“সব দরজাই খোলা আছে, জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত রাজনীতিতে থাকব, আমায় কেউ ফেলে রাখতে পারবে না”

1193
"সব দরজাই খোলা আছে, কেউ ফেলে রাখতে পারবে না", ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা জানালেন শিশির

“সব দরজাই খোলা আছে, জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত রাজনীতিতে থাকব; আমায় কেউ ফেলে রাখতে পারবে না”; শেষ পর্যন্ত মুখ খুললেন; তৃণমূল সাংসদ শিশির অধিকারী। তিনি পরিষ্কার বলেছেন, তাঁর সামনে সব দরজাই খোলা রয়েছে; সব অপশন খোলা রয়েছে। তিনি ৬৩ সাল থেকে রাজনীতি করছেন। ফলে তিনি, রাজনীতিতেই থাকবেন। জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত রাজনীতি করবেন; বলে জানিয়েছেন তিনি। তিনি এদিন জানান; ইট, কাঠ, পাথর হয়ে; তিনি থাকতে পারবেন না। ১৩০ বছর বাঁচবেন বলে; দাবি করেছেন শিশির অধিকারী। তবে কোনও সিদ্ধান্ত নিলে, তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জানাবেন; বলেও জানিয়েছেন কাঁথির তৃণমূল সাংসদ।

জেলা তৃণমূল সভাপতির পদ হারানোর পর; ক্ষোভ প্রকাশ করেছিলেন তিনি। তবে দল ছাড়বেন না বলেই; জানিয়েছিলেন শিশির অধিকারী। ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই; অন্য সুর শোনা গেল তাঁর মুখে। বৃহস্পতিবার তিনি বললেন; “সমস্ত রকম সম্ভাবনার দরজা খোলা রয়েছে”। এদিন শিশির অধিকারী দাবি করেছেন; তিনি অনেকের থেকে শারীরিকভাবে বেশি ফিট।

আরও পড়ুনঃ গেরুয়া পোষাকে তৃণমূলে বেসুরো শতাব্দী, তারিখ জানিয়ে দিলেন দল ছাড়ার ইঙ্গিত

শিশির অধিকারী এদিন তৃণমূলের মুখপাত্র; কুণাল ঘোষকেও নিশানা করেন। তিনি অভিযোগ করে বলেন; “কুণাল ঘোষ নোংরা লোক। দলের ক্ষতি করে যাচ্ছেন। কী করে তিনি মাসে ১৬ লক্ষ টাকা বেতন পেতেন; তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন শিশির অধিকারী। এদিন সংবাদমাধ্যমকে শিশিরবাবু বলেন; “অনুগামীদের সঙ্গে কথা বলে; এর পর কী করবো তা ঠিক করবো। কোনও সম্ভাবনাই উড়িয়ে দিচ্ছি না”।

তৃণমূলের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে শিশিরবাবু জানান; “আমি কোনও জড়বস্তু নই; যে যেখানে খুশি ফেলে রাখবে”। তাঁর দাবি, তাঁর যা ফিটনেস রয়েছে; তাতে তিনি ১৩০ বছর বাঁচবেন। এবং অনেকের চেয়ে তিনি বেশি ফিট; এই বলে তিনি কটাক্ষ করলেন সৌগত রায়কেও। বৃহস্পতিবারই পূর্ব মেদিনীপুর জেলা তৃণমূলের; নতুন কোর কমিটির বৈঠক হয়। কিন্তু সেই বৈঠকে শিশির অধিকারী বা দিব্যেন্দু অধিকারী; কেউই ডাক পাননি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন