আমেরিকা/The News বাংলা
ইসরোর চন্দ্রযান সাফল্যে মুগ্ধ নাসা, ভারতের সঙ্গে বড়সড় পদক্ষেপ নিল আমেরিকা/The News বাংলা

ইসরোর চন্দ্রযান সাফল্যে মুগ্ধ নাসা; ভারতের সঙ্গে মহাকাশ পদক্ষেপ নিল আমেরিকা। ভারতের চন্দ্রাভিযান একশ শতাংশ সফল না হলেও; ইসরোর সেই প্রচেষ্টা নজর কেড়েছে পুরো বিশ্বের। শনিবার মধ্যরাতে শেষ মুহূর্তে চাঁদের মাটি থেকে ২.১ কিলোমিটার দূরে; ল্যান্ডার বিক্রমের সঙ্গে যোগাযোগ বিছিন্ন হয় ইসরোর। পরে দেখা যায় বিক্রমের ছবি; চলছে যোগাযোগের চেষ্টা। ইসরোর এই প্রচেষ্টাকে প্রশংসা জানিয়েছে; মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। এবার ইসরোকে একসঙ্গে কাজের ডাক দিল নাসা।

ভারতের চন্দ্রাভিযান শতভাগ সফল না হলেও; ইসরোর প্রচেষ্টা নজর কেড়েছে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের। ইতোমধ্যে মহাকাশ গবেষণায় ভারতের সঙ্গে কাজ করার আগ্রহের কথা জানিয়েছে; যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। টুইটারে দেওয়া এক পোস্টে; নিজেদের এমন আগ্রহের কথা জানায় সংস্থাটি।

আরও পড়ুনঃ চাঁদের মাটিতে সন্ধান মিলল ভারতের বিক্রমের, ইসরো দফতরের উচ্ছ্বাস ছড়াল গোটা দেশে

টুইটে বলা হয়; “মহাকাশ খুবই চ্যালেঞ্জিং জায়গা। চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে ইসরো-র (ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা) চন্দ্রযান ২ অবতরণ প্রচেষ্টার প্রশংসা করছি। আপনারা আমাদের উৎসাহিত করেছেন। আশা করি ভবিষ্যতে মহাকাশ গবেষণায়; আমরা একসঙ্গে কাজ করবো”।

নাসা জানিয়েছে; “গত ৬ দশকে মাত্র ৬০ শতাংশ চন্দ্রাভিযান সফল হয়েছে। গতবছর ইসরায়েলের চন্দ্রাভিযানও সফল হয়নি। ইসরো-র দাবি; তাদের অভিযান ৯০ থেকে ৯৫ শতাংশ পর্যন্ত সফল হয়েছে। ল্যান্ডারের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হলেও; কাজ করছে অরবিটার। ইসরো চেয়ারম্যান কে শিবন বলেন; “অভিযানের প্রতিটি ধাপের সাফল্যের পর্যালোচনা হয়েছে”।

আরও পড়ুনঃ এখনো মহাকাশ থেকে ছবি পাঠাচ্ছে চন্দ্রযান, আশার আলো ইসরোর বিজ্ঞানীদের

“একশ শতাংশের কাছাকাছি সফল হয়েছে মিশন। অরবিটারের আয়ু এক বছর ভাবা হয়েছিল। কিন্তু অতিরিক্ত জ্বালানি থাকায়; সেটি সাড়ে সাত বছর চাঁদের কক্ষপথে থাকবে”; জানিয়েছেন ইসরোর প্রধান কে শিবন।

সবচেয়ে কম খরচে চন্দ্রাভিযান করেছে ভারত; যা বিশ্বের কোন দেশ পারে নি। এইসব কারণেই; এবার মহাকাশ গবেষণায় ভারতীয় মহাকাশ গবেষণা সংস্থা ইসরোর সঙ্গে; কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে আমেরিকার মহাকাশ সংস্থা নাসা।

বিভিন্ন দেশ ইতিমধ্যে চন্দ্রপৃষ্ঠে অবতরণ করাতে সক্ষম হলেও; চাঁদের দক্ষিণ মেরুতে এটি করে দেখাতে পারেনি কোন দেশ। এবার সেটাই কি একসঙ্গে করবে নাসা ও ইসরো; সম্ভাবনা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন