উত্তরপ্রদেশের হা’থরস কাণ্ডে মিছিল, হরিয়ানার ফরিদাবাদে নিকিতা ঘটনায় সবাই চুপ কেন

4935
উত্তরপ্রদেশের হাথরস কাণ্ডে মিছিল, হরিয়ানার ফরিদাবাদ ঘটনায় সবাই চুপ কেন
উত্তরপ্রদেশের হাথরস কাণ্ডে মিছিল, হরিয়ানার ফরিদাবাদ ঘটনায় সবাই চুপ কেন

উত্তরপ্রদেশের হা’থরস কাণ্ডে মিছিল; হরিয়ানার ফরিদাবাদে নিকিতা ঘটনায় সবাই চুপ কেন? কেন এই দ্বিচারিতা। সোমবার বিকেলে, দিল্লি থেকে মাত্র তিরিশ কিলোমিটার দূরে; হরিয়ানার ফরিদাবাদে একটি কলেজের গেটের সামনে; নিকিতা তোমার নামে ২১ বছর বয়সি এক ছাত্রীকে; গু’লি করে খু’ন করে তৌসিফ নামে এক যুবক। ধর্ম পরিবর্তন করে; তাকে বিয়ে না করার জন্যই; তৌসিফ গুলি করে খু’ন করে নিকিতাকে। এই হ’ত্যাকাণ্ডের পরেই নিহত ছাত্রীর পরিবারের অভিযোগে; লা’ভ জি’হাদের তত্ত্ব উঠে আসে। প্রকাশ্য দিবালোকে এই ধরণের ঘটনার পরেও; মুখ খোলেন নি অনেকেই; যারা হা’থরস কাণ্ডে বাংলার মাটিতে মিছিল করেছিলেন। এই দ্বিচারিতা কেন? সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।

নিহত ছাত্রীর ভাইয়ের অভিযোগ, ২০১৮ সালেও একবার বিয়ে করার জন্য; নিকিতাকে অপ’হরণ করেছিল তৌসিফ। পুলিশে অভিযোগ দায়েরের পর; নিকিতাকে উদ্ধার করা হয়। সেই সময় তৌসিফের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করলেও; পরে দুই পরিবারের মধ্যে মধ্যস্থতায় বিষয়টি মিটমাট হয়ে যায়। ঘটনাটি ঘটেছে; হরিয়ানার বল্লভগড়ের আগরওয়াল কলেজের সামনে। কলেজের সামনে তরুণীকে গু’লি করে মা’রার দৃশ্যটি; ধরা পড়েছে ক্যামেরায়।

আরও পড়ুনঃ ‘সমুদ্রের বাহু’বলি’ আইএনএস কাভারতী অন্তর্ভুক্ত হল ভারতীয় নৌসেনায়

পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গু’লিবিদ্ধ হওয়ার আগে; তরুণী নিজেকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করেছিলেন। ফরিদাবাদের আগরওয়াল কলেজে; সোমবার পরীক্ষা দিতে গিয়েছিলেন নিকিতা তোমর নামের ওই তরুণী। তিনি বাণিজ্য বিভাগের; চূড়ান্ত বর্ষের ছাত্রী। সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গিয়েছে; আ’ক্রমণকারী তৌসিফ এবং তার বন্ধু রেহান একটি গাড়িতে বসে অপেক্ষা করছিল। সেই গাড়ির সামনে দিয়ে সহপাঠীদের সঙ্গে; নিকিতা যাওয়ার সময়ই হা’মলা চালানো হয়।

নিকিতার বাবা অভিযোগ করেন, বিয়ে করার জন্য; মেয়ের ধ’র্ম পরিবর্তনে চাপ দিয়েছিল তৌসিফ। পুলিশি জেরায় ধৃত তৌসিফ দাবি করেছে; নিকিতার বিয়ে অন্যত্র ঠিক হয়েছিল। পাশাপাশি ২০১৮ সালে নিকিতার পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে; গ্রে’ফতার হতে হওয়ায, ইচ্ছে থাকলেও মেডিসিন নিয়ে পড়তে পারেনি সে। সেই রাগ থেকেই নিকিতাকে খুনের সিদ্ধান্ত নেয় তৌসিফ। এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই তৌসিফ সহ দুই অভিযুক্তকে; গ্রে’ফতার করেছে পুলিশ। হাথরস কাণ্ডে যারা রাজ্য কাঁপিয়েছিলেন; তাঁরা এই ঘটনায় চুপ কেন? এটাই এখন বাংলায় বড় প্রশ্ন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন