প্রার্থী তালিকায় জায়গা না পেয়েই, সোজা মুকুল রায়ের বাড়িতে তৃণমূল নেতারা

2449
প্রার্থী তালিকায় জায়গা না পেয়েই, সোজা মুকুল রায়ের বাড়িতে তৃণমূল নেতারা
প্রার্থী তালিকায় জায়গা না পেয়েই, সোজা মুকুল রায়ের বাড়িতে তৃণমূল নেতারা

প্রার্থী তালিকায় জায়গা না পেয়েই; সোজা মুকুল রায়ের বাড়িতে একের পর এক তৃণমূল নেতারা। তৃণমূল ভবন থেকে, বিকালে ঘোষণা হয়েছে; তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা। নিজেই ঘোষণা করেছেন; তৃণমূল নেত্রী। তারপরেই রাজ্য জুরে শুরু হয়েছে; নেতা কর্মী ও সমর্থকদের বিক্ষোভ। কোথাও রাস্তা অবরোধ; কোথাও নিজের পার্টি অফিসেই আগুন। কোথাও আবার নেত্রীর বিরুদ্ধে অভিযোগ। কোন কোন বিদায়ী বিধায়ক; আবার কেঁদেই ফেললেন। তবে এর মধ্যে, দুজন নেতা; তৃণমূল ক্যান্ডিডেট ঘোষণা হতেই; সোজা চলে এলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি মুকুল রায়ের বাড়ি। তৃণমূল ছাড়ছেন তাঁরা; যোগ দিচ্ছেন বিজেপিতে। টিকিট না পাওয়া; এই দলবদলু-দের সংখ্যা আরও বাড়বে।

তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণার পরই, এদিন সন্ধ্যায় মুকুল রায়ের বাড়ি আসেন; হাওড়ার সাঁকড়াইল-এর বিদায়ী তৃণমূল বিধায়ক শীতল সর্দার। শীঘ্রই তিনি বিজেপি-তে যোগ দেবেন; বলেই জানা গিয়েছে। ১৯৯৬ সাল থেকে পর পর ৫ বার; এই কেন্দ্র থেকে তিনি বিধায়ক হয়েছেন। কিন্তু এবার মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়; তাঁকে আর টিকিট দেন নি। ক্ষুব্ধ শীতল সর্দার; তৃণমূলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণা হতেই; সোজা চলে আসেন মুকুল রায়ের কাছে। সব ঠিক থাকলে, মোদীর ব্রিগেড জনসভাতেই; বিজেপি যোগ দেবেন তিনি।

আরও পড়ুনঃ এতদিন ‘খেলা হবে’ বলে চিৎকার করা ছেলেটাই, তৃণমূলের ‘টিম লিস্টে’ নেই

এদিন সন্ধ্যায় মুকুল রায়ের বাড়ি আসেন; আরেক তৃণমূল নেতা তথা ব্যবসায়ী দীনেশ বাজাজ। ২০০৬ সালে জোড়াসাঁকো কেন্দ্র থেকে; তিনি তৃণমূলের টিকিটে বিধায়ক হয়েছিলেন। ২০২০ সালে তৃণমূলের সমর্থনে; পশ্চিমবঙ্গ থেকে রাজ্যসভার নির্বাচনে; নির্দল প্রার্থী হতে চেয়েছিলেন। কিন্ত হলফনাামায় অস্পষ্টতা থাকার কারণে; তাঁর মনোনয়ন বাতিল হয়ে যায়। এদিন তিনি মুকুল রায়ের বাড়ি থেকে বেরিয়ে জানিয়েছেন; টিকিট না পেতেই তিনি তৃণমূল ছাড়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তিনিও বিজেপি যোগ দিচ্ছেন।

আরও পড়ুনঃ তৃণমূলের পিছিয়ে থাকা আসনেই, ‘গোঁজা’ হয়েছে ‘টলিউড সেলেব্রিটি’-দের

আরাবুল ইসলাম, মইনউদ্দিন শামস, সোনালী গুহ, রফিকুল রহমান, সিঙ্গুরের মাস্টারমশাই; তৃণমূলের টিকিট না পেয়ে ক্ষুব্ধ অনেকেই। তৃণমূলের টিকিট না পেয়ে; যেভাবে বিক্ষুব্ধ নেতাদের সংখ্যা বাড়ছে; তাতে আগামিদিনে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপি যাওয়া নেতাদের সংখ্যা যে আরও বাড়বে; তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন