দান করে দিলে গোয়েন্দা সংস্থা ‘সম্পত্তি ফ্রিজ বা অ্যাটাচ’ করতে পারবে না, বাঙালি ভাবছে ‘প্রেম’

3013
দান করে দিলে গোয়েন্দা সংস্থা 'সম্পত্তি ফ্রিজ বা অ্যাটাচ' করতে পারবে না, বাঙালি ভাবছে 'প্রেম'
দান করে দিলে গোয়েন্দা সংস্থা 'সম্পত্তি ফ্রিজ বা অ্যাটাচ' করতে পারবে না, বাঙালি ভাবছে 'প্রেম'

মানব গুহ, কলকাতাঃ রাতারাতি জামাইষষ্টির দিন, নিজের স্থাবর-অস্থাবর সব সম্পত্তি; বান্ধবী বৈশাখীকে দান করে দিলেন, রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী ও কলকাতার প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু কেন? বাংলার মানুষ জোর চর্চায়; স্বয়ং শোভন বলেছেন ‘সম্পর্কের মর্যাদা’ দিতে। কিন্তু কলকাতা হাইকোর্টের আইনজীবীরা ও যারা আইন-আদালত নিয়ে থাকেন; তাঁরা ভাবছেন অন্য কথা। সাধারণ মানুষ ব্যস্ত; শোভনের ‘বান্ধবী প্রেম’ নিয়ে। আইন সংক্রান্ত বিষয় যাদের পেশা; তাঁরা বলছেন এটা মোটেও ‘ঢাক বাজিয়ে প্রেম’ নয়। আসলে, দান করে দিলে গোয়েন্দা সংস্থা আর; ‘সম্পত্তি ফ্রিজ বা অ্যাটাচ‘ করতে পারবে না। সারদা মামলায় যেটা; করা শুরু করেছে ইডি।

বাঙালি ভাবছে ‘প্রেম’। ‘গল্প’ কি তাহলে অন্য? নিজের সব সম্পত্তি, বান্ধবী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে দান করেছেন; বলে জানিয়েছেন শোভন চট্টোপাধ্যায়। দুঃসময়ে পাশে দাঁড়িয়েছেন বান্ধবী বৈশাখী; সেই কারণেই এই সিদ্ধান্ত দাবি শোভনের। শোভন নিজে বলেছেন; “সম্পর্ককে মর্যাদা দিতে চেয়েছি। সেই প্রেক্ষিতেই বৈশাখীকে; সব সম্পত্তি দান করেছি। এখন থেকে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়; আমার সম্পত্তির অধিকারী”।

আরও পড়ুনঃ ১১ বছর বয়সেই কম্পিউটার পোগ্রামিং বই লিখে বিশ্বকে চমকে দিল বাঙালি বালক

কিন্তু কারণটা কি শুধুই তাই? নারদা স্টিং অপারেশনে, যাদের দেখা গিয়েছে; তাদের সবার ৭ বছরের আয়-ব্য়য় ও সম্পত্তির হিসেব আগেই নিয়েছে ইডি। সারদা মামলাতেও ফেঁসে আছেন; কলকাতার প্রাক্তন মেয়র। সারদা মামলায় শোভন চট্টোপাধ্যায়কে; একাধিকবার তলব করে সিবিআই। সারদা গ্রুপকে দেওয়া বিভিন্ন লাইসেন্স নিয়ে; জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কলকাতা পুরসভার প্রাক্তন মেয়রকে; একাধিকবার তলব করেছে কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। তলব পাওয়ার পর, হাজিরা দিতে বান্ধবী বৈশাখীকে নিয়েই; সিজিও কমপ্লেক্সে গেছেন শোভন।

আরও পড়ুনঃ মানুষের সেবায় টোটোয় ‘দুয়ারে মনোরঞ্জন’, বাংলায় এমন বিধায়কই দরকার

সিবিআই সূত্রে খবর, শোভন চট্টোপাধ্যায় কলকাতার মেয়র থাকাকালীন; একাধিক ট্রেড লাইসেন্স পান, সারদা গ্রুপের কর্ণধার সুদীপ্ত সেন। কীভাবে সুদীপ্ত একাধিক ট্রেড লাইসেন্স পেয়েছিলেন; সারদা মামলায় তা এখনও সিবিআই-এর নজরে। অন্যদিকে, সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত সংক্রান্ত নির্দেশে ইডি ইতিমধ্যেই জানিয়েছে; তৃণমূল নেতা কুণাল ঘোষ; শতাব্দী রায়; এবং সারদা গোষ্ঠীর অন্যতম অধিকর্তা দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের; তিন কোটি টাকার সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। সেই ভয়েই কি আগেভাগেই; বৈশাখীকে সব সম্পত্তি দান করলেন শোভন?

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন