ভোল পাল্টাল তালিবান, কাশ্মীরে মুসলিমদের নিয়ে হবে ‘জিহাদ’ নিয়ে আলোচনা

4221
ভোল পাল্টাল তালিবান, কাশ্মীরে মুসলিমদের নিয়ে হবে জিহাদ নিয়ে আলোচনা
ভোল পাল্টাল তালিবান, কাশ্মীরে মুসলিমদের নিয়ে হবে জিহাদ নিয়ে আলোচনা

ভোল পাল্টাল তালিবান, কাশ্মীরে মুসলিমদের নিয়ে হবে; ‘জিহাদ’ নিয়ে আলোচনা। এক সপ্তাহের মধ্যেই; পুরোপুরি ভোল পাল্টে ফেলল তালিবান। দিন কয়েক আগেই, কাশ্মীর প্রসঙ্গে তালিবানের তরফে বলা হয়েছিল; কাশ্মীর নিয়ে তারা মাথা ঘামাবে না। শুক্রবার তালিবানের তরফে বলা হয়েছে; কাশ্মীরে মুসলিমদের নিয়ে হবে; পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা। তারপর তালিবান সিদ্ধান্ত নেবে; তারা পাকিস্তানকে কাশ্মীর ইস্যুতে কিভাবে সাহায্য করবে। কাশ্মীরের মুসলিমদের হয়ে আওয়াজ জোরালো করবে তালিবান; এমন ঘোষণাও করে দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ চিন্তায় দেশ, কাবুল থেকে কাশ্মীর, তালিবানের ভরসায় ফের আশায় বুক বাঁধছে পাকিস্তান

তালিবান মুখপাত্র সুহেল শাহিন পরিষ্কার জানিয়েছেন; “কাশ্মীরে মুসলিমদের হয়ে আওয়াজ তুলবে তালিবান; ভারতের মুসলিমদের হয়েও আওয়াজ জোরালো করবে তালিবানরা”। তিনি আরও জানিয়েছেন, “শুধু কাশ্মীর বা ভারত নয়; বিশ্বের যে কোন প্রান্তেই মুসলিমদের হয়ে; আন্দোলন করবে তালিবান”। দুদিন আগেই এই তালিবান বলেছিল; “কাশ্মীর ভারত আর পাকিস্তানের; দ্বিপাক্ষিক বিষয়”। তালিবান যে ভোল বদলাবে; এমনটাই মনে করছিল আন্তর্জাতিক মহল।

আরও পড়ুনঃ তালিবানকে অভিনন্দন জানাল আল কায়দা, এবার ‘পুরো কাশ্মীর’ দখল নেবার ডাক

তালিবানের এই ঘোষণায়; চিন্তা বাড়ল দিল্লীর। তবে তালিবানের সঙ্গে প্রথম বৈঠকেই; ভারতের পক্ষ থেকে দেওয়া হল কড়া বার্তা। গত মঙ্গলবার কাতারের রাজধানী দোহায়, তালিবান মুখপাত্রের সঙ্গে; বৈঠক করেন কাতারে নিযুক্ত ভারতীয় রাষ্ট্রদূত দীপক মিত্তল। সেখানে ভারতের পক্ষ থেকে, তালিবানকে বেশ কয়েকটি; কড়া বার্তা দেওয়া হয়। ভারতের পক্ষ থেকে, পরিষ্কার জানানো হয়; আফগানিস্তানের মাটিতে যেন ভারত-বিরোধী সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ না হয়। জানা গেছে, তালিবানের তরফে ভারতকে; শান্তির আশ্বাস দেওয়া হয়।

আরও পড়ুনঃ “আমরাই এতদিন তালিবানদের আশ্রয় দিয়েছি”, প্রকাশ্যে স্বীকার করে নিল ইমরান খান সরকার

এত কিছুর পরেও; দু-দিনের মধ্যেই ভোল পাল্টাল তালিবান। ফলে কাশ্মীর নিয়ে, পাকিস্তানের সঙ্গেই হাত মেলাবে তালিবান; এটা এখন পরিষ্কার। পাকিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ রশিদ স্বীকার করেছেন; “ইসলামাবাদ দীর্ঘদিন ধরে, তালিবানের রক্ষাকর্তা হিসেবে; কাজ করেছে এসেছে। তালিবান সংগঠনকে আশ্রয় দিয়ে; তাদের মজবুত করার কাজে; আমরা তাদের সাহায্য করেছি। তার ফলেই ২০ বছর পরে; আফগানিস্তান দখল করতে পেরেছে তালিবান”। পাকিস্তানের ঘোষণার পরে এবার তালিবানের ঘোষণা; কাশ্মীর নিয়ে চিন্তা বাড়াল ভারতের।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন