“রবীন্দ্রনাথ বেঁচে থাকলে নিজের হাতে পুরষ্কার দিতেন মমতাকে”

127
"রবীন্দ্রনাথ বেঁচে থাকলে নিজের হাতে পুরষ্কার দিতেন মমতাকে"
Simple Custom Content Adder

“রবীন্দ্রনাথ বেঁচে থাকলে নিজের হাতে পুরষ্কার দিতেন মমতাকে”। ‘রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর বেঁচে থাকলে, তিনি নিজের হাতে; মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পুরস্কার দিতেন’; বাংলা অ্যাকাডেমি পুরস্কারে ভূষিত হওয়া নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর প্রশংসায় চিত্রশিল্পী শুভাপ্রসন্ন ভট্টাচার্য। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভূষিত করা হয়েছে; বাংলা অ্যাকাডেমির বিশেষ পুরস্কারে। যা নিয়ে গোটা বাংলা জুড়ে; শুরু হয়েছে সমালোচনা। এই নিয়ে এবার মুখ খুললেন; চিত্রশিল্পী শুভাপ্রসন্ন। এক সংবাদমাধ্যমে এই নিয়ে; নিজের প্রতিক্রিয়া জানান তিনি।

শুভাপ্রসন্ন বলেই দেন যে, “রবীন্দ্রনাথ যদি আজ বেঁচে থাকতেন; তাহলে তিনি নিজের হাতে মমতাকে পুরস্কার তুলে দিতেন”। এর পাশাপাশি মমতার এই পুরস্কার পাওয়া নিয়ে, সাধারণ মানুষ ও কবি-সাহিত্যিকদের একাংশ যে ভাবে সমালোচনায় মুখর হয়েছেন; তাদেরও কটাক্ষ করেন শুভাপ্রসন্ন। তিনি বলেন, “তাদের এমন নেতিবাচক মনভাবে তিনি ‘লজ্জিত’।

আরও পড়ুনঃ “তৃণমূল নেতাদের পিছনে পেট্রোল ঢেলে দিন, দেখুন কেমন দৌড়ায়”, ফের বিতর্কে দিলীপ

এদিন মমতার ভূয়সী প্রশংসা করে শুভাপ্রসন্ন বলেন; “মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী নানান বিষয়ে নিজের প্রতিভার স্বাক্ষর রেখেছেন; তিনি নানান কারণে অন্য ধরণের মানুষ। মনের আবেগ, উচ্ছ্বাস, ভালো-লাগা, খারাপ-লাগা ও বিভিন্ন বিষয়ে; তিনি কবিতা লিখেছেন। এবং তাই তাঁকে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে”।

রবীন্দ্রজয়ন্তীর দিন, বাংলা অ্যাকাডেমির বিশেষ পুরস্কার পান; মুখ্যমন্ত্রী মমতা। এই ঘটনার জেরে কবিগুরুর অপমান হয়েছে বলে; অনেকেই তোপ দেগেছিলেন। তা নিয়েও বিস্ফোরক প্রতিক্রিয়া দেন শুভাপ্রসন্ন। তিনি বলেন, “এরা রবীন্দ্রনাথকে বোঝেনি; আর পুরস্কারকেও বোঝেনি। রবীন্দ্রনাথ থাকলে স্বয়ং তিনি এসে মমতাকে সংবর্ধনা দিতেন; রবীন্দ্রনাথ এদের মত ঈর্ষাকারত ছিলেন না”।

আরও পড়ুনঃ বাংলায় তৃণমূলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উত্তরসূরি কে, পরিস্কার জানিয়ে দিলেন অভিষেক

মমতার বিশেষ অ্যাকাদেমি পুরস্কার পাওয়া নিয়ে, যেসমস্ত কবি-সাহিত্যিকরা সমালোচনা করেছেন; তাদের বিনয়ী হওয়ার পরামর্শ দেন শুভাপ্রসন্ন। তিনি পরিস্কার বলেন, “জনগণের হয়ে কাজ করার পাশাপাশি; গান, কবিতা লিখেছেন মমতা। সাহিত্যের প্রতি নিজের ভালোবাসা ব্যক্ত করেছেন। তারা পুরস্কার পেয়েছেন; এটা লোকে মনে রাখবে না। মমতার পাওয়া পুরস্কার তারা পেয়েছেন; এটা তাদের গর্বের বিষয় হওয়া উচিত”।

এই বছর থেকেই চালু হয়েছে; পশ্চিমবঙ্গ বাংলা অ্যাকাডেমির ত্রিবার্ষিক পুরস্কার। প্রথম বছরই সেই পুরস্কার পেলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা; তাঁর ‘কবিতা বিতান’ কাব্যগ্রন্থের জন্য। তারপরেই শুরু হয়েছে জোর বিতর্ক।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন