করোনায় অনাথ শিশু, পরিসংখ্যান না দেওয়ায় কেজরিওয়াল ও মমতা সরকারকে সুপ্রিম তুলধোনা

2232
করোনায় অনাথ শিশু, পরিসংখ্যান না দেওয়ায় কেজরিওয়াল ও মমতা সরকারকে সুপ্রিম তুলধোনা
করোনায় অনাথ শিশু, পরিসংখ্যান না দেওয়ায় কেজরিওয়াল ও মমতা সরকারকে সুপ্রিম তুলধোনা

করোনায় অনাথ শিশুদের নিয়ে পরিসংখ্যান না দেওয়ায়; দিল্লির কেজরিওয়াল ও বাংলার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারকে; তুলধোনা করল সুপ্রিম কোর্ট। দেশ জুড়ে বাড়ছে অনাথ শিশুদের সংখ্যা; যাদের পরিবারের মানুষ মারা গেছেন করোনা আক্রান্ত হয়ে। আর এই সব শিশুর ডাটা ব্যাঙ্ক তৈরি করছে; কেন্দ্রীয় সরকার। করোনায় অভিভাবকহীন শিশুদের; পড়াশোনার খরচ বহন করবে কেন্দ্র সরকার। পিএম কেয়ার্স তহবিল থেকে; অভিভাবকহীনদের আর্থিক সাহায্য করা হবে। তবে জাতীয় শিশু সংরক্ষণ কমিশন (NCPCR)-এর পোর্টালৎ; এখনও কোন ডাটা দেয়নি বাংলা ও দিল্লি সরকার।

করোনায় অনাথ হওয়া শিশুদের ব্যবস্থা করার; শুনানি হয় সুপ্রিম কোর্টে। শীর্ষ আদালত নিজে থেকেই; এই ইস্যুটি তুলে ধরেছে। সুপ্রিম কোর্ট সমস্ত রাজ্যগুলোকে নির্দেশ দিয়ে বলেছিল; ‘করোনায় অনাথ হওয়া বাচ্চাদের তথ্য জোগাড় করে; জাতীয় শিশু সংরক্ষণ কমিশন (NCPCR)-এর পোর্টালে; আপলোড করতে হবে’। সব রাজ্য করলেও, পশ্চিমবঙ্গ আর দিল্লী সরকার; এখনও এই কাজ করে উঠতে পারেনি।

আরও পড়ুনঃ করোনায় অভিভাবকহীন শিশুদের পড়াশোনার খরচ বহন, পিএম কেয়ার্স তহবিল থেকে আর্থিক সাহায্য

ক্ষুব্ধ সুপ্রিম কোর্ট, তৃণমূল সরকার ও আপ সরকার-কে বলে; ‘অনাথ বাচ্চাদের সুরক্ষা ও যত্নের দরকার; তাঁদের কথা মাথায় রেখে আদালতের নির্দেশ যেন পালন করা হয়’। বাংলার আইনজীবীকে সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশ দেয়; তিনি যেন নিজে বাংলায় অনাথ হওয়া বাচ্চাদের; তথ্য জোগাড় করতে সরকারকে বলেন। আর সেগুলো যেন অতি শীঘ্রই; NCPCR পোর্টালে আপলোড করা হয়।

করোনার কারণে, মার্চ ২০২০-র পর অনাথ হওয়া বাচ্চাদের নিয়ে; সিদ্ধান্ত নেয় সুপ্রিম কোর্ট। শীর্ষ আদালত বলে, সমস্ত রাজ্য তাঁদের নির্দেশ মেনে; NCPCR পোর্টালে তথ্য আপলোড করেছে। কিন্তু পশ্চিমবঙ্গ ও দিল্লি এই আদেশে; কর্ণপাত করেনি। শীর্ষ আদালত ‘মা-মাটি-মানুষের’ সরকারকে ভর্ৎসনা করে বলে; “সরকার যেন কোনও বাহানা না দেয়; কারণ সব রাজ্যই নির্দেশের পালন করেছে। শুধুমাত্র বাংলার জন্য এটা বিভ্রান্তিকর; সেটা হতে পারে না”।

পাশাপাশি শীর্ষ আদালত এও বলেছে যে; ‘পশ্চিমবঙ্গ সরকার যেন শুধু তথ্যগুলোকে আপলোড করে; হাতে হাত ধরে বসে না থাকে। তারা যেন অনাথ হওয়া শিশুদের জন্য চলা প্রকল্পগুলো; সঠিকভাবে চালনা করে। আদালতের আগামী নির্দেশ জারি হওয়ার আগেই; যেন এই কাজগুলো হয়ে যায়।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন