প্রতারক ‘স্যার’ দেবাঞ্জন ধরা পরতেই, ‘আমিও প্রতারিত’ বললেন ‘ম্যাডাম’ সুস্মিতা

3818
প্রতারক 'স্যার' দেবাঞ্জন ধরা পরতেই, 'আমিও প্রতারিত' বললেন 'ম্যাডাম' সুস্মিতা
প্রতারক 'স্যার' দেবাঞ্জন ধরা পরতেই, 'আমিও প্রতারিত' বললেন 'ম্যাডাম' সুস্মিতা

প্রতারক ‘স্যার’ দেবাঞ্জন ধরা পরতেই; ‘আমিও প্রতারিত’ বললেন ‘ম্যাডাম’ সুস্মিতা! পুলিশের তদন্ত যত এগোচ্ছে, দেবাঞ্জন দেবের প্রতারণার তালিকা; তত দীর্ঘ হচ্ছে। দেবাঞ্জনের বিরুদ্ধে এবার প্রতারণার অভিযোগ তুললেন; তাঁর ভুয়ো সংস্থারই কর্মী সুস্মিতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কসবা ভুয়ো ভ্যাকসিন কাণ্ডে, দেবাঞ্জন দেবের সমস্ত কাজে; সেকেন্ড-ইন-কমান্ড ছিলেন এই সুস্মিতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁকে নিজের ডেপুটি সেক্রেটারি বলেই; সবার সামনে পরিচয় দিতেন দেবাঞ্জন। ভুয়ো ভ্যাকসিন কাণ্ডে তদন্তকারীদের স্ক্যানারে; সেই সুস্মিতাও। যদিও পাল্টা সুস্মিতার দাবি; তিনিও প্রতারণার শিকার!

পুলিশ প্রথম থেকেই সন্দেহ করে আসছে; দেবাঞ্জন দেব একা নন। তাঁর সঙ্গীর তালিকাও; বেশ লম্বা। দেবাঞ্জনের অত্যন্ত বিশ্বাসভাজন; কিছু মানুষ ছিলেন। তদন্তে এরকম বেশ কয়েকটি নামও; উঠে এসেছে। সেই তালিকায়; রয়েছেন সুস্মিতাও। দেবাঞ্জন নিজেকে যেমন আইএএস পরিচয় দিতেন; তাঁর অফিসে কর্মরত সুস্মিতার পরিচয় করাতেন ডব্লুবিসিএস অফিসার হিসাবে। সুস্মিতার দাবি, তাঁরা কেউ জানতেন না; দেবাঞ্জন ভুয়ো আইএএস অফিসার; পরে জানতে পেরেছেন। তিনি বলেন, “আমরা কেউ দেবাঞ্জনের প্রতারণা বুঝতে পারিনি; আমিও প্রতারিত হয়েছি”।

আরও পড়ুনঃ ‘রাজ্যপাল নিজেই বড় দুর্নীতিগ্রস্ত’, মুখ্যমন্ত্রী মমতার বি’স্ফোরক অভিযোগে উত্তাল দেশ

সুস্মিতাকেই কলকাতা পুরসভার ডেপুটি সেক্রেটারি হিসেবে; পরিচয় দিতেন দেবাঞ্জন। যদিও সেই অভিযোগ; অস্বীকার করেছেন সুস্মিতা। উত্তর কলকাতার নর্থ সিটি কলেজে, দেবাঞ্জন যে টিকার শিবির করেছিলেন; সেখানে হর্তাকর্তা ছিলেন এই সুস্মিতাই। একই গাড়ি থেকে নেমে; সেদিন শিবিরে ঢুকেছিলেন তাঁরা। সেখানেও সকলকে সরকারি আধিকারিক হিসাবেই; পরিচয় দেন সুস্মিতা। যদিও দেবাঞ্জনের গ্রেফতারির পর; সুস্মিতার দাবি একেবারেই ভিন্ন।

আরও পড়ুনঃ ‘ল্যাং’টো প্রতিবাদ’ নাড়িয়ে দিল প্রশাসনকে, জেলা জুড়ে তদন্তের নির্দেশ

সুস্মিতা জানান, “আমরা কি জানতাম; উনি ভুয়ো আইএএস? ভুয়ো জয়েন্ট কমিশনার? আমাদের সঙ্গে দিনের পর দিন; প্রতারণা করে গিয়েছেন। এতগুলো মানুষকে ভ্যাকসিন দিয়ে; প্রতারণা করছেন কী করে জানব? আমি পুরোপুরি প্রতারিত”। কিন্তু দেবাঞ্জনের অফিসের কর্মীরাও, সুস্মিতার পরিচয়; একজন ডব্লুবিসিএস অফিসার হিসাবেই জানতেন। তবে এ নিয়ে সুস্মিতার প্রতিক্রিয়া; “উনি আমার আড়ালে কী বলছেন; তা আমি কী করে জানব”। সুস্মিতার সঙ্গেও তদন্তের স্বার্থে; কথা বলতে পারে পুলিশ; এমনটাই জানা যাচ্ছে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন