‘গুরুমা’রা বিদ্যে’, মমতার নির্দেশে বিরোধী দল ভাঙানোর খেলা শুরু করেছিলেন শুভেন্দু

588
'গুরুমা'রা বিদ্যে', মমতার নির্দেশে বিরোধী দল ভাঙানোর খেলা শুরু করেছিলেন শুভেন্দু
'গুরুমা'রা বিদ্যে', মমতার নির্দেশে বিরোধী দল ভাঙানোর খেলা শুরু করেছিলেন শুভেন্দু

মানব গুহ, কলকাতাঃ মুকুল রায়ও এতটা গেল গেল রব তুলতে পারেননি মমতার তৃণমূলে; যেটা তুলে দিয়েছেন শুভেন্দু অধিকারী। নন্দীগ্রামের নায়কের হাত ধরেই; ভেঙে খানখান হয়ে যাচ্ছে ঘাসফুল শিবির। গুরুবারের পর জুম্মাবারেও; তৃণমূলের ভাঙন অব্যহত। একে একে পদ ও দল ছাড়ছেন; তৃণমূলের ছোট বড় নেতারা। তবে, দল ভাঙানোর এই খেলার জন্য; শুভেন্দুর চেয়েও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়-কেই বেশি দায়ী করছেন; বিরোধী বাম-বিজেপি-কংগ্রেস থেকে বাংলার রাজনৈতিক মহল। ‘গুরুমা’রা বিদ্যে’, মমতার নির্দেশে বিরোধী দল ভাঙানোর খেলা; শুরু করেছিলেন শুভেন্দুই; বলছেন অনেকেই। বিজেপির দিলীপ ঘোষ থেকে শুরু করে সিপিএমের সুজন চক্রবর্তী ও কংগ্রেসের অধীর চৌধুরী; দল ভাঙানোর খেলায় মমতাকেই দায়ী করেছেন সবাই।

কংগ্রেসের মৌসম বেনজির নূর থেকে; সিপিএমের দিপালী বিশ্বাস; রাজ্যের বিরোধী দল ভাঙিয়ে তৃণমূলে এনেছিলেন; এই শুভেন্দুই। আর এখন তাঁর হাতেই ভাঙছে; মমতার তৃণমূল। যে যে জেলায় শুভেন্দু অধিকারী, তৃণমূলের পর্যবেক্ষক ছিলেন; সেই সব জেলাতেই বিরোধী দলের নেতাকে তৃণমূলে এনে; দল ভাঙানোর খেলাটা শুরু করেছিলেন মমতা নিজেই।

আরও পড়ুনঃ অমিত শাহের সভায়, শুভেন্দু অধিকারীর সঙ্গে কোন কোন বিধায়ক সাংসদ বিজেপি যোগ দিচ্ছেন

শুভেন্দু অধিকারীর ‘সৌজন্যে’ই তৃণমূলে এসে, অধীর চৌধুরীর বিরুদ্ধে; বহরমপুর লোকসভায় প্রার্থী হয়েছিলেন; কান্দির কংগ্রেস বিধায়ক অপূর্ব সরকার। সিপিএম ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন; নবগ্রামের বিধায়ক কানাই মণ্ডল। জলঙ্গিতে সিপিএমের দক্ষ সংগঠক রেজ্জাক মোল্লা; শুভেন্দুর হাত ধরে দলবদলে তৃণমূলে এসেছিলেন। দুবার কংগ্রেসের টিকিটে, খড়গ্রামের বিধায়ক আশিস মার্জিত; শুভেন্দুর হাত ধরে ঘাসফুলে।

শুধু পূর্ব মেদিনীপুর জেলাই নয়; বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, পশ্চিম মেদিনীপুর জেলাতেও; শুভেন্দুর দাপট চোখে পড়ার মতো। জঙ্গলমহল, মালদা, মুর্শিদাবাদে দীর্ঘদিন ধরে; তৃণমূলের পর্যবেক্ষক ছিলেন শুভেন্দু। যদিও পরে সেই পদটি তুলে দেওয়া হয়। কিন্তু এই সব জেলায়; বাম, কংগ্রেস ভাঙিয়ে একের পর এক নেতা নেত্রীকে; তৃণমূলে এনেছিলেন এই শুভেন্দুই।

দলের জেলা পর্যবেক্ষক হওয়ার পর; একদা কংগ্রেসের গড় মালদা মুর্শিদাবাদে; একের পর এক কংগ্রেস নেতা-বিধায়ক-সাংসদ; জেলার অধিকাংশ পুরসভা এবং জেলা পরিষদও; তৃণমূল দখলে এনেছিলেন শুভেন্দু। বেশ কিছু বাম বিধায়ক, জনপ্রতিনিধি তাঁর হাত ধরে; নাম লেখান রাজ্যের শাসকদলে। বিরোধী দল ভাঙানোর সেনাপতি, সেই শুভেন্দুই এখন; মমতার ফ্রাঙ্কেনস্টাইন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন