কাশ্মীরের মতো বাংলাকেও ঠান্ডা করে দেওয়ার অনুরোধ

378
কাশ্মীরের মতো বাংলাকেও ঠান্ডাকরে দেওয়ার অনুরোধ/The News বাংলা
কাশ্মীরের মতো বাংলাকেও ঠান্ডাকরে দেওয়ার অনুরোধ/The News বাংলা

মঙ্গলবার বেলা সাড়ে তিনটে নাগাদ; নেতাজী ইন্ডোর স্টেডিয়ামের সভাস্থলে পৌঁছালেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তথা বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। তাঁর সামনেই আনুষ্ঠানিক ভাবে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কথা ছিল; বিধাননগরের প্রাক্তন মেয়র সব্যসাচী দত্ত। সেই মতোই বিদ্যাসাগরের মূর্তি দিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে বরন করে নেওয়ার পরই; সব্যসাচী পদ্ম শিবিরে আনুষ্ঠানিক ভাবে যোগ দেন। পাশাপাশি নেতাজি ইন্ডোরে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের বিজেপি সাংসদ সহ; বিধায়করা। এছাড়াও দেখা গিয়েছিল একাধিক কেন্দ্রীয়মন্ত্রীকে।

সব্যসাচী দত্ত বিজেপি কর্মী হিসাবে; তাঁর প্রথম বক্তৃতাতে বলেন; “আমার কাছে আগে দেশ; তারপর দল; তারপর ব্যক্তি”। তাঁর সঙ্গেই বিজেপিতে যোগ দেবার কথা; আরও কয়েকজন তৃণমূল কাউন্সিলর সহ বহু তৃণমূল নেতার। সব্যসাচীর মুখে এদিন; ‘ভারত মাতা কি জয়’ সহ ‘জয় শ্রীরাম’ শ্লোগান দিতেও দেখা যায়।

আরও পড়ুনঃ দুর্গা পুজোর বোনাস দিতে বাংলায় আসছেন অমিত শাহ

সম্প্রতি মার্কিন মুলুকে; প্রধানমন্ত্রী ও মার্কিন প্রেসিডেন্টের সাক্ষাৎ নিয়ে সব্যসাচী এদিন বলেন; “বিদেশে পা রাখলে এর আগে এই চিত্র দেখা যেত না। কংগ্রেস শুধুমাত্র রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক তৈরি করেছিল। একমাত্র মোদী রাশিয়া থেকে আমেরিকা সবাইকে এক সুতোতে বেঁধেছে”।

এরপরেই নিজের পুরনো দল; তৃনমূলকে কটাক্ষ করেন। তিনি বলেন; “মুকুলদার আমার বাড়িতে লুচি আলুর দম খেয়েছিল। তা নিয়ে অনেকের অনেক কিছু বলেছেন। কিন্তু আমি এই আতিথেয়তা করব। যারা এই আতিথেয়তাকে ভয় পায় তারা মানুষের পর্যায় পড়ে না। তারা অন্য গ্রহের প্রাণী”।

আরও পড়ুনঃ একমাস চোরের মত পালিয়ে থেকেও জামিন, আইন কি শুধুই ক্ষমতাবানদের জন্য

কাশ্মীরে পর; এবার বাংলাকে ঠান্ডা করার দায়িত্ব নিতে বলেন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহকে। তিনি ৩৭০ ও ৩৫এ ধারা বিলোপকে বাহবা জানিয়ে বলেন; “কাশ্মীর ঠান্ডা হয়ে গিয়েছে। অমিত শাহজির কাছে আমার বিনীত অনুরোধ বাংলাকেও ঠান্ডা করে দিন। আমরা সবাই শান্ত বাংলার আশায় আছি”।

সব্যসাচী এদিন এনআরসি নিয়ে বলেন; “আমার নাগরিকপঞ্জী নিয়ে অসুবিধা নেই। কিন্তু অনুপ্রবেশকারীদের ভারতে থাকতে দেব না। যারা ভারতকে টুকরো করতে চায় তাদের চিনে রাখুন। আজমল কাসাবদের চিনে রাখুন। বাংলা ধীরে ধীরে পাকিস্তানের অংশ হয়ে যাচ্ছে। বাংলাকে এর থেকে বাঁচাতে হবে”। এদিন তাঁর মুখে হিন্দিতে বিজেপির জয়ধ্বনি শোনা যায়।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন