জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা থাকা তৃণমূল নেতা, থানায় এসে ফুল দিল আইসি-কে

3300
জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা থাকা তৃণমূল নেতা, থানায় এসে ফুল দিল আইসি-কে
জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা থাকা তৃণমূল নেতা, থানায় এসে ফুল দিল আইসি-কে

জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা থাকা তৃণমূল নেতা; থানায় এসে ফুল দিল আইসি-কে। ভোট পরবর্তী হিংসার মামলায়, জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রয়েছে; পূর্ব বর্ধমানের রায়ান-১ অঞ্চল তৃণমূলের সভাপতি শেখ জামালের নামে। সেই শেখ জামালই কি না থানায় গিয়ে; আইসি-কে পুষ্পস্তবক দিয়ে সংবর্ধনা জানালেন বর্ধমান থানায়। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ঘটনার ছবি ছড়িয়ে পড়তেই; জোর বিতর্ক শুরু হয়েছে এই নিয়ে। ছবিতে দেখা যাচ্ছে, বর্ধমান থানার আইসি সুখময় চক্রবর্তীর হাতে; ফুলের তোড়া তুলে দিচ্ছেন শেখ জামাল।

ছবি এখন ফেসবুকে ভাইরাল; আর সেই ছবি ঘিরেই বিতর্কের সূত্রপাত। ছবিতে দেখা গিয়েছে, বর্ধমান থানার আইসি সুখময় চক্রবর্তীকে; পুষ্পস্তবক হাতে সংবর্ধনা জানাচ্ছেন তৃণমূলের সভাপতি শেখ জামাল। এক অভিযুক্তের হাত থেকে ফুল নিচ্ছেন; থানার আইসি। রাজ্যে শান্তি-শৃঙ্খলার দায়িত্ব যাদের হাতে রয়েছে; তারাই যদি শাসক দলের হয়ে কাজ করে তখন স্বচ্ছতা নিয়ে বড়সড় প্রশ্নচিহ্ন থেকে যায়। রক্ষক যখন অপরাধীকে প্রশ্রয় দেয়; তখন মানুষের নিরাপত্তার প্রশ্ন ওঠে।

শেখ জামাল বর্ধমান থানার; নাড়ি গ্রামের বাসিন্দা। তাঁর বিরুদ্ধে ভোট পরবর্তী হিংসার ঘটনায় জড়িত থাকার; অভিযোগ ওঠে কয়েকদিন আগেই। অভিযোগ দায়ের করেছিলেন; বেলবাগানের বাসিন্দা সঞ্জয় দাস। সঞ্জয়বাবুর অভিযোগ, ২৮ মে সকালে শেখ জামাল ও কয়েকজন মিলে; তাঁকে অপহরণ করেছিল বন্দুক দেখিয়ে। বাড়ির মহিলাদেরও তুলে নিয়ে যাওয়ার; হুমকি দিয়েছিল তারা। পরে খবর পেয়ে সঞ্জয়বাবুর দাদা, তাঁকে উদ্ধার করে; বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

আরও পড়ুনঃ রাজ্যপাল, হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি ও বিরোধী দলনেতার গাড়ি থেকে নীল বাতি ‘খুলে নিল’ নবান্ন

ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে; তৃণমূল নেতা শেখ জামালের বিরুদ্ধে এফআইআর হয়। তফসিলি জাতি ও উপজাতি নির্যাতন প্রতিরোধ আইন; এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির বিধিন্ন ধারায় মামলা রুজু হয়। এরপর বিরোধীদের তরফে শেখ জামালের বিরুদ্ধে; জেলা পুলিশ সুপারের কাছে স্মারকলিপি জমা পড়েছিল। জামালের গ্রেফতারির দাবি তোলা হয়েছে; তবে পুলিশ এখনও কোনও পদক্ষেপ নেয়নি। সেটা যে নেবেও না; সেটাও প্রমাণ করে দিলেন থানার আইসি; অভিযোগ মানুষের।

আদালতের নির্দেশে মামলা রুজু করা হলেও; অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে পরবর্তী পদক্ষেপ নিচ্ছে না পুলিশ। পদক্ষেপ নেওয়া তো দূরের কথা; সেই অভিযুক্তের হাত থেকেই; ফুলের তোড়া নিলেন থানার আইসি; যে ছবি ভাইরাল হল সোশ্যাল মিডিয়ায়। এই বিষয়ে অবশ্য সংবাদমাধ্যমে আইসি সুখময় চক্রবর্তীর সাফাই; তিনি সদ্য থানায় যোগ দিয়েছেন, তাই সবাইকে এখনও চেনেন না।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন