মার্কিন নীল ছবির নায়ককে গুলি লাগা কাশ্মীরি যুবক বানিয়ে, পৃথিবীতে হাসির খোরাক পাকিস্তান

2468
নীল ছবির নায়ককে গুলি লাগা কাশ্মীরি যুবক বানিয়ে, পৃথিবীতে হাসির খোরাক পাকিস্তান/The News বাংলা
নীল ছবির নায়ককে গুলি লাগা কাশ্মীরি যুবক বানিয়ে, পৃথিবীতে হাসির খোরাক পাকিস্তান/The News বাংলা

নীল ছবির নায়ককে গুলি লাগা কাশ্মীরি যুবক বানিয়ে; পৃথিবীতে হাসির খোরাক পাকিস্তান। কাশ্মীর নিয়ে ভারতকে বদনাম করতে; উঠে পড়ে লেগেছে পাকিস্তান। কাশ্মীরে ভারতীয় সেনা অত্যাচার করছে; এই মিথা চিত্র বিশ্বের সামনে; তুলে ধরতে উদ্যোগী পাকিস্তান। প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান থেকে; পাকিস্তানের নেটিজেনরা যেকোন ছবিকেই কাশ্মীরের ছবি বলে পোস্ট করে; ভারতের বদনাম করার চেষ্টা করছে। সেই চেষ্টা করতে গিয়েই; এবার এক পর্ণ ছবির দৃশ্য পোস্ট করে; গোটা বিশ্বের কাছে হাসির খোরাক হল পাকিস্তান।

মোদী সরকার কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলুপ্তের পর; পাকিস্তান পাগল হয়ে গেছে। ভুলভাল মন্তব্য করা থেকে শুরু করে; ভুয়ো ছবি পোস্ট করা; কোন কিছু থেকেই বিরত নেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী থেকে নেতারা। কয়েকদিন আগেই পাকিস্তানের নেতারা; ভারতের নকশালী হামলার ছবি পোস্ট করে; কাশ্মীরের পুলিশি অত্যাচার বলে দাবি করেছিল। আর এবার একটি পর্ণ ছবির দৃশ্য; পোস্ট করে লজ্জায় পড়ল পাকিস্তান।

আরও পড়ুনঃ সব লম্ফঝম্প শেষ, ভারত থেকে জীবনদায়ী ওষুধ চাইল পাকিস্তান

ভারত সরকারের মতে; কাশ্মীরের পরিস্থিতি পুরোপুরি শান্ত; কিন্তু পাকিস্তান ভুয়ো ছবি পোষ্ট করে অশান্ত দেখানোর জন্য নেমে পড়েছে। পাকিস্তানের নেতা-মন্ত্রীরা এমন এমন কর্মকান্ড করছে; যা গোটা বিশ্বের সামনে; পাকিস্তানকে লজ্জায় ফেলে দিচ্ছে।

এবার ভুয়ো ছবি ছড়াতে গিয়ে; গোটা বিশ্বের সামনে চরম লজ্জায় পড়ল পাকিস্তান। ভারতে নিযুক্ত পাকিস্তানের প্রাক্তন হাইকমিশনার আব্দুল বসিত; এক পর্নস্টারের ছবি পোস্ট করে; সেটাকে কাশ্মীরের যুবকের উপর পুলিশ গুলি চালিয়েছে; বলে দাবি করেন। পর্নস্টার জনি সিন্সের একটা পর্ণ ছবিকে পোস্ট করে; আব্দুল বসিত বলেন; “দেখুন কিভাবে কাশ্মীরে অত্যাচার চলছে”।

এক পর্নস্টারের ছবিকে পাকিস্তানের প্রাক্তন হাইকমিশনার; নিপীড়িত কাশ্মীরি যুবক বলে চালিয়ে দেন। এক টুইটার ইউজার পর্ণস্টার জনির পর্ণ দৃশ্যের ছবি পোস্ট করেছিলেন এবং লিখেছিলেন; “অনন্তনাগে ইউসুফ নামের এক ব্যক্তি তার দৃষ্টি হারিয়েছে সেনার গুলিতে”। সেই পোস্টকে রিটুইট করেন বসিত। এরপর ছবিটি ভাইরাল হতেই; সোশ্যাল মিডিয়ায় হাসাহাসি শুরু হয়।

আব্দুল বসিত নিজের ভুল বুঝে; পোস্টটি ডিলিট করেন। কিন্তু ততক্ষণে কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তানের ভুয়ো প্রচার; পরিষ্কার হয়ে গেছে গোটা বিশ্বের কাছে। কাশ্মীর নিয়ে ভুল খবর প্রচার করতে গিয়ে; লজ্জার অন্ধকারে পাকিস্তান।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন