তাজমহল তৈরি করেন নি শাহজাহান, শিবমন্দির তেজো মহালয়া ভেঙে তৈরি তাজমহল, গবেষণায় বিস্ফোরক দাবি

5824
তাজমহল তৈরি করেন নি শাহজাহান, শিবমন্দির তেজো মহালয়া ভেঙে তৈরি তাজমহল, গবেষণায় বিস্ফোরক দাবি
তাজমহল তৈরি করেন নি শাহজাহান, শিবমন্দির তেজো মহালয়া ভেঙে তৈরি তাজমহল, গবেষণায় বিস্ফোরক দাবি

তাজমহল তৈরি করেন নি শাহজাহান। শিবমন্দির তেজো মহালয়া ভেঙেই; তৈরি হয় তাজমহল। বিস্ফোরক দাবি উঠে এল এক গবেষণায়। আর তারপরেই হইচই শুরু হয়েছে; গোটা দেশে। সম্প্রতি তাজমহল নিয়ে প্রফেসর পিএন ওকের; একটি রিসার্চ সামনে এসেছে। সেখানে দেখা যাচ্ছে, মারভিন মিলস নামক এক আমেরিকান প্রফেসর; তাজমহল এর ভাঙা কাঠের দরজার কিছু অংশ নিয়ে; রেডিও কার্বন ডেটিং টেস্ট করেন। এই টেস্টের রিপোর্ট জানাচ্ছে; শাহজাহান যে সময় তাজমহল তৈরি করেছেন বলে ইতিহাস দাবি করে; বাস্তবে তাজমহল তারও তিনশো বছর আগে তৈরি হয়েছিল! যা দেখে একটা কথাই মনে হচ্ছে; আদতে শিবমন্দির তেজো মহালয়া কে; শাহজাহান তাজমহলে কনভার্ট করেছেন।

আরও পড়ুনঃ দেশে তৈরি ৯ টি মিসাইল দেখে, কাঁপে ভারতের সব শত্রু দেশ

সংস্কৃত শব্দ তেজো মহালয়া কে বিকৃত করেই; তাজমহল নামকরন করা হয়েছে। বলা হয়ে থাকে, এই মন্দির ছিল; আগ্রেশ্বর মহাদেবের বা লর্ড অফ আগ্রার। এছাড়াও, এই তাজমহল যে প্রকৃতপক্ষে শাহজাহান তৈরি করে নি; তার পক্ষে অনেক প্রমান আছে; ওই গবেষণায়। ইতিহাসে বলা হয়, শাহজাহান তার তৃতীয় স্ত্রী মমতাজ বেগমের স্মরনে; এই তাজমহল তৈরি করেন। কিন্তু, মমতাজের মৃত্যু হয় ১৬৩১ সালে; এবং তাজমহল তৈরি হতে সময় লাগে ২২ বছর। সুতরাং ১৬৫৩ তে কমপ্লিট হওয়ার কথা; কিন্তু ১৬৫২ সালেই আওরঙ্গজেব তাজমহল রিপিয়ারিং এর আদেশ দেন!

শিব মন্দিরের জায়গায় তাজমহল, গবেষণা

যে জিনিস তৈরিই হল না; বা সেই সবে তৈরি হয়েছে; তা রিপিয়ারিং কি করে সম্ভব? যা একটা কথাই প্রমান করে; আওরঙ্গজেব পুরোনো স্ট্রাকচার কে রিমডেলিং করেন; বলতে গেলে কনভার্ট করেন। এমনটাই উঠে এসেছে ওই গবেষণায়। সবচেয়ে বড় ব্যাপার, তাজমহলের মাথার উপর; একটি ত্রিশুল মত অংশ রয়েছে, যাতে একটি কলস ও দুটি আমপাতার অংশ রয়েছে। কোন মুসলিম স্ট্রাকচারে এই ধরনের জিনিস ব্যবহার করতে দেখা যায় না।

আরও পড়ুনঃ টানা ৩ দিন, চিন সেনাকে রুখে একা অরুণাচল প্রদেশ বাঁচিয়েছিলেন রাইফেলম্যান যশবন্ত সিং রাওয়াত

প্রফেসর মারভিন মিলস এর নেতৃত্বে; আমেরিকার ল্যবটারিতে তাজমহলের একটি দরজার অংশ কে; ১৪ বার রেডিও কার্বন ডেটিং টেস্ট করা হয়। যাতে বারবার দেখা গেছে, এটি তৈরি হয়েছিল ১৩৫৩ এর দিকে; কিন্তু ইতিহাস বলে তাজমহল তৈরি হয় ১৬৫৩ সালে! তবে এই নিয়ে এখনও মুখ খোলেন নি; ভারতীয় গবেষকরা।

আরও অনেক কারণ দেখানো হয়েছে; এই তাজমহল গবেষণায়। যাই হোক এগুলো সবই ধারনা। ভারতের সুপ্রিম কোর্ট বা কেন্দ্রীয় সরকার স্বীকৃতি না দিলে; কোন কিছুই গ্রাহ্য নয়। তবে, প্রফেসর পিএন ওকের তাজমহল রিসার্চ; ও আমেরিকান প্রফেসর মারভিন মিলস এর গবেষণা; ইতিমধ্যেই হইচই ফেলে দিয়েছে গোটা দেশ ছাড়িয়ে সমগ্র বিশ্বে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন