“দলের কয়েকজন ঠেলে বিজেপিতে পাঠাতে চায়, কল্যাণ ঠিক করছেন না”, মুখ খুললেন শিশির অধিকারী

3525
"দলের কয়েকজন বিজেপিতে পাঠাতে চায়, কল্যাণ ঠিক করছেন না", মুখ খুললেন শিশির অধিকারী

“দলের কয়েকজন ওকে ঠেলে, বিজেপিতে পাঠাতে চায়; কল্যাণ ঠিক করছেন না”; এবার মুখ খুললেন তৃণমূল সাংসদ শিশির অধিকারী। ছেলে শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে যখন রাজ্য রাজনীতির জল্পনা চরমে; তখন বাবা শিশির পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন; “‌আমি তৃণমূলে ছিলাম, আছি, থাকব”। তিনি বলেন, “শুভেন্দু মন্ত্রিসভা থেকে ইস্তফা দিয়েছে; ক্ষোভ, অভিমান আছে। তবে দলেরই কয়েকজন জোর করে ঠেলে; ওকে বিজেপিতে পাঠিয়ে দিতে চায়। কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় শুভেন্দু সম্পর্কে যা বলছেন; তা ঠিক করছেন না”।‌ তৃণমূলেই থাকব বলেও, দলের নেতারা শুভেন্দু নিয়ে যা বার্তা দিচ্ছেন; তার বিরুদ্ধেই মুখ খুললেন শিশির অধিকারী।

মন্ত্রিত্ব ছাড়ার পরে, প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে; শুভেন্দু অধিকারী তৃণমূলেই থাকবেন তো?‌ শুভেন্দুর বাবা ও তৃণমূল সাংসদ শিশির অধিকারীকে প্রশ্ন করা হয়; “শুভেন্দু কি শেষ পর্যন্ত দলে থাকছেন”?‌ শিশিরবাবু ইঙ্গিতপূর্ণ ভাবে বলেন; “‌দেখুন কী হয়”।‌ তবে, কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় ও ফিরহাদ হাকিম যে শুভেন্দুকে; জোর করে ঠেলে বিজেপিতে পাঠিয়ে চান; তা নাম না করে নিজের বক্তব্যে, পরিষ্কার বুঝিয়ে দিয়েছেন শিশির অধিকারী। আর শিশির অধিকারীর এই বক্তব্যে; তৃণমূলের নেতাদের চরিত্র জলের মত পরিষ্কার হয়ে গেল; বলেই মনে করছেন বাংলার রাজনৈতিক মহল।

আরও পড়ুনঃ “তৃণমূল নেতাদের দেখলে মানুষ থুথু ফেলেন”, বি’স্ফোরক জেলা তৃণমূল সম্পাদক

যদিও শুভেন্দু দলেই থাকবেন; এই ব্যাপারে সাংসদ সৌগত রায়; এখনও খুবই আশাবাদী। তিনি বলেন, “ওর সঙ্গে আলোচনার দায়িত্ব; আমাকে নেত্রী দিয়েছিলেন। আমরা খোলাখুলি আলোচনা করেছিলাম। শুভেন্দু দল ছাড়ার কথা; একবারও বলেননি। আমি এখনও বিশ্বাস করি; ও দলেই থাকবে। আমায় যদি নেত্রী বলেন;তাহলে আমি আবার কথা বলব”।

তবে, এদিন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্যে; ঠিক তার উল্টো ছবি ধরা পরেছে। “লিফটে উঠলে তৃণমূলে; আমিও ৩৫টা পদ পেতাম”; রবিবার শুভেন্দুকে পা’ল্টা দিলেন অভিষেক”। প্যারাশুটে নামলে আমিও দক্ষিণ কলকাতায় লোকসভায় দাঁড়াতাম”; শুভেন্দুকে এভাবেই জ’বাব দিলেন অভিষেক। সাতগেছিয়ার জনসভা থেকে; নাম না করে শুভেন্দু অধিকারীকে কটাক্ষ করেন অভিষেক। মমতা কি সত্যি শুভেন্দুকে চান? অভিষেকের জনসভার পর; ফের উঠে গেল প্রশ্ন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন