প্রাথমিক শিক্ষকদের আন্দোলন, থানায় ডেকে গ্রেফতার মহিলা নেত্রীকে

469
প্রাথমিক শিক্ষকদের আন্দোলন, থানায় ডেকে গ্রেফতার মহিলা নেত্রীকে/The News বাংলা
প্রাথমিক শিক্ষকদের আন্দোলন, থানায় ডেকে গ্রেফতার মহিলা নেত্রীকে/The News বাংলা

প্রাথমিক শিক্ষকদের আন্দোলন; থানায় ডেকে গ্রেফতার মহিলা নেত্রীকে। গত কয়েক মাসে শিক্ষকদের আন্দোলন দেখেছে কলকাতা। চলেছে অনশন। শেষমেষ দাবি পুরন হয় প্রাথমিক শিক্ষকদের। ফের নতুন করে সমস্যা দেখা দেওয়ায়; নয়া দাবি নিয়ে বুধবার থেকে; রাস্তায় শুয়ে পড়ে বিক্ষোভ দেখায় শিক্ষকরা। বুধবারের বিক্ষোভে সাতজন শিক্ষক-শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয়; প্রাথমিক শিক্ষকদের সংগঠন উস্থির সভানেত্রী পৃথা বিশ্বাসও। তবে দমেনি শিক্ষকরা।

রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। রাজ্যপাল সময় দিলেই; তারা রাজভবনের উদ্দেশ্যে রওনা দেবেন বলে; শিক্ষক সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। ওই দিন বিকেলে; শিক্ষামন্ত্রী বাড়িতে অভিযানের জন্য রওনা দিতেই জমায়েত আটকে দেয় পুলিশ। এরপর বাঘাযতীনের রাস্তার ওপরেই শুয়ে পড়ে; বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন প্রাথমিক শিক্ষকরা। শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধি দল পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়ি গিয়ে দেখা করলেও সমস্যা মেটেনি।

আরও পড়ুনফণীর পর, শুক্রবারেই বাংলা কাঁপাতে আসছে বুলবুল

মন্ত্রীর উত্তরে খুশি হননি শিক্ষকরা। মন্ত্রীর সঙ্গে কি কথা হয় শিক্ষকদের ওই প্রতিনিধিদলের; জানা গিয়েছে, মন্ত্রী জানিয়েছেন রাস্তায় শুয়ে পড়ে কোনও লাভ নেই। দাবি যথোপযুক্ত হলে সরকার মেনে নেবে। তবে তা সঠিক জায়গায় বলতে হবে। এরপরেও বিক্ষোভ চালিয়ে যাবে বলে জানিয়ে দেন শিক্ষকরা।

পার্থবাবুও জানিয়ে দেন; মুখ্যমন্ত্রী বিষয়টি দেখছেন; নতুন করে আর কোনও দাবি মানবে না রাজ্য সরকার। কিছু বলার থাকলে বলুন; কিন্ত এভাবে রাস্তায় শুয়ে মানুষের অসুবিধা সৃষ্টি করে নয়। জুলাই মাসে; শিক্ষকদের আন্দোলনে হার স্বীকার করে গ্রেড পে বাড়ায় সরকার। ২৬০০ থেকে বেড়ে ৩৬০০ করা হয়।

এরপরেও নতুন করে সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে।গ্রেড পে বাড়লেও পে-ব্যান্ড পরিবর্তন হয়নি। যার ভিত্তিতে বেতনের বেসিক বৃদ্ধি পায়; তা প্রায় কিছুই হয়নি।অনেক প্রাথমিক শিক্ষকই বেতন কম পাচ্ছেন। কয়েক হাজার টাকা করে কম বেতন পাচ্ছেন। তাদের অভিযোগ গ্রেড পে যা বাড়ানো হয়েছে বলে সরকার জানায়; তা বাড়ানো হয়নি। মাত্র ৩০০ টাকা বেড়েছে গ্রেড পে।

এদিন শিক্ষকদের বিক্ষোভের ফলে স্তন্ধ হয়ে যায় যাদবপুর-গড়িয়ায় যান চলাচল। শিক্ষকরা অবস্থান চালিয়ে যাবেন বলে জানান; তবে একটি মাঠে। আপাতত স্থগিত শিক্ষকদের অবস্থান। রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে তারা পরবর্তি পদক্ষেপ করবেন।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন