হাইকোর্টে মামলা হতেই, অনুব্রতর গাড়ির লালবাতি খুলতে নির্দেশ ফিরহাদের

196
হাইকোর্টে মামলা হতেই, অনুব্রতর গাড়ির লালবাতি খুলতে নির্দেশ ফিরহাদের
হাইকোর্টে মামলা হতেই, অনুব্রতর গাড়ির লালবাতি খুলতে নির্দেশ ফিরহাদের
Simple Custom Content Adder

কলকাতা হাইকোর্টে মামলা হতেই; অনুব্রতর গাড়ির লালবাতি খুলতে নির্দেশ ফিরহাদের। গাড়িতে লালবাতি লাগানোর মামলায়; বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতি অনুব্রত মণ্ডলের পাশে দাঁড়ল না তৃণমূল। হাইকোর্টে এই নিয়ে মামলা হতেই; মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম জানিয়ে দিলেন; “অনুব্রতর লালবাতি লাগানোর অধিকার নেই; বলে ওটা খুলিয়ে দেব”।

অনুব্রত মণ্ডলের গাড়িতে লালবাতি লাগানো নিয়ে; শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্টে মামলা করেন বিজেপি নেতা ও আইনজীবী তরুণজ্যোতি তিওয়ারি। তিনি প্রশ্ন তোলেন, “গত ৫ এপ্রিল লালবাতি লাগানো গাড়ি করে; বোলপুর থেকে কলকাতা এসেছিলেন অনুব্রত মণ্ডল। কিন্তু লালবাতি লাগানোর এক্তিয়ার রয়েছে; এমন কোনও পদে নেই তিনি। তাহলে কী করে লালবাতি লাগানো গাড়ি চড়ে; এতটা রাস্তা এলেন তিনি? কেনই বা চারটে জেলার পুলিশ; তাঁর বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিল না?”

হাইকোর্টে অনুব্রত মণ্ডলের বিরুদ্ধে, বিজেপি নেতা ও আইনজীবী তরুণজ্যোতি তিওয়ারি, জনস্বার্থ মামলা করার পরই; এদিন রাজ্যের পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম সাফ জানিয়ে দিয়েছেন; “অনুব্রত-র গাড়িতে লালবাতি লাগানো ঠিক হয়নি; অনুব্রতর গাড়ির লালবাতি খুলতে হবে; গাড়ি বাজেয়াপ্ত করতে বলেছি”।

আরও পড়ুনঃ দক্ষিণ এশিয়ার সবথেকে বড় ক্যানসার কেয়ার নেটওয়ার্কের উদ্বোধনে নরেন্দ্র মোদী ও রতন টাটা

পরিবহণমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন; “কারা লালবাতি-নীলবাতি গাড়ি চড়তে পারেন; তার নির্দিষ্ট তালিকা আমরা প্রকাশ করেছি। পুলিশ প্রশাসনকে; কড়া হতে বলেছি। নীলবাতি-লালবাতির অপব্যবহার হচ্ছে। অনধিকার যারা লাল বা নীলবাতি ব্যবহার করছেন; তাদেরকে শুধু বাতি খুললেই হবে না; পুলিশকে বলেছি গাড়িটিও বাজেয়াপ্ত করতে। মুখ্যমন্ত্রী নিজে একথা বলেছেন। অনুব্রত লাল বা নীলবাতি ব্যবহার করতে পারেন না; ওটা খুলে দেব”।

কেন্দ্রীয় সড়ক-পরিবহণ মন্ত্রকের নির্দেশে, কেউ ব্যক্তিগত গাড়িতে লালবাতি লাগাতে পারেন না। মন্ত্রী, বিধায়ক, সাংসদ-রাও নন। অ্যাম্বুলেন্স এবং দমকলের গাড়িতে; নীলবাতি লাগানোর অনুমতি রয়েছে। সেক্ষেত্রে দীর্ঘদিন ধরে অনুব্রত, লালবাতি লাগানো গাড়ি কি করে চড়লেন?

বিজেপি নেতা-আইনজীবী তরুণজ্যোতি তিওয়ারি প্রশ্ন তুলেছেন; “কেন শাস্তি হবে না অনুব্রত মণ্ডলের? কেন চার জেলার পুলিশ দেখেও; কিছুই বলল না? ছাড় কি শুধুই তৃণমূল নেতাদের জন্য? সাধারণ কোন মানুষ এটা করলে; পুলিশ কি করত?” সব মিলিয়ে গাড়িতে লালবাতি লাগিয়ে সমস্যায় অনুব্রত মণ্ডল। পাশে দাঁড়াল না রাজ্য প্রশাসন, এমনকি নিজের দল তৃণমূলও।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন