বিজেপিতে দীনেশ, জটু, সোনালী, আর কোন কোন তৃণমূল নেতা গেরুয়া শিবিরে

7605
বিজেপিতে দীনেশ, জটু, সোনালী, আর কোন কোন তৃণমূল নেতা গেরুয়া শিবিরে
বিজেপিতে দীনেশ, জটু, সোনালী, আর কোন কোন তৃণমূল নেতা গেরুয়া শিবিরে

বিজেপিতে দীনেশ, জটু, সোনালী; আর কোন কোন তৃণমূল নেতা গেরুয়া শিবিরে। মোদীর ব্রিগেডে, আরও উইকেট পড়ছে; মমতার তৃণমূলে। আগেই রাজ্যসভা থেকে; ইস্তফা দিয়েছিলেন। এবার তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হবার পরেই; শনিবার সকালেই বিজেপিতে যোগ দিলেন দীনেশ ত্রিবেদী। বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডার উপস্থিতিতে, সদর দফতরে গিয়ে; এদিন গেরুয়া শিবিরে যোগদান করেন তিনি। এদিকে, তৃণমূলের টিকিট না পেয়ে; দল ছেড়ে বিজেপি যোগ দিলেন জটু লাহিড়ী ও সোনালী গুহ। রবিবার মোদীর ব্রিগেডে; আরও বেশ কয়েকজন তৃণমূল নেতা; যোগ দিচ্ছেন বিজেপিতে।

বিজেপিতে যোগ দিলেন; তৃণমূল নেতা জটু লাহিড়ি। শিবপুরের পাঁচবারের বিধায়ক; জটুবাবুকে এবার প্রার্থী করেনি তৃণমূল। রাগে-অভিমানে শুক্রবার বিকাল থেকেই; বি’স্ফোরক ছিলেন তিনি। শনিবার তিনি সাফ জানালেন; “বামেদের দুর্গে আমি একমাত্র; শিবপুরের পাঁচবারের বিধায়ক। অথচ বয়সের দোহাই দিয়ে; দল আমাকে টিকিট দিল না। তাই আমি বিজেপিতে যোগ দিলাম। আর সেটা কোনও শর্ত ছাড়াই”।

১৯৯৮ সাল থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের; ছায়াসঙ্গী ছিলেন স্মিতা বক্সীও। টিকিট মেলেনি এবার। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জোড়াসাঁকো কেন্দ্রে; বেছে নিয়েছেন বিবেক গুপ্তকে। যুক্তি একটাই, হিন্দি বলয়ে; বিজেপির ভোট আটকানো। ২০১৬ সালে এই কেন্দ্র থেকেই; রাহুল সিনহাকে হারিয়েছিলেন স্মিতা। তাহলে কেন, মমতা ভরসা রাখতে পারলেন না; স্মিতার উপর? জল্পনা, স্মিতা বক্সীও যোগাযোগ রাখছেন; মুকুল রায়ের সঙ্গে। তাকেও নাকি দেখা যেতে পারে; পদ্ম শিবিরে।

আরও পড়ুনঃ মমতার ‘বহিরাগত’ আ’ক্রমণ, ‘বুমেরাং’ হয়ে ফিরে এল তৃণমূলের দিকেই

কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা গিয়েছিল; সোনালি গুহকেও। টিকিট না পেয়ে হতাশ সোনালী; শনিবার মুকুল রায়ের হাত ধরে; বিজেপিতে যোগ দিলেন। সিঙ্গুরের বিধায়ক তথা রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী; রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যকে টিকিট দিল না তৃণমূল। তাঁর পরিবর্তে সিঙ্গুর থেকে প্রার্থী করা হয়েছে; রবীন্দ্রনাথ বিরোধী গোষ্ঠীর নেতা বেচারাম মান্নাকে।

টিকিট পাননি বসিরহাটের বিধায়ক; ফুটবলার দীপেন্দু বিশ্বাসও। তিনিও দলের ওপর ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। টিকিট না পেয়ে শুক্রবারই মুকুল রায়ের বাড়ি যান; হাওড়ার জগতবল্লভপুরের প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়ক আব্দুল কাসেম মোল্লা; পুরশুড়ার বিধায়ক ডা. নুরুজ্জামানও; ও হাওড়ার সাঁকড়াইল-এর বিধায়ক শীতল সর্দার। এদের সবাই মোদীর ব্রিগেডে; বিজেপি যোগ দেবেন বলেই জল্পনা।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন