ভগবান শিবের হাতে মদের গ্লাস, হিন্দু ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগ

1939
ভগবান শিবের হাতে মদের গ্লাস ধরিয়ে হিব্দু ভাবাবেগে আঘাত
ভগবান শিবের হাতে মদের গ্লাস ধরিয়ে হিব্দু ভাবাবেগে আঘাত

ভগবান শিবের হাতে মদের গ্লাস; হিন্দু ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগ। হিন্দু ভাবাবেগে আঘাতের অভিযোগ উঠল; সোশ্যাল মিডিয়া ইনস্টাগ্রামের বিরুদ্ধে। এর জেরে ইনস্টাগ্রামের বিরুদ্ধে; দায়ের করা হল এফআইআর। ইনস্টাগ্রামের বিরুদ্ধে, দিল্লির বিজেপি নেতা মণীশ সিং নয়াদিল্লির পার্লামেন্ট স্ট্রিট থানায়; অভিযোগ দায়ের করেন মঙ্গলবার। তাঁর অভিযোগ, হিন্দু ধর্মের ভাবাবেগে; চরম আঘাত করেছে ইনস্টাগ্রাম। অবমাননা করা হয়েছে ভগবান শিবকে। জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া ইনস্টাগ্রামে; সম্প্রতি কিছু নতুন স্টিকার আপলোড করা হয়েছে; সংস্থার পক্ষ থেকে।

সেই স্টিকারে দেখা গেছে, ভগবার শিবের এক হাতে মদের গ্লাস; ও অন্য হাতে মোবাইল ফোন। এই ছবি ঘিরেই শুরু হয়েছে বিতর্ক। ইনস্টাগ্রামে স্টোরি আপলোড করার সময়, শিবের ছবি সার্চ করলেই; মদের গ্লাস হাতে শিবের ছবিটি দেখা যাচ্ছে। এই ছবি আপলোড করা হয়েছে; ইনস্টাগ্রামের তরফেই। ফলে অভিযোগের তীর; সরাসরি ইনস্টাগ্রামের দিকেই উঠেছে। এই অভিযোগের ভিত্তিতেই, ইনস্টাগ্রামের সিইও-সহ অন্যান্য আধিকারিকদের বিরুদ্ধে; দায়ের করা হয়েছে এফআইআর।

আরও পড়ুনঃ পুরোহিতদের জন্য বাংলা অচল করতে চাওয়া রাজীবের মুখে, উগ্র হিন্দুত্ববাদের নিন্দা

বিজেপি নেতা মণীশ জানিয়েছেন, স্টিকারটি না সরানো হলে; তিনি ইনস্টাগ্রামের দফতরের সামনে ধরনায় বসবেন। কেবল মণীশই নন, আরও অনেকেই আপত্তি জানিয়েছেন; হিন্দু দেবতার এমন স্টিকারের বিরুদ্ধে। তাঁদের কথায়, এই ভাবে হিন্দু দেবদেবীদের নিয়ে; ছেলে খেলা বন্ধ করা হোক সোশ্যাল মিডিয়ায়।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি নিয়ে, প্রধানমন্ত্রী মোদীর কাছে শুভেন্দু অধিকারী

গত ২৫ ফেব্রুয়ারি ডিজিটা‌ল কনটেন্ট সংক্রান্ত; নয়া নির্দেশিকা জারি করেছে মোদী সরকার। সোশ্যাল মিডিয়ায় রাশ টানতে, একগুচ্ছ নির্দেশিকাও জারি করা হয়েছিল; ইলেকট্রনিক্স ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রকের তরফে। কোন পোস্ট বা কন্টেন্ট, আপত্তিকর হিসেবে চিহ্নিত হলে; পোস্ট বা কন্টেন্ট সব মিডিয়া থেকে সরিয়ে নিতে হবে, ৩৬ ঘণ্টার মধ্যে। এর মধ্যে ইনস্টাগ্রামের স্টিকার আপলোড; আরও এক নতুন বিতর্কের জন্ম দিল। হিন্দু দেবদেবীদের নিয়ে এইভাবে ছেলে-খেলা; কবে বন্ধ হবে? দেশ জুড়ে উঠে গেছে প্রশ্ন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন