নিয়োগের বিজ্ঞাপন দিয়েও ডাক্তার পাচ্ছে না রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর

267
নিয়োগের বিজ্ঞাপন দিয়েও ডাক্তার পাচ্ছে না রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর/The News বাংলা
নিয়োগের বিজ্ঞাপন দিয়েও ডাক্তার পাচ্ছে না রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

The News বাংলা, শিলিগুড়িঃ নিয়োগের বিজ্ঞাপন দিয়েও স্বাস্থ্য বিভাগে পাওয়া যাচ্ছে না ডাক্তার। চরম সমস্যায় রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। আর সেটাই সাধারণ মানুষকে জানাতে সাংবাদিক সম্মেলনও করা হল বৃহস্পতিবার।

আরও পড়ুন: ‘রাজনীতিতে টিকে থাকতে গেলে তেল দিতেই হবে’ বিস্ফোরক তৃণমূল সাংসদ

ন্যাশনাল হেল্থ মিশনের শুন্যপদে কর্মী নিয়োগ ও তার পদ্ধতি ঘটা করে সাংবাদিক সম্মেলনে করে জানিয়ে নজির সৃষ্টি করলো হেল্থ অ্যান্ড ফ্যামিলি ওয়োলফেয়ার রিক্রুটমেন্ট বোর্ড। গোটা জেলায় স্বাস্থ্য বিভাগে কর্মী নিয়োগে এই হয়ত প্রথম সাংবাদিক সম্মেলন করে প্রচারে আনার চেষ্টা করলো সংশ্লিষ্ট দপ্তর।

আরও পড়ুন: মানুষের সর্বনাশে কারও পৌষ মাস, দূষণই লাভজনক ব্যবসা

নিয়োগের বিজ্ঞাপন দিয়েও ডাক্তার পাচ্ছে না রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর/The News বাংলা
নিয়োগের বিজ্ঞাপন দিয়েও ডাক্তার পাচ্ছে না রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর/The News বাংলা

রাজ্যে কর্মসংস্থান নেই বলে বিরোধীরা প্রতিবাদে সোচ্চার। সেখানে দাঁড়িয়ে গোটা রাজ্যের পাশাপাশি দার্জিলিং জেলাতেই শুধু মাত্র স্বাস্থ্য বিভাগে কত কর্মী নিয়োগ ক্ষেত্রে কতগুলি শুন্য পদ রয়েছে এবং তার নিয়োগ প্রক্রিয়া কিভাবে শুরু হলো, তা এক সাংবাদিক সন্মেলন করে জানালেন দার্জিলিং জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রলয় আচার্য্য।

আরও পড়ুন: মোদীর গেরুয়া রথকে আটকাতে পারল না মমতার সরকার

দার্জিলিং জেলার ক্ষেত্রে ডাক্তার, স্পেশাল ডাক্তার, নার্স ও বিভিন্ন শুন্য পদে কর্মী নিয়োগ সংক্রান্ত ইন্টারভিউ শুরু হলেও ডাক্তার পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানালেন তিনি। সমস্ত বিভাগে কর্মী পাওয়া গেলেও স্পেশাল ডাক্তার অর্থাৎ এমও শুন্যপদ ১৩জন থাকলেও মাত্র ৩জন স্পেশাল ডাক্তার পাওয়া গেছে।

আরও পড়ুনঃ EXCLUSIVE: কলকাতা থেকে পুলিশ ও ব্যবসায়ীদের টাকা যাচ্ছে জঙ্গিদের হাতে

বাকি ১০জনকে নিযুক্ত করার জন্য ফের বিজ্ঞাপন দেওয়া হবে বলে জানান হেল্থ অ্যান্ড ফ্যামিলি ওয়েল ফেয়ার রিক্রুটমেন্ট বোর্ডের চেয়ারপার্সন রঞ্জন সরকার। এদিন মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক বলেন, সরকার থেকে নির্দেশিকা এসেছে স্পেশালাইজেশান না হলেও চলবে শুধু এমবিবিএস পাশ থাকলেই ১০টি শুন্যপদে ডাক্তার নিয়োগ করা যাবে।

আরও পড়ুন: ২২ বছর পর ফের ভূস্বর্গে রাষ্ট্রপতি শাসন

রঞ্জনবাবু জানান, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় অনেকগুলো রিক্রুটমেন্ট বোর্ড তৈরী করে দিয়েছেন। শিলিগুড়িতে হেল্থ অ্যান্ড ফ্যামিলি ওয়েলফেয়ার রিক্রুটমেন্ট বোর্ড করা হয়েছে। এই বোর্ডে রয়েছেন উত্তরবঙ্গ মেডিকেল কলেজ ও শিলিগুড়ি জেলা হাসপাতালের সুপার, মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক, মহকুমা পরিষদের এক্সিকিউটিভ অফিসার এবং জনপ্রতিনিধি হিসেবে শিলিগুড়ি পুরনিগমের বিরোধী দলনেতা রঞ্জন সরকার।

আরও পড়ুনঃ EXCLUSIVE: ডাক্তারের প্রোফাইল হ্যাক করে মহিলাদের ন্যুড ভিডিও পাঠাল ইঞ্জিনিয়ার

তিনি আরও জানান, এই বোর্ডের পক্ষ থেকে ৯১টি শুন্যপদে কর্মী নিয়োগ সংক্রান্ত পরীক্ষা হচ্ছে। ৬৫ জনকে এখনও পর্যন্ত নির্বাচন করা হয়েছে। যা যথেষ্ট নয়। তাই ফের একবার শুন্য পদে লোক নিয়োগ সংক্রান্ত বিজ্ঞাপন দিতে হবে বলে জানান তিনি। তবে আশার কথা মিরিক মহকুমার অন্তর্গত একটি মাত্র সরকারী হাসপাতালে যেখানে ৩০টি শয্যা ছিল সেখানে ১০০টি শয্যা বিশিষ্ট উন্নতমানের স্বাস্থ্য কেন্দ্র করা হচ্ছে।

আরও পড়ুনঃ জনগণকে ‘গাধা’ বানিয়ে ‘শিক্ষাগুরু নেহেরু’র যোগ্য ছাত্র সব রাজনীতিবিদ

সম্প্রতি সেখানে একটি ব্লাড ব্যাঙ্ক করার জন্য অনুমোদন পাওয়া গিয়েছে। সিভিল ও ইলেক্ট্রিক কাজের জন্য এস্টিমেট তৈরী করা হচ্ছে। তা হয়ে গেলেই দপ্তরে পাঠানো হবে। তারপর তা প্রশাসনিক ও অর্থনৈতিক স্তরে সংশোধন হয়ে গেলে টেন্ডার ডেকে কাজ শুরু করা হবে। সেখানেও আরও ডাক্তার, নার্স ও কর্মীর প্রয়োজন হবে। তাও অনুমোদন হয়ে গেছে বলে মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক জানান।

আরও পড়ুনঃ মানব জীবনে সঙ্গীতের অসংখ্য উপকারিতা

বর্তমানে মিরিক হাসপাতালে ৩০টি শয্যা রয়েছে। তার জন্য ৪জন ডাক্তার ও ১৪জন নার্স রয়েছে। হাসপাতালটি ১০০শয্যার হয়ে গেলে ২০জন ডাক্তার সহ প্রচুর নার্স ও কর্মীর প্রয়োজন হবে। লোকসভা নির্বাচনের আগে বিরোধীদের অভিযোগের মোক্ষম জবাব দিতে দার্জিলিং জেলার স্বাস্থ্য বিভাগে কর্মসংস্থানে বিপ্লব ঘটাতে চলেছে রাজ্য সরকার বলে রাজনৈতিক মহলের ধারনা। যা আশার আলো এই যে, কিছুটা হলেও শিক্ষিত বেকারদের কর্মসংস্থান হবে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন