বিহারে হারার পরেই, বিজেপির বিরুদ্ধে ইভিএম কারচুপির অভিযোগ করল কংগ্রেস আরজেডি

2045
বিহারে হারার পরেই, বিজেপির বিরুদ্ধে ইভিএম কারচুপির অভিযোগ করল কংগ্রেস আরজেডি
বিহারে হারার পরেই, বিজেপির বিরুদ্ধে ইভিএম কারচুপির অভিযোগ করল কংগ্রেস আরজেডি

বিহারে হারার পরেই, বিজেপির বিরুদ্ধে; ইভিএম কারচুপির অভিযোগ কংগ্রেসের। বিহার বিধানসভা নির্বাচনের ভোটগণনাকে, কেন্দ্র করে; নাটকের পর নাটক। দিনভর এনডিএ এবং মহাজোটের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর; অবশেষে সরকার গঠনের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছে বিজেপি-জেডিইউ এনডিএ জোট। আর তারপরই সন্ধ্যায় ইভিএম-এ কারচুপির অভিযোগ তুলেছে; কংগ্রেস এবং আরজেডি। যদিও নির্বাচন কমিশনের তরফে সাফ জানানো হয়েছে; ইভিএম-এ কোনও রকমের কারচুপি করে; ভোটের ফল প্রভাবিত করার কোনও সম্ভাবনাই নেই। হারার পরেই ইভিএম কারচুপির অভিযোগ কেন? প্রশ্ন সাধারণ মানুষের মনেও।

সকালে গণনা পর্ব শুরু হতেই; বুথ ফেরত সমীক্ষার ফলাফলকে সত্যি করে এনডিএ জোটের থেকে; বেশ কিছুটা এগিয়ে যায় কংগ্রেস-আরজেডি-বামেদের বিরোধী মহাজোট। কিন্তু বেলা যত গড়ায়; তত পিছতে থাকে জোট। এদিকে ভোটের ফলাফলে এনডিএ শিবিরের পাল্লা ভারী হতেই; এবার ইভিএম কারচুপির অভিযোগে সরব হতে দেখা যায় কংগ্রেসকে। এবার তারই উত্তর এল; খোদ নির্বাচন কমিশনের তরফে। ইভিএমগুলিকে ‘টেম্পার-ফ্রি’ বলেও; ঘোষণা করতে দেখা যায় কমিশনকে।

আরও পড়ুনঃ সব সমীক্ষা, সব রাজনৈতিক মত ভুল প্রমাণ করে, বিহার ভোটে সংখ্যাগরিষ্ঠ দল হচ্ছে বিজেপি

এ দিন আরজেডি-র তরফে; একটি ভিডিও ট্যুইট করে অভিযোগ করা হয়; “কোনওরকম ছাড়পত্র বা পরীক্ষা ছাড়াই; এক ট্রাকভর্তি ইভিএম আরাহ-এর একটি গণনাকেন্দ্রে ঢোকানো হচ্ছে”। কংগ্রেস নেতা শত্রুঘ্ন সিনহা; সেই ভিডিওটি রিট্যুইট করেন। তবে সরাসরি কারচুপির অভিযোগ; করেননি তিনি। শত্রুঘ্নের পুত্র এবং বাঁকিপুর আসনের প্রার্থী লভ সিনহা, অভিযোগ করেন; “কারচুপি ছাড়া বিজেপি ভোটে জিততে পারে না”। আরজেডি সমর্থকরাও ইভিএম-এর বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়ে; প্রশ্ন তুলে বিক্ষোভ দেখান।

তবে, সম্পূর্ণ ভিন্ন রাস্তায় হাঁটতে দেখা যায়; কংগ্রেস নেতা কার্তি চিদাম্বরমকে। নির্বাচন কমিশনের কথার সঙ্গেই, সহমত পোষণ করেন তিনি বলেন, “দেশে একাধিকবার ইভিএম কারচুপির অভিযোগ উঠলেও; কেউই এর স্বপক্ষে; বিশেষ কোনও প্রমান দিতে পারেনি। সাধারণত যখনও কোনও রাজ্যে বা দেশের ভোট; কোনও নির্দিষ্ট পার্টির দিকে বা ভিন্ন দিকে বইতে শুরু করে; তখনই এই জাতীয় অভিযোগ উঠতে শুরু করে। আসলে তা রাজনৈতিক বালখিল্যতারই সমান”। বিজেপিও হেসে উড়িয়ে দিয়েছে; কংগ্রেস আরজেডি-র এই অভিযোগ।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন