মহারাষ্ট্রের হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে মৃত্যু ১০ সদ্যোজাতর

1963
মহারাষ্ট্রের হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে মৃত্যু ১০ সদ্যোজাতর

মহারাষ্ট্রের হাসপাতালে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড কেড়ে নিল; ১০ সদ্যোজাত শিশুর প্রাণ। মহারাষ্ট্রের ভাণ্ডারা জেলার একটি হাসপাতালে; নবজাতক কেয়ার ইউনিটে আগুন লেগে মৃত্যু হয়; ওই ১০ নবজাতকের। জানা গিয়েছে, মুম্বই থেকে প্রায় ৯০০ কিলোমিটার দূরের এই হাসপাতালের; নবজাতক কেয়ার ইউনিটে; ভর্তি ছিল ১৭ জন শিশু। তাদের বয়স এক মাস থেকে; তিন মাসের মধ্যে। সাত শিশুকে উদ্ধার করা হয়েছে; বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর। ভান্ডারার সিভিল সার্জন প্রমোদ খানদাতে জানিয়েছেন; “বৃহস্পতিবার রাতে ভান্ডারা জেলা হাসপাতালের শিশু বিভাগে; (সিক নিউবর্ন কেয়ার ইউনিট) আগুন লেগে যায়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয়; ১৭ জন শিশুর।

রাত দেড়টা নাগাদ একজন নার্স; সর্বপ্রথম সেই বিভাগ থেকে; ধোঁয়া বেরোতে দেখেন। হাসপাতালের কর্মীরা অগ্নিনির্বাপক যন্ত্র দিয়ে; আগুন নেভানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তাতে কোনও লাভ হয়নি। গলগল করে কালো ধোঁয়া বেরোতে থাকে। আগুন নেভানোর চেষ্টা শুরু করেন; হাসপাতাল কর্মীরা। কিন্তু তাতেও বাঁচাতে পারেন নি; ওই ১০ শিশুকে।

আরও পড়ুনঃ শিক্ষক নিয়োগ মামলায় জোর ধাক্কা খেল রাজ্য, বাম আমলে স্বজনপোষণের অভিযোগ ওড়াল হাইকোর্ট

পরে, দমকল এসে উদ্ধারকাজ শুরু করে। সাত শিশুকে উদ্ধার করা হয়েছে। বাকি ১০ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। উদ্ধার করতে পারা সাত শিশুকে; অন্য একটি ওয়ার্ডে স্থানান্তরিত করা হয়েছে। সুরক্ষাজনিত কারণে আইসিইউ ওয়ার্ড, ডায়ালিসিস উইং এবং লেবার ওয়ার্ডের রোগীদেরও অন্যত্র সরানো হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ কয়লা ও গরু পাচার কাণ্ডে লালা ও এনামুলের ডাইরিতে, রাজ্যের ১০০ ওসির নাম

ভান্ডারার সিভিল সার্জন প্রমোদ খানদাতে জানিয়েছেন; “আগুন লাগার প্রকৃত কারণ; এখনও জানা যায়নি”। তবে শর্ট-সার্কিটের জেরে; আগুন লাগতে পারে বলে; প্রাথমিকভাবে অনুমান। গোটা ঘটনার তদন্ত করে দেখা হচ্ছে; বলে দমকল সূত্রে খবর। প্রমোদ খানদাতে নিজে, প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে আগুন লাগা হাসপাতালের অংশে; ঝাঁপিয়ে পড়ায় প্রাণ বেঁচেছে ওই ৭ শিশুর। এমনটাই জানা যাচ্ছে। ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন; প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মৃত শিশুর পরিবারদের; সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন