সুষমা স্বরাজের মৃত্যুতে দেশে শোকের ছায়া, বাংলায় কুৎসিত মন্তব্যের ঝড়

1490
সুষমা স্বরাজ/The News বাংলা
সুষমা স্বরাজ/The News বাংলা

তাঁর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে রাজনৈতিক মহলে। সমস্ত রাজনৈতিক দলের নেতা নেত্রীরা তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন। বিজেপির শীর্ষ নেতারা ছাড়াও সুষমা স্বরাজের প্রয়াণে মর্মাহত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়; প্রকাশ ও বৃন্দা কারাট। কিন্তু এই রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্বের মৃত্যুকে নিয়ে বাংলায় কুৎসিত হাসি মজায় মাতল; কিছু শিক্ষিত বামপন্থী নেটিজন। মৃত্যুর পরে সোশ্যাল মিডিয়ায়; সুষমা স্বরাজকে নিয়ে তারা শুরু করেছে কুরুচিপূর্ণ ট্রোল।

প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রী তথা বিজেপি নেত্রী সুষমা স্বরাজের; জীবনাবসান হয় মঙ্গলবার রাতে। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে; দিল্লির এইমস হাসপাতালে শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৬৭ বছর। সুষমা স্বরাজের আচমকা মৃত্যুতে; শোকাহত বিজেপি শিবির। শুধু বিজেপি নেতৃত্বই নয়; দেশের রাজনৈতিক মহলও শোকার্ত এই মৃত্যুতে।

আরও পড়ুনঃ আবার একটা পুলওয়ামা হবে, কাশ্মীর নিয়ে ভারতকে হুঁশিয়ারি ইমরানের

সুষমা স্বারাজের মৃত্যুতে; শোকপ্রকাশ করেছেন কংগ্রেস-সহ; বিরোধী শিবিরের রাজনীতিকরাও। শ্রদ্ধা জানিয়ে শোকপ্রকাশ করেছেন; বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও। রাজনৈতিক আদর্শ ভিন্ন হলেও; প্রাক্তন বিদেশমন্ত্রীর সঙ্গে ভাল সময় কাটিয়েছেন; বলে জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

টুইটারে শোকপ্রকাশ করেন; প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি লেখেন; “এটা তাঁর ব্যক্তিগত ক্ষতি; অসাধারণ বক্তা এবং সাংসদ ছিলেন সুষমাজি। দলের সকলে তাঁকে সম্মান করতেন। আদর্শ এবং বিজেপির স্বার্থ নিয়ে; কখনওই আপস করেননি। দলের উন্নতিতে বিরাট ভূমিকা ওঁর”।

আরও পড়ুনঃ কাশ্মীর ভাগের পর সরকার হিন্দু ও মুসলমানকেও ভাগ করবে কিনা, প্রশ্ন ফারুক আবদুল্লার

কিন্তু পশ্চিমবঙ্গের কিছু লোকজন; যারা নিজেদের বামপন্থী ভাবধারায় বিশ্বাসী বলে দাবী করে; তারা ফেসবুক জুড়ে কুৎসিত মতামত ছড়াতে শুরু করেছে। কেউ লিখেছে ‘আরও কিছু বিজেপি নেতা; এই ভাবে ছটফট করতে করতে মরে যাক’। অতি বাম-ভাবাপন্ন কয়েকজন; রহিত ভেমুলার মৃত্যুতে সুষমা স্বরাজের ভূমিকা টেনে; তাঁর প্রতি অশ্রদ্ধা জানিয়েছে।

সুষমা স্বরাজের মৃত্যুতে এক বামপন্থী কমরেডদের উদ্দেশে লিখেছে; “একটা বিজেপির মৃত্যু সমান একটা ফ্যাসিস্ট এর মৃত্যু, এসো কমরেড আনন্দ করি”। তবে; অনেকেই প্রতিবাদ জানিয়েছেন; সুষমা স্বরাজের প্রতি এই ধরণের মন্তব্যের। মার্ক্সবাদ লেলিনবাদে; কেউ ব্যক্তিহত্যার রাজনীতিতে বিশ্বাসী হতে পারেনা। দেশের প্রাক্তন মন্ত্রীর মৃত্যুতে যারা উল্লাস প্রকাশ করছে; তাদের চিন্তা ভাবনায় বিস্তর গলদ আছে বলেও মত প্রকাশ করেছেন অনেকেই।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন