শ্রাবণ মাস মানেই বাবা তারকনাথ, জেনে নিন তারকেশ্বর মন্দিরের অজানা কাহিনী

1786
তারকেশ্বর মন্দিরের ইতিহাস কিভাবে তৈরি হল তারকনাথের মন্দির/The News বাংলা
তারকেশ্বর মন্দিরের ইতিহাস কিভাবে তৈরি হল তারকনাথের মন্দির/The News বাংলা

হুগলি জেলার তারকেশ্বর মন্দিরের ইতিহাস অতি প্রাচীন। কিংবদন্তি থেকে জানা যায়; বিষ্ণুদাস নামে একজন শিবভক্ত অযোধ্যা থেকে হুগলিতে এসে; সপরিবারেই সেখানে বসবাস শুরু করেন। কিন্তু অন্য রাজ্যের বাসিন্দা হবার কারনে; স্থানীয় লোকজন তাঁকে সন্দেহের চোখে দেখতেন। সেই কারণে; খানিকটা একঘরে হয়েই গ্রামে বাস করতেন বিষ্ণুদাস। একটা সময়; পরিস্থিতি এমন হয়ে দাঁড়ায় যে; বিষ্ণুদাসকে স্থানীয় মানুষ বাধ্য করে; কঠিন পরীক্ষা দিয়ে প্রমাণ করতে যে; তিনি সৎ মানুষ।

বিষ্ণুদাসকে গরম লোহার একটি দণ্ডকে খালি হাতে ধরতে বলা হয়। তিনি তাই করেন; এতে তাঁর হাত পুড়ে যায়। সেই সঙ্গে মনে গভীর যন্ত্রণা অনুভব করতে থাকেন। তিনি তাঁর ইষ্টদেবতা মহাদেবকে ডাকতে থাকেন; এই পরিস্থিতি থেকে তাঁকে ও তাঁর পরিবারকে উদ্ধারের জন্য। এর কিছুদিন পরে; বিষ্ণুদাস স্থানীয় জঙ্গলে; এক আশ্চর্য বিষয় লক্ষ্য করেন। তিনি দেখেন; তাদের পালিত গরুরা; প্রতিদিন জঙ্গলের একটি বিশেষ জায়গায় গিয়ে দুধ দিয়ে আসে।

আরও পড়ুনঃ মা কালীর পায়ের নিচে বাবা মহাদেব কেন থাকেন

তিনি সেই জায়গায় গিয়ে দেখেন সেখানে একটি কালো পাথর আছে। এই অঞ্চলে পাথর আসার কোন কথাই না; তাই অবাক হয়ে বিষ্ণুদাস সেই পাথরটি খুঁড়তে থাকেন। কিন্তু তিনি অবাক হয়ে লক্ষ করেন; তিনি খুঁড়েই চলেছেন; এ পাথরের শেষ বলে কিছু নেই।

সেই রাতেই; বিষ্ণুদাস স্বপ্নাদেশ পান যে; জঙ্গলে তাঁর দেখা ওই পাথরটি মহাদেবের তারকেশ্বর রূপ। দৈব আদেশানুসারে; সেখানে বিষ্ণুদাস একটি মন্দির নির্মাণ করেন। এবং সেই মন্দিরই বর্তমানে তারকেশ্বর ধাম নামে পরিচিত হয়।

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তারকেশ্বর মন্দির অনেকবার নির্মিত ও পুনর্নির্মিত হয়েছে। বর্তমান মন্দিরটিও বেশ প্রাচীন। ১৭২৯ সালে বিষ্ণুপুরের মল্ল রাজারা এই মন্দির নির্মাণ করান। তারকেশ্বর মন্দির বাংলার চালা স্থাপত্যের আদর্শ উদাহরণ। যে ক’টি প্রাচীন চালা মন্দির বাংলায় টিকে রয়েছে, তার মধ্যে তারকেশ্বর অন্যতম।

তারকনাথ স্বয়ম্ভূলিঙ্গ; এই লিঙ্গের মহিমা অপার। কথিত আছে এই শিব লিঙ্গের শেষ বলে কিছু নেই। প্রাচীন এই মন্দিরের সঙ্গে; কালে কালে যুক্ত হতে থাকে দেবমহিমা। তারকেশ্বর মন্দির সংলগ্ন দুধপুকুরকে ঘিরেও গড়ে ওঠে নানান দৈব ঘটনা। শোনা যায়; এই পুকুরের জল আরোগ্যকারী।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন