খোদার কসম মোদীকে জেলে ঢোকাবো, এনসি নেতা জাভেদ রানার মন্তব্যে উত্তাল দেশ

570
খোদার কসম মোদীকে জেলে ঢোকাবো, এনসি নেতা জাভেদ রানার মন্তব্যে উত্তাল দেশ/The News বাংলা
খোদার কসম মোদীকে জেলে ঢোকাবো, এনসি নেতা জাভেদ রানার মন্তব্যে উত্তাল দেশ/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

“খোদার কসম মোদীকে জেলে ঢোকাব”, এনসি নেতা জাভেদ রানার মন্তব্যে শুরু হয়েছে জোর সমালোচনা। এনসি নেতা জাভেদ রানার এই মন্তব্যে চরম সমালোচনা করেছে বিজেপি। ইতিমধ্যেই এই বক্তব্য নিয়ে নির্বাচন কমিশনের দারস্থ হয়েছে বিজেপি।

“ক্ষমতা থাকলে মোদীকে জেলে ঢোকাতাম”, জম্মু ও কাশ্মীরের পুঞ্চের একটি নির্বাচনী জনসভা থেকে এমনই মন্তব্যই করলেন ন্যাশনাল কনফারেন্সের নেতা জাভেদ রানা। জম্মু ও কাশ্মীরে এতদিন যত কাশ্মীরিদের ওপর অত্যাচার হয়েছে, সেই অত্যাচারের হিসেব নিতে প্রধানমন্ত্রী মোদীকে জেলে ভরতেন বলে তিনি জানান।

হিন্দু মুসলিমের মধ্যে সাম্প্রদায়িক ভেদাভেদ তৈরির জন্য মোদীকে দায়ী করে, প্রধানমন্ত্রীকে মানবতার ঘাতক বলে উল্লেখ করেন এই নেতা। ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতা ওমর আবদুল্লা ও তার বাবা ফারুক আবদুল্লা দলেরই এই প্রভাবশালী নেতার মন্তব্যে কোনো প্রতিক্রিয়া দেননি।

সূত্রের খবর, খুব শীঘ্রই জম্মু কাশ্মীরের আখনৌরে নরেন্দ্র মোদী একটি জনসভা করতে চলেছেন। তার আগেই ন্যাশনাল কনফারেন্স নেতার এই বক্তব্যে অস্বস্তিতে কংগ্রেস শিবির। জম্মু ও কাশ্মীরে ন্যাশনাল কনফারেন্সের সাথে একজোট করে বিজেপির বিরুদ্ধে লড়ছে কংগ্রেস।

এদিন নরেন্দ্র মোদীকে কটাক্ষ করার সাথে সাথে মিডিয়াকেও এক হাত নেন জাভেদ রানা। একটি নির্দিষ্ট সম্প্রদায়ের বিরুদ্ধে মিডিয়া উদ্দেশ্য প্রণোদিতভাবে মিথ্যাচার করছে বলেও তিনি অভিযোগ তোলেন। এরপরেই তিনি জনসাধারণকে আশ্বস্ত করে বলেন, লিডারশিপ কাকে বলে, তা তিনি ক্ষমতায় এলে দেখিয়ে দেবেন।

এনসি নেতার এই বিতর্কিত মন্তব্য এবারই প্রথম নয়, এর আগেও অনেকবারই তিনি এই ধরনের মন্তব্য রেখেছেন। এর আগেও তিনি নরেন্দ্র মোদীকে গুজরাটে গণহত্যার জন্য দায়ী করে প্রধানমন্ত্রীকে সন্ত্রাসবাদী হিসেবে উল্লেখ করেছিলেন। শুধু তাই নয়, কাশ্মীরের ৩৭০ ধারা যদি তুলে নেওয়া হয়, সেক্ষেত্রে কাশ্মীরে ভারতের পতাকাও উত্তোলন করতে দেবেন না বলে তিনি হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন।

জাভেদ রানা ন্যাশনাল কনফারেন্সের একজন প্রভাবশালী নেতা। বিচ্ছিন্নতাবাদী ও দেশবিরোধী বক্তব্যের জন্য আগেও বহুবার সমালোচিত হয়েছেন তিনি। কাশ্মীরে পাথরবাজদের বাড়বাড়ন্তের জন্য এর আগে তিনি কেন্দ্রের বিজেপি সরকার ও আরএসএসকে দায়ী করেছিলেন। স্বাভাবিকভাবেই নির্বাচনের আগেই দলের নেতার এই বক্তব্যে পুনরায় অস্বস্তিতে ওমর ও ফারুক আবদুল্লার দল।

তবে জাভেদ রানার এই মন্তব্যের পরেও এখনও মুখ খোলেননি ওমর আবদুল্লা ও ফারুক আবদুল্লা। বিজেপির তরফ থেকে দুই নেতাকেই মুখ না খোলার জন্য সমালোচনা করা হয়েছে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন