জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেল, সৃজিতের ‘এক যে ছিল রাজা’

151
জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেল, সৃজিতের ‘এক যে ছিল রাজা’/The News বাংলা
জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেল, সৃজিতের ‘এক যে ছিল রাজা’/The News বাংলা

শুক্রবার ৬৬তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার; ঘোষণা করা হল। সেরা বাংলা চলচ্চিত্রের পুরস্কার পেল; ‘এক যে ছিল রাজা’। সৃজিত মুখোপাধ্যায় পরিচালিত এই সিনেমা; ‘জাতীয় পুরস্কার’ পদে মননীত হল। এই সাফল্যের মধ্যে দিয়ে; বাংলা সিনেমা আরও একবার; উন্নতির শিখরে পৌঁছে গেল। বহু চর্চিত ভাওয়াল সন্ন্যাসী মামলার গল্প নিয়েই; সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ছবি ‘এক যে ছিল রাজা’। সিনেমায় মূল চরিত্রে অভিনয় করেছেন যিশু সেনগুপ্ত। এছাড়াও ছিলেন; জয়া এহেসান; অপর্ণা সেন; অনির্বান ভট্টাচার্য; অঞ্জন দত্তের মতো প্রখ্যাত সব ব্যক্তিবর্গ।

ফেলুদাকে নিয়ে তথ্যচিত্র বানিয়ে; সেরা ডকুমেন্টরি ফিল্মের পুরস্কার জিতে নিয়েছেন; সাগ্নিক চ্যাটার্জী। সেরা হিন্দি ফিল্মের পুরস্কার জিতে নিয়েছে; আয়ুষ্মান খুরানার অন্ধাধুন ফিল্ম। ৯ই আগষ্ট শুক্রবার ভারতীয় ফিচার সিনেমার নির্বাচক-সভা প্রধান রাহুল রাওয়াইল; ৬৬ তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ঘোষণা করলেন। এদিন জাতীয় সিনেমার পুরস্কার; মোট ৩১ টি বিভাগে দেওয়া হয়েছে। চলতি বছরে ‘চলচ্চিত্র বান্ধব রাষ্ট্র’ নামে একটি পুরস্কার চালু করা হয়েছে। সবচেয়ে ফিল্ম-বান্ধব রাজ্য হিসেবে উত্তরাখণ্ডকে এই পুরস্কার দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ কেমন ছিল বর্তমান অভিনেত্রী সানি লিওনির অতীত, জেনে নিন সেই গল্প

বাংলা চলচ্চিত্র জগত্‌ আরও একবার জাতীয় পুরস্কারের তালিকায় উঠে এসেছে। সেরা বাংলা সিনেমা হিসেবে ৬৬ তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছে; সৃজিত মুখোপাধ্যায় পরিচালিত ‘এক যে ছিলো রাজা’। সৃজিত মুখোপাধ্যায় একজন ভারতীয় বাঙালি চলচ্চিত্র পরিচালক, অভিনেতা, চিত্রনাট্যকার, অর্থনীতিবিদ। ২০১০ সালে ‘অটোগ্রাফ’ ছবি তাঁর প্রথম কাজ। এছাড়াও আছে বাইশে শ্রাবন, হেমলক সোসাইটি , মিশর রহস্য, জাতিস্মর, চতুষ্কোণ, নির্বাক, রাজকাহিনী, জুলফিকার, বেগমজান এবং ইয়েতি অভিযান।

৬১ তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে তার পরিচালিত ‘জাতিস্মর’ ছবিটি চারটি পুরস্কার জিতে নেয়। ৬২ তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার অনুষ্ঠানে তার পরিচালিত ‘চতুষ্কোণ’ সিনেমাটির জন্য তিনি সেরা পরিচালক এবং সেরা চিত্রনাট্য বিভাগে পুরস্কার পান। এবার সেরা বাংলা সিনেমা হিসেবে; ৬৬ তম জাতীয় চলচিত্র পুরস্কার পেল ‘এক যে ছিলো রাজা’।

হিন্দি সিনেমার মধ্যে; জাতীয় চলচ্চিত্রে প্রথমেই নাম উঠে এসেছে; ‘উরি’ সিনেমার সেরা অভিনেতা ভিকি কৌশল এবং ‘অন্ধাধুন’ সিনেমা থেকে সেরা অভিনেতা ‘আয়ুষ্মান খুরানা’। সঞ্জয় লীলা বনশালী-এর ‘পদ্মাবত’ পেয়েছে ২ টি জাতীয় পুরস্কার।

অজয় এবং বিজয় বেদীর; ‘বিভা বকশির সোন রাইজ’ এবং ‘দ্য সিক্রেট লাইফ অফ ফ্রোগস’ জাতীয় নন ফিচার ফিল্ম পুরস্কার পেয়েছে। এছাড়াও সেরা পরিচালক পুরস্কার ‘উরি’-এর অধিত্য ধর্ম। সেরা ফিচার ফিল্ম ‘এল্লারু’। সেরা অভিনেত্রী ‘মহানতি’ সিনেমা থেকে ‘কীর্তি সুরেশ’।

জাতীয় চলচ্চিত্রে সেরা সহায়ক অভিনেতা পুরস্কার পেলেন; ‘কুম্ভক’ সিনেমার ‘স্বানন্দ কিরকিরে’। সেরা সমর্থন অভিনেত্রী ‘বাধাই হো’ সিনেমার ‘সুরখা সিক্রি’। সেরা অ্যাকশন নির্দেশক-এর পুরস্কার পেয়েছে ‘কেজিএফ চ্যাপ্টার ওয়ান’।

সেরা কোরিওগ্রাফির পুরস্কার পেয়েছে; বিখ্যাত ‘পদ্মাবত’ সিনেমার ‘ঘুমর’ গান। সেরা সিনেমাটোগ্রাফি পেয়েছে উল্লু (মালায়ালাম)। সেরা জনপ্রিয় চলচ্চিত্র ‘বাধাই হো’। পরিবেশ বিষয়ক সেরা চলচ্চিত্র; ‘পানী’। সেরা ডেবিউট চলচ্চিত্র পরিচালক পুরস্কার ‘নান’ সিনেমা থেকে পেয়েছে।

সামাজিক ইস্যুতে সেরা চলচ্চিত্র ‘প্যাডম্যান’। বাচ্চাদের সেরা চলচ্চিত্র; সরকারী এরিয়া প্রথমিকা শালে কাসারাগড। সেরা স্পেশাল এফিক্ট; ‘কেজিএফ’। বিশেষ জুরি অ্যাওয়ার্ড; শ্রুতি হরিহরন, জোজু জর্জ, সাবিত্রী, চন্দ্রচূদ রাই।

পরিবেশ সংরক্ষণ সম্পর্কিত সেরা চলচ্চিত্র ‘পানি’। সেরা আঞ্চলিক চলচ্চিত্র রাজস্থানের ‘কচ্ছপ’। পঞ্চেঙ্গা-র ‘ইন দ্য ল্যন্ড অফ পয়জন ওম্যান’। মারাঠি ‘ভঙ্গা’; হিন্দি ‘অন্ধধুন’; উর্দু ‘হামিদ’; তেলেগু ‘মহানতি’। অসমীয়া ‘বুলবুল গাইতে পারে’; পাঞ্জাবি ‘আরজেদা’।

সঙ্গীতে সেরা লিরিক্স ‘নাথীচিরমি’ (কান্নাডা)। সেরা সংগীত পরিচালনা ‘পদ্মাবত’ ‘সঞ্জয় লীলা ভনসালী’। সেরা সংগীত নির্দেশক ‘উরি’। সেরা সাউন্ড ডিজাইন ‘উরি’। সেরা মহিলা প্লেব্যাক গায়িকা ‘বিন্দু’। সেরা পুরুষ প্লেব্যাক গায়ক ‘অরিজিৎ সিং’। চিত্রনাট্য বিভাগে; সেরা মূল চিত্রনাট্য ‘চি লা সো’। সেরা অভিযোজিত চিত্রনাট্য ‘অন্ধধুন’। সেরা সংলাপ ‘তারিক’।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন