‘পিকে অভিষেকের যুগলবন্দী’, তৃণমূলের বি’পর্যয়ের বড় কারণ, মনে করছে রাজনৈতিক মহল

1326
'পিকে অভিষেকের যুগলবন্দী', তৃণমূলের বি'পর্যয়ের বড় কারণ, মনে করছে রাজনৈতিক মহল
'পিকে অভিষেকের যুগলবন্দী', তৃণমূলের বি'পর্যয়ের বড় কারণ, মনে করছে রাজনৈতিক মহল

‘পিকে অভিষেকের যুগলবন্দী’; কি তৃণমূলের বিপর্যয়ের বড় কারণ? বাংলার রাজনৈতিক মহল অন্তত তেমনটাই ভাবছে। মুকুল রায়ের দল ছাড়ার সময়, শোনা গিয়েছিল; অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে ক্ষমতার শীর্ষে বসাতেই; মুকুল রায়কে ছেঁটে ফেললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে, তখন মুকুলের বিরুদ্ধে; সারদা-নারদায় অন্যান্য অভিযোগও ছিল। শুভেন্দু অধিকারী বিতর্কেও; প্রধান কারণ হিসাবে উঠে এসেছে; সেই মুখ্যমন্ত্রী মমতার “ভাইপো প্রীতি”। এমনটাই মনে করছে; বাংলার রাজনৈতিক মহল। তবে, অভিষেকের চেয়েও এবারের তৃণমূলের বিপর্যয়ের প্রধান কারণ হিসাবে মনে করা হচ্ছে; পিকে ও পিকের টিমের তৃণমূল অন্দরে নাক গলানো। অধিকাংশ বিক্ষুব্ধ তৃণমূল নেতারাই; মেনে নিতে পারছেন না; পিকের খবরদারি। পিকে ও অভিষেক, দুটি নামই এখন বিধানসভা ভোটের আগে; তৃণমূলের সমস্যায় পড়ার অন্যতম কারণ; বলছেন তৃণমূল কর্মীরাও।

তৃণমূলের অন্দরে প্রশান্ত কিশোর, ওরফে পিকের টিমের কাজকর্ম নিয়ে; ক্ষোভ যত বাড়ছে; বিজেপি ততই সেই ক্ষোভকে কাজে লাগাচ্ছে। লোকসভা ভোটে ফল খারাপ হওয়ার পর; প্রায় ৫০০ কোটি টাকা দিয়ে; ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোরকে নির্বাচনী স্ট্র্যাটেজি ঠিক করতে নিযুক্ত করে; তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব। বিভিন্ন জেলায় গিয়ে, কলকাতায়, বিভিন্ন নেতাদের সঙ্গে বৈঠক; কর্মশালা শুরু করেন প্রশান্ত কিশোর।

আরও পড়ুনঃ শুভেন্দুর হাতে ভা’ঙন আটকাতে তৎপর তৃণমূল, জেলার নেতাদের কলকাতায় তলব অভিষেকের

কিন্তু, সম্প্রতি তৃণমূলের একাধিক বিধায়ক; তাঁর বিরুদ্ধে মুখ খুলতে শুরু করেন। সবার প্রথমে, শুক্রবার তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া; কোচবিহার দক্ষিণের বিধায়ক মিহির গোস্বামী মুখ খুলেছিলেন। তারপর নাম না করে, পিকেকে আ’ক্রমণ করেন; ব্যারাকপুরের তৃণমূল বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত। মুখ খুলেছেন, মুর্শিদাবাদের হরিহরপাড়ার তৃণমূল বিধায়ক; নিয়ামত শেখ। বেসরকারি সংস্থা এসে, তাদের রাজনীতি শেখাচ্ছে; বলে প্রশ্ন তুলেছেন আরও অনেকেই।

অপরদিকে, তৃণমূলের একপক্ষের মত; হয়তো অন্য দলের অফার রয়েছে বা দলে হালে পানি পাচ্ছেন না; তাই পিকেকে সামনে এনে এসব কথা বলছেন বিক্ষুব্ধরা। কিন্তু মমতার দল ছেড়ে যারাই যাচ্ছেন; তাঁরাই হয় অভিষেক না হয় পিকের দিকেই; সরাসরি আঙুল তুলেছেন। মমতার কাছের, তৃণমূলের অনেক বড় নেতাও পিকে ও অভিষেককে নিয়ে ক্ষুব্ধ; তৃণমূল সূত্রে এমনটাই খবর। বাংলার বাজারে চায়ের তুফানেও; তৃণমূল সমর্থকরা দলের এই বিপর্যয়ে; পিকে ও অভিষেককেই দায়ী করছেন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন