আজব দেশের আজব কাহিনীতে ৩ বছরে মানুষের বয়স বাড়ল মাত্র ১

446
Image Source: Google Image
Simple Custom Content Adder

বিশেষ রিপোর্ট, নিউ দিল্লি: এ যেন ভারতের শাহিদ আফ্রিদি ! বয়স আর বাড়ে না। ঝাড়খণ্ডের গৌরব মুখিকে বলা হচ্ছে ভারতের শাহিদ আফ্রিদি। তার বয়স বাড়ছে না, বরং দিন দিন কমছে !

৯০ এর দশকে একটা সময় ছিল, যখন পাকিস্তানের শাহিদ আফ্রিদির বয়স বাড়ত না। একটা সময় বেশ কয়েক বছর ১৮ বছর বয়সেই আটকে ছিলেন শাহিদ। প্রায় ৮-১০ বছর ধরে শোনা যেত, লেখাও হত যে, ১৮ বছরের শাহিদ আফ্রিদি। আফ্রিদি ভালো খেললেই হেডলাইন, ‘এত কম বয়সে এত হার্ড হিটিং কেউ করতে পারে নি’। একটা সময় খেলার মাঠে তো বটেই, খেলার বাইরেও আফ্রিদির বয়স নিয়ে রীতিমতো হাসিঠাট্টা হত।

Image Source: Google Image

কেন শাহিদ আফ্রিদির বয়স বাড়ে না ? একটা সময় খেলাধূলার খবরে এটাই ছিল শিরোনাম। পাকিস্তানের হ্যান্ডসাম ক্রিকেটারের জায়গাটা বর্তমানে নিজের দখলে নিয়েছেন ভারতের ঝাড়খণ্ডের ফুটবল খেলোয়াড় গৌরব মুখি। গত ৩-৪ বছর ধরে তারও বয়স বাড়ে নি, বরং কমেছে। আজব ব্যপারটা নিয়ে এখন হইচই ভারতীয় ফুটবল মহলে।

২০১৪-১৫ সাল থেকে ২০১৮ এর অক্টোবরে এসেও গৌরবের বয়স বেড়েছে মাত্র ১। মাঝেই মাঝেই তার বয়স কমেও যায় ! ৩ বছর আগে ২০১৫ তে জাতীয় যুব ফুটবলে ঝাড়খন্ডকে নেতৃত্ব দিয়ে চ্যাম্পিয়ন করে ১৫ বছরের গৌরব মুখি। জাতীয় ফুটবল ফেডারেশনের খাতায় ও বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমের পাতায়, ১৫ বছরের গৌরবের বেশ প্রশংসাই করা হয়েছিল সেই সময়।

আর এটা ২০১৮ সালের অক্টোবর। প্রথমবার ISL এ খেলে উদ্বোধনী ম্যাচেই ঝাড়খণ্ডের হয়ে বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে গোল করে সেই গৌরব। ঝাড়খন্ড-বেঙ্গালুরু ২-২ গোলে ড্রর ম্যাচে। আর তারপরেই আই এস এলের পৃষ্ঠপোষক রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড সাড়ম্বরে ঘোষণা করে দিল, ১৬ বছর বয়সী গৌরব মুখিই ISL এর সবচেয়ে কমবয়সী খেলোয়াড় ও গোলকারী।

ঘোষণা শুনেই চক্ষু চড়কগাছ ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশনের। অবাক সংবাদমহলও। গল্প কিন্তু এখানেই শেষ নয়। ১৬ বছরের সবচেয়ে কমবয়সী গোলকারী নিয়ে হইচই এর মাঝেই জানা যায় আরও এক খবর। ২০১৭ সালেই অনুর্দ্ধ ১৭ বিশ্বকাপের জন্য ভারতীয় দলে ডাক পায় এই গৌরব। কিন্তু বয়স ভাঁড়ানোর জন্য তাকে ও ঝাড়খণ্ডের আরও ৪ খেলোয়াড়কে বাদ দেয় ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন।

Image Source: Google Image

শুধু তাই নয়, বয়স ভাঁড়িয়ে খেলার জন্য গৌরব মুখি সহ ঝাড়খণ্ডের ৫ জন ফুটবলারকে ২ বছরের জন্য সাসপেন্ড করে দেওয়া হয়। জাতীয় ফুটবল খেতাব কেড়ে নেওয়া হয় ঝাড়খণ্ডের কাছ থেকে। ঝাড়খন্ড ফুটবল ফেডারেশনকে ১ লাখ টাকা জরিমানাও করা হয়।

২০১৭ তে যাকে বয়স ভাঁড়ানোর জন্য অনুর্দ্ধ ১৭ র বিশ্বকাপ ফুটবল থেকে বাদ দেয় ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন, তাকেই রিলায়েন্স ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড ১৬ বছর বয়সী ISL এর সবচেয়ে কম বয়সী গোলকারী বানিয়ে দিল ২০১৮ সালের শেষে এসে !

এই নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছেন ঝাড়খন্ড ফুটবল ফেডারেশন। ঝাড়খন্ড ফুটবল ফেডারেশনের সম্পাদক গুলাম রাব্বানি জানিয়েছেন, তাঁদের কাছে এই নিয়ে কোন রেকর্ড নেই। ফেডারেশনের সম্পাদক যখন জানাচ্ছেন, খাতায় কলামে ২০১৫ তে গৌরব মুখির বয়স ছিল ১৫ বছর, সেই হিসাবে এখন তার বয়স হওয়া উচিত ১৮ বছর। তখনই মাঠে ঘোষণা হচ্ছে, ১৬ বছরের গৌরবই আই এস এলের সবচেয়ে কমবয়সী খেলোয়াড় ও গোলকারী। যা শুনে গুলাম রাব্বানি মুচকি হেসে বললেন, ‘পাতা নেহি’ !

এই নিয়ে মুখ খুলতে চান নি ভারতীয় ফুটবল ফেডারেশন কর্তারা। তবে, এতে অবাক হবার কিছুই নেই। ভারতীয় ফুটবলে বহুদিন থেকেই অনেক কিছুই ‘পাতা নেহি’। আর আই এস এলের যদি শুধুই ঢাক পেটানো হয়, তাহলে তাতে ভারতীয় ফুটবলের কতটা উন্নতি হবে সেটাই এখন প্রশ্ন।

Comments

comments

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন