ওয়ারেন্ট ছাড়াই বিরোধী দলনেতার অফিসে পুলিশি তল্লাশি, হাইকোর্টে শুভেন্দু

132
ওয়ারেন্ট ছাড়াই বিরোধী দলনেতার অফিসে পুলিশি তল্লাশি, হাইকোর্টে শুভেন্দু
ওয়ারেন্ট ছাড়াই বিরোধী দলনেতার অফিসে পুলিশি তল্লাশি, হাইকোর্টে শুভেন্দু
Simple Custom Content Adder

ওয়ারেন্ট ছাড়াই বিরোধী দলনেতার অফিসে পুলিশি তল্লাশি, হাইকোর্টে শুভেন্দু। রবিবার নন্দীগ্রামের বিধায়ক তথা রাজ্য বিধানসভার বিরোধী দলনেতা; শুভেন্দু অধিকারীর অফিসে তল্লাশি চালায় রাজ্য পুলিশ। যা নিয়ে তোলপাড়; রাজ্যের রাজনৈতিক মহল। এই ঘটনার পরেই, রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়; রাজ্যের মুখ্যসচিবের কাছে রিপোর্ট তলব করেন। এবার বিষয়টি নিয়ে, সোজা আদালতে গেলেন; নন্দীগ্রামের বিধায়ক। কলকাতা হাইকোর্ট শুভেন্দুকে পুলিশের বিরুদ্ধে; মামলা দায়ের করতে অনুমতি দিল।

রাজ্যের বিরোধী দলনেতা, শুভেন্দু অধিকারীর নন্দীগ্রামের কার্যালয়ে; ওয়ারেন্ট ছাড়াই পুলিশি তল্লাশি কেন? তা জানতে চেয়ে আগেই মুখ্যসচিবের কাছে রিপোর্ট তলব করেছিলেন; রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। মঙ্গলবারই সেই রিপোর্ট; রাজ্যপালের কাছে পেশ হওয়ার কথা। এবার একই প্রশ্ন তুলে মামলা দায়ের হল; কলকাতা হাইকোর্টে। বিনা নোটিসে কেন বিরোধী দলনেতার বাড়িতে পুলিশি হানা? প্রশ্ন তুলে আদালতের হস্তক্ষেপ চেয়ে; মামলা করেছেন শুভেন্দু অধিকারী। তাঁর প্রশ্ন, ওয়ারেন্ট ছাড়া কীভাবে বিরোধী দলনেতার অফিসে; তল্লাশি চালাল রাজ্য পুলিশ? মঙ্গলবার শুভেন্দুকে মামলাটি দায়ের করার অনুমতি দেন; হাইকোর্ট বিচারপতি রাজাশেখর মান্থা। বৃহস্পতিবার এই মামলার শুনানি বলে জানা গিয়েছে।

আরও পড়ুনঃ ‘সন্ধান চাই’, ‘নিখোঁজ’ তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহান, পোস্টার এলাকায়

পুলিশি অভিযানের ছবি দিয়ে, বিষয়টি নিয়ে রবিবার রাতেই; ট্যুইট করেছিলেন বিরোধী দলনেতা। সেখানে তিনি লেখেন, “কোনও রকমের খবর না দিয়ে, কোনও সার্চ ওয়ারেন্ট ছাড়াই; ম্যাজিস্ট্রেটের অনুপস্থিতিতে মমতার পুলিশ নন্দীগ্রামের বিধায়ক কার্যালয়ে অনধিকার প্রবেশ করে”। “এই ঘটনা মমতার সরকার পুলিশকে অপব্যবহারের মাধ্যমে; বিরোধী দলনেতার প্রতি ঘৃণ্য ষড়যন্ত্রে সামিল হয়েছেন”; বলেও অভিযোগ তোলেন শুভেন্দু অধিকারী।

রাজ্যের বিরোধী দলনেতা বক্তব্য, “রবিবার যেখানে তল্লাশি চালানো হয়েছিল তা শুধু বিধায়কের অফিস নয়; তিনি সেখানে থাকেনও”। রবিবারের তল্লাশি নিয়ে তিনি রাজ্য পুলিশকে তীব্র কটাক্ষ করেন। সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এবার হাইকোর্টের দ্বারস্থ হলেন; শুভেন্দু অধিকারী। আদালতে তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, “ওয়ারেন্ট ছাড়া কি ভাবে বিরোধী দলনেতার অফিসের তল্লাশি করা হল?” চাওয়া হয় মামলা করার অনুমতি।

সব শুনে কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি রাজশেখর মান্থা; শুভেন্দুর আবেদন মঞ্জুর করেন। এরপরেই শুভেন্দুর তরফে দায়ের হয় মামলা। আগামী বৃহস্পতিবার মামলাটির শুনানি হবে বলে হাইকোর্ট সূত্রে খবর। এই নিয়ে পুলিশের তরফে এখনও কিছু বলা হয়নি।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন