মোদী মহাবিদায়ে মমতার মহাব্রিগেডে মহাজোট

271
মোদী মহাবিদায়ে মমতার মহাব্রিগেডে মহাজোট/The News বাংলা
মোদী মহাবিদায়ে মমতার মহাব্রিগেডে মহাজোট/The News বাংলা
Simple Custom Content Adder

মূল মঞ্চের দেওয়ালে লাগানো ভারতের মানচিত্র। তাতে বিরাট করে লেখা ‘ইউনাইটেড ইন্ডিয়া’। দেশের তাবড় নেতাদের বরণ করার জন্য বিশেষ ‘মহাজোটিও’ উত্তরীয় তৈরি করা হয়েছে। কলকাতায় হাজির দেশের তাবড় তাবড় নেতারা। শনিবারের মমতার ব্রিগেড এখন আর শুধুই তৃণমূলের ব্রিগেড সভা নয়। এই ব্রিগেড এখন মমতার স্বপ্নের ‘মহাজোটের মহাব্রিগেড’। মোদী সরানোর মহাজোট। আর মোদী হঠাতে মমতার মহাব্রিগেডে মহাজোট এর অনেক নেতা।

আরও পড়তে পারেনঃ অমিত শাহর হেলিকপ্টারকে লাল পতাকা মমতার, গ্রিন সিগন্যাল বামের

লোকসভা ভোটের আগে এটাই বিরোধীদের প্রথম বড় সভা, হয়ত বা একমাত্রই। ইতিহাসের অপেক্ষায় ব্রিগেড। শনিবার আরও একবার প্রমাণ হতে চলেছে মোদী-বিরোধী মহাজোটের মুখ মমতাই। ১৯৭৭ এর জ্যোতি বসুর ঐতিহাসিক ব্রিগেডকেও ছাপিয়ে যেতে চলেছে মহাজোটের এই মহাব্রিগেড, দাবি এমনটাই।

আরও পড়তে পারেনঃ মার্চেই শুরুতেই ভারতে লোকসভা ভোটের ঘোষণা

দিল্লি না গিয়েও মহাকরণে বসেই, সারা দেশে কংগ্রেস-বিরোধী রাজনীতির মুখ ছিলেন জ্যোতি বসু। সেদিন, বাংলা ছাড়াও কেরল-ত্রিপুরায় বামেদের সরকার ছিল। তৃণমূলের শক্তি বাংলার বাইরে সেভাবে না ছড়ালেও আজ সারা দেশে বিজেপি-বিরোধী রাজনীতির মুখ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই। আর সেটাই ফের একবার প্রমাণ দেবে শনিবারের মহাব্রিগেড, বলছেন তৃণমূল নেতারা। এক বাঙালিকে সুযোগ দেয় নি তাঁর দল। আর এক বাঙালি কি পারবেন এই অসম্ভবকে সম্ভব করতে?

আরও পড়তে পারেনঃ অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে জোড়া ইতিহাস ‘বিরাট’ ভারতের

রাজনৈতিক মহল বলছে, সঙ্গত কারণেই দেশের তাবড় বিরোধী নেতারা আজ মমতাকে সামনে রেখেই উনিশের ভোটযুদ্ধে মাঠে নামতে চাইছেন। নোট বাতিল, জিএসটি, এনআরসি-র মতো ইস্যুতে সবার প্রথম মমতাই মোদী সরকারের বিরুদ্ধে সরব হন। সব রাজ্যেই আঞ্চলিক দলগুলির লড়াই জেনেও, মহাজোট গড়ার সেই ঐতিহাসিক স্বপ্নে এখনও বুঁদ হয়ে আছেন মমতা। আর তাই মহাজোটের নেতা সেই মমতাই।

আরও পড়তে পারেনঃ পৃথিবী জুড়ে কমছে শিশু, চরম সমস্যায় বিশ্ব সমাজ

লোকসভা নির্বাচনে আসন জয়ের অঙ্কেও তৃণমূলের তৃতীয় বৃহত্তম দল হওয়ার সম্ভাবনা। আসন সমঝোতা করে অখিলেশ-মায়াবতীরা ৩৮ আসনে আটকে। তামিলনাড়ু, মহারাষ্ট্র বা বিহারের মতো বড় রাজ্যগুলিতে বিরোধীদের মধ্যে আসন ভাগাভাগি হবে। ফলে, বাংলায় ভাল ফল করলে লোকসভায় তৃতীয় বৃহত্তম দল হতে পারে তৃণমূল। আর সেক্ষেত্রে, সংখ্যা বিচারেই যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে সরকার গড়ার চাবিকাঠি থাকতে পারে তা ভালই জানেন বিরোধী নেতারা। তাই মমতাকে গুরুত্ব দিয়েই সবাই মহাব্রিগেডে।

আরও পড়তে পারেনঃ দাউদ ইব্রাহিমকে হত্যার পরিকল্পনা করায় ডি কোম্পানির হাতে পাকিস্তানে খুন

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকা মহাব্রিগেড আক্ষরিক অর্থেই হয়ে উঠছে এক টুকরো ভারত। আগের সমস্ত রেকর্ড ভেঙে দিতে তিনি তাই চাঁদের হাট বসাচ্ছেন এবার। তাঁর পাশে ব্রিগেডের মঞ্চে দেখা যাবে সারা ভারতের তাবড় তাবড় নেতাদের।

আরও পড়তে পারেনঃ মানুষের হাসপাতালে এত কুকুর বেড়াল কেন? দায় এড়াতে পারে না প্রশাসন

থাকছেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচ ডি দেবেগৌড়া, অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু, এনসিপি সুপ্রিমো শারদ পাওয়ার, সমাজবাদী পার্টির অখিলেশ যাদব, ন্যাশান্যাল কনফারেন্স নেতা ও প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লা, প্রাক্তন বিজেপি নেতা ও বাজপেয়ী সরকারের মন্ত্রী যশবন্ত সিনহা, অজিত সিং ও জয়ন্ত চৌধুরী, প্রাক্তন বিজেপি নেতা অরুণ শৌরি, গুজরাতের দলিত নেতা জিগনেশ মাভানি, পাতিদার নেতা হার্দিক প্যাটেল, বিজেপির বিদ্রোহী নেতা ও সাংসদ শত্রুঘ্ন সিনহা, শরদ যাদব ও যোগেশ কুমার, ডিএমকে সভাপতি এম কে স্ট্যালিন, বহুজন সমাজ পার্টির সতীশ মিশ্র, বদরুদ্দিন আজমল।

আরও পড়তে পারেনঃ আবার প্রথম থেকে শুরু, সুপ্রিম নির্দেশে রথ চালাতে ফের নবান্নে বিজেপি

আরও থাকছেন লোকসভার কংগ্রেসের দলনেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে, কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক মনু সিংভি, ঝাড়়খণ্ড নেতা হেমন্ত সোরেন, কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামী, আপ সুপ্রিমো ও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল, লালু-পুত্র রাষ্ট্রীয় জনতা দলের তেজস্বী যাদব, ন্যাশান্যাল কনফারেন্স নেতা ও প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা, ঝাড়়খণ্ড এর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বাবুলাল মারান্ডি, অরুণাচল প্রদেশের পাঁচবারের মুখ্যমন্ত্রী গেগং আপাং, মিজোরামের বিরোধী দলনেতা লালডু হোমার। প্রফুল্ল প্যাটেল, শিবসেনার সঞ্জয় রাউত সহ গোটা দেশের আরও অনেক নেতা।

আরও পড়তে পারেনঃ সপ্তশৃঙ্গর পর সপ্ত আগ্নেয়গিরি, বিরল বিশ্বরেকর্ডের চূড়ায় বাঙালি

ব্রিগেডে প্রস্তুতি দেখতে গিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্পষ্ট করে দিয়েছেন, শনিবারের ‘মহাব্রিগেড’ থেকে ভারতের অখণ্ডতা রক্ষার বার্তা দেওয়াই তাঁর লক্ষ্য। এই অখণ্ডতা হল অসহিষ্ণুতার বিরুদ্ধে সহিষ্ণুতা ও সম্প্রীতির। দীর্ঘদিন ধরেই বিজেপি, বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বিরুদ্ধে জাতি-ধর্ম-বর্ণ-এর সম্প্রীতিকে খণ্ড করার অভিযোগ তুলে আসছেন তিনি। আর ঐক্যের বার্তা দিতে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দিস র‍্যালি উইল বি ইউনাইটেড ইন্ডিয়া র‍্যালি।

আরও পড়তে পারেনঃ মন্দিরে ঢুকে বিপ্লবের শাস্তি, পিটিয়ে বৌমাকে হাসপাতালে পাঠাল শাশুড়ি

মমতা বলেন, এটা মেগা র‍্যালি হবে। এটা বিজেপির বিরুদ্ধে ২০১৯-এর যুদ্ধের মঞ্চ। প্রত্যেক রাজনৈতিক দল তার বার্তা দেবে। এই সমাবেশ থেকে প্রত্যেক রাজনৈতিক দলের বলার স্বাধীনতা থাকবে।’ আর তাই, তাঁর আমন্ত্রণে ব্রিগেডে সামিল হচ্ছে দেশের সব প্রান্তই।

আরও পড়তে পারেনঃ বাংলায় ক্ষোভ বাড়িয়ে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের বেতন বাড়াচ্ছে মোদী সরকার

মমতা বলেন, ‘এটা মানুষের মহাজোট’। শনিবারের মহাসভা নিয়ে তৃণমূলনেত্রীর সিদ্ধান্তগুলিও বিজেপির বিরুদ্ধে কৌশলী পদক্ষেপ বলা চলে। একের পর শরিক যখন এনডিএ ছাড়ছে, তখন তৃণমূলনেত্রী একসঙ্গে চলার বার্তা তুলে ধরতে চাইছেন। তাই মঞ্চে হাজির অ-তৃণমূল সব নেতাকেই শনিবার ব্রিগেডে বলার সুযোগ দেবেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, ‘রাজ্যভিত্তিক দলগুলিই সম্মিলিত ভাবে নির্ধারণ করবে ২০১৯-এর ভাগ্য।’

আরও পড়তে পারেনঃ শ্রীজাত হেনস্থা ঘটনায় বাংলার বুদ্ধিজীবিদের মুখোশ খুললেন তসলিমা

আর তাই ফেডারেল ফ্রন্ট। আর সেই ফ্রন্টের মহাজোটে আজ মহাব্রিগেড। রাজ্যে বিরোধী নেত্রী থাকাকালীন এই ব্রিগেডেই বামফ্রন্টের ‘মৃত্যুঘণ্টা’ বাজিয়েছিলেন মমতা। এ বার মোদীর মৃত্যুঘন্টা বাজাতে মমতার পাশে মহাব্রিগেডে মহাজোটের নেতারা। এই ব্রিগেডের সফলতা জানা যাবে যদি সত্যি ভোটের আগে মহাজোট হয়। আর ভোটের আগে মহাজোট না হলেও ভোটের পর সুযোগ এলে মহাজোটের সরকার হলে এই ব্রিগেড তার পথপ্রদর্শক হয়ে থাকবে, বলছে রাজনৈতিক মহল।

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

আরও পড়তে পারেনঃ

ভারতীয় সেনাবাহিনীতে ‘ভাবনার বিপ্লব’ ভাবনা কস্তুরীর হাত ধরে

মমতার বাছাইয়ে কারা হবেন বাংলার ৪২টি লোকসভা আসনের তৃণমূল প্রার্থী

মোদীর প্রকল্পে আর টাকা দেবেন না মমতা, কেন্দ্র রাজ্য সম্পর্ক তলানিতে

একদিনে বহিষ্কৃত দুই তৃণমূল সাংসদ, দিদিকে ছেড়ে মোদীর দলে আর কে কে

সিবিআই থেকে দমকলে বদলি, প্রতিবাদে চাকরি ছাড়লেন আইপিএস

নতুন বছরের শুরুতেই খারাপ খবর, বড় বড় কোম্পানিতে কর্মী ছাঁটাই

ভোটের আগে মানুষের মুখে হাসি ফোটাবে মোদী সরকারের অন্তর্বর্তী বাজেট

আপনার মোবাইলে বা কম্পিউটারে The News বাংলা পড়তে লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন