পঞ্চায়েত ভোট প্রহসন, বাংলার মমতাকেও ছাড়িয়ে গেলেন ত্রিপুরার বিপ্লব

329
পঞ্চায়েত ভোট প্রহসন, বাংলার মমতাকেও ছাড়িয়ে গেলেন ত্রিপুরার বিপ্লব/The News বাংলা
পঞ্চায়েত ভোট প্রহসন, বাংলার মমতাকেও ছাড়িয়ে গেলেন ত্রিপুরার বিপ্লব/The News বাংলা

ফের পঞ্চায়েত ভোটে প্রহসন। তবে এবার বাংলায় নয়; পাশের রাজ্য ত্রিপুরায়। এবার পঞ্চায়েত ভোট প্রহসনে; বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তার দল তৃণমূল কংগ্রেসকেও ছাপিয়ে গেলেন; ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেব ও তাঁর দল বিজেপি। দেখা যাচ্ছে ক্ষমতায় যেই থাকে; সেই মানুষের মৌলিক অধিকারে হস্তক্ষেপ করে। তা সেটা বাংলায় তৃণমূল হোক বা ত্রিপুরায় বিজেপি। বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচনে মমতার তৃণমূলের চেয়েও; ভোটের আগেই অনেক বেশি আসনে জয়ী ত্রিপুরায় বিপ্লবের বিজেপি।

বাংলায় পঞ্চায়েত ভোটে ৩৪ শতাংশ আসনে; বিনা ভোটেই জয়লাভ করেছিল মমতার তৃণমূল। ত্রিপুরার পঞ্চায়েত ভোটে; মমতার তৃণমূলকেও অনেকটাই পিছনে ফেলে দিয়েছে বিপ্লবের বিজেপি।

আরও পড়ুনঃ কেন্দ্রের হারেই ডিএ দিতে হবে রাজ্যকে, মমতাকে পরিষ্কার নির্দেশ দিল স্টেট ট্রাইব্যুনাল

পঞ্চায়েত ভোটে ৮৬ শতাংশ আসন; ইতিমধ্যেই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে নিয়েছে বিজেপি। ফলে এবার ত্রিপুরায় মাত্র ১৪ শতাংশ আসনে নির্বাচন হবে। শনিবার সকাল ৭টা থেকে ভোট চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। ৩১শে জুলাই ভোট গণনা।

রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী; ত্রিপুরায় ৫৯১টি গ্রাম পঞ্চায়েতের ৬,১১১টি আসনের মধ্যে ভোট হবে মাত্র ৮৩৩টি আসনে। বাকি আসনগুলো আগেই; বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে নিয়েছে বিজেপি।

আরও পড়ুনঃ মোদী বিরোধী বাঙালি বুদ্ধিজীবীদের, পাল্টা চিঠি বিজেপি বুদ্ধিজীবীদের

৩৫টি পঞ্চায়েত সমিতির ৪১৯টি আসনের মধ্যে ভোট হবে মাত্র ৮২টি আসনে। সিপিএমের অভিযোগ; ৩৩৭টি আসনে বিজেপি সন্ত্রাস করে; অন্য কোনও রাজনৈতিক দলের প্রার্থী দাঁড় করাতেই দেয়নি। একই অবস্থা জেলা পরিষদেও।

রাজ্যের ৮টি জেলা পরিষদের ১১৬টি আসনের মধ্যে; শনিবার ভোট হবে ৭৯টি আসনে। বাকি ৩৭টি আসন আগেই পকেটে পুরে ফেলেছে বিজেপি। অর্থাৎ, মোট ৬,৬৪৬টি আসনের মধ্যে শনিবার ভোট হবে; কেবলমাত্র ৯৯৪টি আসনে। বাকি সমস্ত আসন ইতিমধ্যেই; বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে নিয়েছে বিজেপি।

তাই বলাই যায়; তৃণমূল বা বিজেপি নয়; ক্ষমতায় যেই বসে সেই মানুষের ভোট দেবার মৌলিক অধিকারে হস্তক্ষেপ করে। ত্রিপুরার বিজেপি বা বাংলার তৃণমূল; সব দলই সেই একই পথের প্রথিক। বিজেপির বিপ্লব বা তৃণমূলের মমতা; মানুষের স্বাধীনতায় হস্তক্ষেপ করাটা রাজনৈতিক দলগুলোর কাছে; সহজ ও সাধারণ একটা বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে; বলেই মনে করছে সাধারণ মানুশ ও রাজনৈতিক মহল।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন