শুক্র গ্রহে প্রাণের সন্ধান, বিশ্বকে চমকে দিল তিন বাঙালি বিজ্ঞানীর গবেষণা

5312
শুক্র গ্রহে প্রাণের সন্ধান, বিশ্বকে চমকে দিলেন তিন বাঙালি বিজ্ঞানী/The News বাংলা
শুক্র গ্রহে প্রাণের সন্ধান, বিশ্বকে চমকে দিলেন তিন বাঙালি বিজ্ঞানী/The News বাংলা

শুক্র গ্রহে প্রাণের সন্ধান; বিশ্বকে চমকে দিলেন তিন বাঙালি বিজ্ঞানীর গবেষণা। শুক্র গ্রহে প্রাণের সন্ধান নিয়ে তাঁদের গবেষণা ও প্রমাণ; অবাক করে দিয়েছে গবেষকদের। তিন বাঙালি বিজ্ঞানী; অরিজিৎ মান্না, সব্যসাচী পাল এবং মঙ্গল হাজরা; প্রমাণ করেছেন শুক্র গ্রহেও প্রাণ থাকতে পারে। এদের মধ্যে, অরিজিৎ মান্না; বর্তমানে মেদিনীপুর কলেজে; পদার্থবিদ্যায় পিএইচডি করছেন।

আরও পড়ুনঃ সহকর্মীর হ’ত্যাকারী ঘুরছে প্রকাশ্যে, মাথায় মামলা থাকলেও হাতে হাত’কড়া পরে অসহায় বাংলার পুলিশ

কিছু দিন আগেই ফসফিন গ্যাসের; খোঁজ মিলেছিল এই গ্রহে। দীর্ঘ রহস্যভেদ করে; একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়েছিলেন বিজ্ঞানীরা। শুক্র গ্রহে প্রাণের অস্তিত্ব থাকার সম্ভাবনার কথা; জানাচ্ছে সাম্প্রতিক গবেষণা। মহাবিশ্বে প্রাণের অস্তিত্ব খুঁজতে; বারবার মঙ্গলগ্রহে অভিযান করেছে মানুষ। তবে, আশার আলো দেখাল; সৌরজগতের দ্বিতীয় গ্রহ ভেনাস বা শুক্র। বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, শুক্র গ্রহে তারা অতি অম্লীয়; মেঘের সন্ধান পেয়েছেন। এই মেঘটিতে আছে ফসফিন নামে; একটি গ্যাস।

যা দেখে বিজ্ঞানীরা ধারণা করছেন শুক্রে অনুজীব আছে; এটি একটি ‘বায়ো-সিগনেচার’। যা জীবের অস্তিত্বের সম্ভাবনাকে; ত্বরান্বিত করতে পারে। আর এ বার গ্লাইসিনের উপস্থিতি টের পেলেন বিজ্ঞানীরা। গ্লাইসিন হল অ্যামাইনো অ্যাসিড অণু। যে কোনও প্রাণীর শরীরে; প্রোটিন তৈরির জন্য অ্যামাইনো অ্যাসিড দরকার। তবে কি খুব শিগগির প্রাণের সন্ধান মিলবে; পৃথিবীর পড়শি গ্রহে? জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের ক্রমশ আকর্ষণের কেন্দ্র বিন্দু; হয়ে উঠছে শুক্র গ্রহ।

আরও পড়ুনঃ বিমল গুরুংকে স্বাগত জানাল মমতার তৃণমূল, অমিতাভ মালিকের খু’নি কি শা’স্তি পাবে না

এই সংক্রান্ত গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছে; কর্নেল বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে। গবেষণাটির নাম; ‘ডিটেকশন অব সিমপ্লেস্ট অ্যামাইনো অ্যাসিড গ্লাইসিন ইন দ্য অ্যাটমোস্ফিয়ার অফ দ্য ভেনাস’। গবেষণা করেছেন; তিন বাঙালি বিজ্ঞানী, অরিজিৎ মান্না, সব্যসাচী পাল এবং মঙ্গল হাজরা।

বিজ্ঞানীরা বলছেন যে শুক্র গ্রহে; গ্লাইসিনের উপস্থিতি সেখানে প্রি-বায়োটিক মিলকিউল সম্পর্কে; জানতে সাহায্য করবে। পৃথিবীতে প্রাণ সৃষ্টি করার জন্য; ৫০০ রকমের অ্যামাইনো অ্যাসিডের কথা জানা যায়। কিন্তু প্রোটিন তৈরি করার জন্য; ২০ ধরনের অ্যামাইনো অ্যাসিডের কথাই জানা গিয়েছে; এখনও পর্যন্ত। গ্লাইসিন এর মধ্যে সরলতম। শুক্র গ্রহে কি প্রাণের অস্তিত্ব আছে? সেটাই খুঁজছেন বিজ্ঞানীরা।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন