দিল্লির নির্ভয়া কাণ্ডের ছায়া যোগী রাজ্যে, ধ’র্ষণের পর যৌ’নাঙ্গে রড ঢুকিয়ে মারা হল নির্যাতিতাকে

2780
দিল্লির নির্ভয়া কাণ্ডের ছায়া যোগী রাজ্যে, ধ'র্ষণের পর যৌ'নাঙ্গে রড ঢুকিয়ে মারা হল নির্যাতিতাতে
দিল্লির নির্ভয়া কাণ্ডের ছায়া যোগী রাজ্যে, ধ'র্ষণের পর যৌ'নাঙ্গে রড ঢুকিয়ে মারা হল নির্যাতিতাতে

দিল্লির নি’র্ভয়া কাণ্ডের ছায়া যোগী রাজ্যে; ধ’র্ষণের পর যৌ’নাঙ্গে রড ঢুকিয়ে মারা হল নি’র্যাতিতাকে। নি’র্ভয়া কাণ্ডের স্মৃতি মনে করিয়ে; ফের ভ’য়ঙ্কর গ’ণধ’র্ষণের ঘটনা ঘটল উত্তরপ্রদেশে। চলন্ত গাড়িতে মধ্যবয়সি এক মহিলাকে; গ’ণধর্ষণ করা হয়। শুধু তাই নয়, এরপর শুরু হয় ব’র্বরতা। ধ’র্ষণের পর নি’র্যাতিতার যৌ’নাঙ্গে; রড ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। রড ঢুকিয়ে, ভেঙে দেওয়া হয়; দু পায়ের হাড়। রক্তপাত বন্ধ না হওয়ায়; হাসপাতালে মৃত্যু হয় ওই মহিলার। দীর্ঘ গড়মসির পর অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে; ধ’র্ষণ ও খু’নের মামলা দায়ের হলেও; এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রে’ফতার করে নি; উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।

রবিবার সন্ধ্যায় উত্তরপ্রদেশের বদায়ুঁ জেলার উঘৈতি থানা এলাকায়; ম’র্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে। এলাকারই মন্দিরে; পুজো দিতে গিয়েছিলেন নি’র্যাতিতা। তারপর আর বাড়ি ফেরেননি। মাঝরাতে রাস্তার পাশে ঝোপ থেকে; র’ক্তাক্ত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করা হয়। ধ’র্ষণের পর দু’ষ্কৃতীরা; তাঁকে গাড়ি থেকে ফেলে দেয়। উদ্ধার করে, হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়; ওই মহিলাকে। কিন্তু রাতেই মৃত্যু হয় তাঁর।

আরও পড়ুনঃ কমবয়সে সৌরভের হার্ট অ্যাটাক, লজ্জায় বিজ্ঞাপন তুলে নিল তেল কোম্পানি

তখনও বোঝা যায় নি; ধ’র্ষণের পরেও কি অ’ত্যাচার হয়েছে নি’র্যাতিতার সঙ্গে। মঙ্গলবার ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে আসার পর; স্তম্ভিত হয়ে যান সবাই। জানা যায়, ধ’র্ষণের পর ওই মহিলার যৌ’নাঙ্গে; রড ঢুকিয়ে দেয় দু’ষ্কৃতীরা। সেই র’ক্তক্ষরণ আর বন্ধ করা যায়নি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট বলছে, ভারী বস্তু দিয়ে; নি’র্যাতিতার বুকেও আঘাত করা হয়। তাতে ভেঙে যায়; তাঁর পাঁজরের হাড়। নির্যাতিতার একটি পা-ও; ভেঙে দেওয়া হয়।

ঘটনায় পুলিশি নিস্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলেছে; নির্যাতিতার পরিবার। অভিযোগ দায়ের করা সত্ত্বেও; উঘৈতি থানার স্টেশন অফিসার রবেন্দ্রপ্রতাপ সিংহ; ঘটনাস্থলে যাওয়ার তাগিদ পর্যন্ত দেখাননি। এমনকি মৃতার ময়নাতদন্ত নিয়েও; গড়িমসির অভিযোগ উঠেছে। রবিবার রাতে মৃত্যু হলেও, সোমবার বিকেলে দেহটি; ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয় বলে অভিযোগ করেছেন; নির্যাতিতার পরিবার।

নির্যাতিতা যে মন্দিরে পুজো দিতে যান; এই ঘটনায় সেই মন্দিরের পুরোহিত মহন্ত বাবা সত্যনারায়ণ; তাঁর সহযোগী বেদরাম এবং গাড়ির চালক জসপালের নাম সামনে এসেছে। তাঁদের বিরুদ্ধে ধ’র্ষণ এবং খু’নের মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। কিন্তু বুধবার সকাল পর্যন্ত; অভিযুক্তদের মধ্যে কাউকেই গ্রেফতার করা হয়নি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন