শুভেন্দু অধিকারীর ছেড়ে দেওয়া মন্ত্রিত্ব, আপাতত নিজের হাতেই রাখছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা

1311
শুভেন্দুর ছেড়ে দেওয়া ৩ টি মন্ত্রিত্ব, কাকে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা/The News বাংলা
শুভেন্দুর ছেড়ে দেওয়া ৩ টি মন্ত্রিত্ব, কাকে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা/The News বাংলা

শুভেন্দু অধিকারীর ছেড়ে দেওয়া দায়িত্ব; অর্থাৎ পরিবহণ, সেচ এবং জলসম্পদ দফতর; কোন কোন নেতা পাচ্ছেন; সেই নিয়ে শুক্রবার বিকাল থেকেই শুরু হয় জোর চর্চা। সিদ্ধান্ত নিতে, শুক্রবার সন্ধ্যায় কালীঘাটে নিজের বাড়িতে; সিনিয়ার নেতাদের বৈঠকে ডাকেন মমতা। তৃণমূল সূত্রের খবর ছিল; পরিবহণ দফতর দেওয়া হতে পারে; ফিরহাদ হাকিমকে। সেচ দফতর পেতে পারেন; রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। জলসম্পদ দফতর; দেওয়া হতে পারে অরূপ বিশ্বাসকে। তবে, সেরকম কিছুই হয়নি। শুভেন্দু অধিকারীর ছেড়ে দেওয়া তিন মন্ত্রিত্ব; আপাতত নিজের হাতেই রাখছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তৃণমূল সরকারের মন্ত্রিসভায় রাজ্য পরিবহণ, সেচ এবং জলসম্পদ দফতরের; মন্ত্রী ছিলেন শুভেন্দু ৷ সেই সমস্ত পদ থেকে শুক্রবার সকালে ইস্তফা দেন; নন্দীগ্রাম আন্দোলনের নেতা ৷ তাঁর পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়; রাজ্যপালকে জানিয়ে দেন ৷ একইসঙ্গে এও বলেন, আপাতত শুভেন্দু অধিকারীর ছেড়ে দেওয়া দায়িত্ব; অর্থাৎ তিন মন্ত্রিত্ব, পরিবহণ, সেচ এবং জলসম্পদ দফতর; নিজের হাতেই রাখছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ৷ তাঁর সিদ্ধান্তে সম্মতি জানিয়েছেন; রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ও ৷

আরও পড়ুনঃ শুভেন্দুর হাতে ভা’ঙন আটকাতে তৎপর তৃণমূল, জেলার নেতাদের কলকাতায় তলব অভিষেকের

সেই সঙ্গে, “শুভেন্দুর সঙ্গে আর কোন কথা বলা হবে না”; কড়া নির্দেশ দেন দলনেত্রী মমতা। দলের সঙ্গে কথাবার্তা চলার সময়েই, শুভেন্দু অধিকারীর মন্ত্রিত্ব থেকে ইস্তফা; আর তারপরেই এই বড় সিদ্ধান্ত নেন তৃণমূল নেত্রী। শুক্রবার, শুভেন্দুর ইস্তফার পরেই, দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে; বড় নেতাদের বৈঠকে তলব করা হয়। কালীঘাটে মুখ্যমন্ত্রীর বাড়িতে; সুব্রত বক্সি, অরূপ বিশ্বাস, ফিরহাদ হাকিম; পার্থ চট্টোপাধ্যায় সহ আরও কিছু মন্ত্রী ও সাংসদের নিয়ে বৈঠক হয়।

নিজের বাড়িতেই জরুরী বৈঠক ডাকেন মমতা; ছিলেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠকে শুভেন্দু অধিকারী নিয়ে আলোচনা হয়। শুভেন্দুর ছেড়ে যাওয়া মন্ত্রিত্বগুলি; বণ্টনের সিদ্ধান্তও নেওয়া হয়। শুভেন্দুর ইস্তফাপত্র গ্রহণ করেন; মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফলে তাঁর সঙ্গে দলের আলোচনার সম্ভাবনা নিয়ে; ওঠে বড়সড় প্রশ্ন। আপাতত সাময়িক বিরতি দিয়ে, রাজনৈতিক ভবিষ্যত নিয়ে সমস্ত সিদ্ধান্ত; শুভেন্দু অধিকারীর হাতেই ছেড়ে দিতে চাইছে দল; বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন