ভোটে খারাপ ফল, সিপিএম রাজ্য সম্পাদকের দায়িত্ব ছাড়ার ইঙ্গিত সূর্যকান্ত মিশ্রের

360
ভোটে খারাপ ফল, সিপিএম রাজ্য সম্পাদকের দায়িত্ব ছাড়ার ইঙ্গিত সূর্যকান্ত মিশ্রের/The News বাংলা
ভোটে খারাপ ফল, সিপিএম রাজ্য সম্পাদকের দায়িত্ব ছাড়ার ইঙ্গিত সূর্যকান্ত মিশ্রের/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

লোকসভা ভোটে খারাপ ফলের দায় নিয়ে; দায়িত্ব ছাড়ার ইঙ্গিত সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্রের। নতুন নেতৃত্বে সম্পাদক মন্ডলী তৈরি হোক, চেয়ার আটকে রাখবো না; সিপিআই(এম)পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটির সভায়; এমন কথাই বললেন সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র।

সিপিএম সূত্রে খবর; পুরো সম্পাদকমন্ডলী ভেঙে নতুনদের সুযোগ দেওয়ার পক্ষে সওয়াল সিপিএম রাজ্য সম্পাদকের। মঙ্গলবার রাজ্য কমিটির বৈঠকে এমন মন্তব্যই করেছেন সিপিএম রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র। আর এর জেরেই হইচই শুরু হয়েছে; বাম রাজনীতির অন্দরমহলে। নতুনদের সুযোগ দেওয়ার পক্ষে; জোর সওয়াল করেন সূর্য মিশ্র।

সিপিআই(এম) পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য কমিটির সভা; মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত হয়। সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনের প্রাথমিক পর্যালোচনা; এই সভার মূল আলোচ্য ছিল। সভায় সভাপতিত্ব করেন বিমান বসু। পার্টির সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি; পলিটব্যুরোর সভায় প্রাথমিক পর্যালোচনার সার সংক্ষেপ পেশ করেন।

রাজ্য সম্পাদকমন্ডলীর তরফে রাজ্য সম্পাদক; সূর্য মিশ্র পর্যালোচনার খসড়া পেশ করেন। তিনি বলেন, “এই পর্যালোচনা চূড়ান্ত নয়। পার্টির সর্বস্তরে পর্যালোচনা করতে হবে। সমর্থক ও সাধারণ মানুষের মতামতও নিতে হবে। রাজ্য কমিটির প্রাথমিক পর্যালোচনায় বলা হয়েছে; এই নির্বাচনে বামফ্রন্টের ফলাফল বিপর্যয়কর”।

পুলওয়ামা ও বালাকোটের ঘটনার পরে; এবং দেশজুড়ে মোদী-বিরোধী দলগুলির মধ্যে সংহতির অভাব পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচনে প্রভূত প্রভাব ফেলে। এরাজ্যেও সাম্প্রদায়িক ও রাজনৈতিক মেরুকরণকে স্বল্প সময়ের মধ্যে তীব্রতর করে তোলে। স্বৈরাচার, দুর্নীতি, নৈরাজ্য, জীবনজীবিকা, বেকারত্ব, দুই সরকারের ব্যর্থতার হিসেবনিকেশ ইত্যাদি সবকিছুকে অপ্রাসঙ্গিক করে তোলা হয় পরিকল্পিত ছকে।

২০১৮ পঞ্চা‌য়েত নির্বাচনে তৃণমূলের ভোট লুট; পুলিশ-প্রশাসন, রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে সম্পূর্ণরূপে শাসকদলের স্বার্থে ব্যবহার করার দগদগে ক্ষত মানুষের মধ্যে বিরাজ করেছে। তৃণমূলের বিরুদ্ধে মানুষের এই ক্ষোভকে বিজেপি ব্যবহার করেছে।

দুবছর ধরে তৃণমূলের বিরুদ্ধে বাহুবল প্রদর্শন; বিজেপির কেন্দ্র ও রাজ্য নেতাদের প্রকাশ্য আগ্রাসী হুমকি; রামনবমী ও অন্যান্য কর্মসূচির মাধ্যমে; তারাই একমাত্র তৃণমূলকে দমাতে পারে, অন্য কেউই নয়, এরকম ধারণা জনমানসে প্রতিষ্ঠিত করতে বিজেপি সক্ষম হয়েছে; বলেই খসড়ায় বলা হয়েছে।

এরপরেই সূর্য মিশ্র; নতুন নেতৃত্বে সম্পাদক মন্ডলী তৈরি হোক; এমন দাবি পেশ করেন। সম্পাদক মন্ডলীতে তরুণ মুখের পক্ষে; জোর সওয়াল করেন তিনি। যদিও সিপিএমের তরফে; এমন তথ্য একেবারেই অস্বীকার করা হয়েছে।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন