বাংলায় গুটখা ও তামাক নিয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত নিল মমতার সরকার

403
বাংলায় গুটখা ও তামাক নিয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত নিল মমতার সরকার/The News বাংলা
বাংলায় গুটখা ও তামাক নিয়ে বড়সড় সিদ্ধান্ত নিল মমতার সরকার/The News বাংলা

বাংলায় গুটখা ও তামাক নিয়ে; বড়সড় সিদ্ধান্ত নিল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার। জাতীয় ক্যানসার সচেতনতা দিবসের আগেই; বড়সড় সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য। নিষিদ্ধ করা হল গুটখা ও তামাক। ৭ নভেম্বর থেকে বাংলায় গুটখা; পানমশলা; তামাক উৎপাদন বিক্রি; ও মজুত বন্ধ করার নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে রাজ্যের তরফে। এই নির্দেশ অমান্য করলে; তা অপরাধ বলে গন্য হবে বলে জানানো হয়েছে। যার জন্য শাস্তিমূলক ব্যবস্থাও গ্রহণ করা হবে সে কথাও রয়েছে রাজ্যের কড়া নির্দেশিকায়।

৭ নভেম্বর জাতীয় ক্যানসার সচেতনতা দিবস। তাই গত তিন চার দিন ধরেই; এই বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে; এই তামাক জাত বস্তুগুলি খাদ্য সামগ্রীর তালিকাভুক্ত। তাই এগুলি ১ বছরের বেশি নিষিদ্ধ করা যায়না। তাই প্রতি বছর নতুন করে নিষেধাজ্ঞা জারি করতে হয়। এই বছরও তার ব্যতিক্রম হয়নি।

আরও পড়ুনঃ ভয়ঙ্কর বিপদ সামনে, ৩০ বছরের মধ্যে কলকাতা ও মুম্বাই চলে যাবে জলের তলায়

২০১১ সালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে আগেও; পানমশলা ও গুটখা নিষিদ্ধ করার কথা জানানো হলেও তাকে কার্যত বুড়ো আঙুল দেখিয়ে অবাধে তামাক তৈরির মশলা উৎপাদন হয়েছে। সেখানে দেখা গিয়েছে; মশলা ও জর্দা আলাদাভাবে উৎপাদন হয়েছে। নেশাড়ুরাও সেই সুযোগ কাজে লাগিয়ে লাগামছাড়া নেশা করেছেন।উল্লেখ্য; চলতি বছরেই ৩ অক্টোবর রাজস্থানে গুটখা ও পানমশলা নিষিদ্ধ করা হয়।

তার আগে মহারাষ্ট্র ও বিহারে এই একই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়। খাদ্য সুরক্ষা আইনের আওতাও এই বড়সড় সিদ্ধান্ত নেয় রাজস্থান সরকার। গুটখা ও পান মশলার মতো নেশার বস্তু সেবনে; প্রতি বছর রাজস্থানে হাজার হাজার মানুষের মৃত্যু ঠেকাতে রাজস্থান সরকারের পর; বাংলায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারকে এমন উদ্যোগ নিতে দেখা গেল।

আরও পড়ুনঃ চলন্ত ট্রেনে ভয়াবহ আগুনে জীবন্ত দগ্ধ ৭৫ জনের মৃত্যু, দেখুন ভয়ঙ্কর ছবি

রাজ্যের এই পদক্ষেপকে সাধুবাদ জানিয়েছেন রাজ্যের স্বাস্থ্য অধিকর্তা ডা. অজয় চক্রবর্তী। তবে নিষেধাজ্ঞা জারির পরেও গুটখার ব্যবহার কমবে বইকি বাড়বে সেই দিকে তাকিয়ে আপামর রাজ্যের মানুষ। পাশাপাশি গুটখার ব্যবহার নিষিদ্ধ হলে রাজ্যে ক্যনসারের বাড়বাড়ন্ত অনেকটাই কমানো যাবে বলেই একমত রাজ্যের চিকিৎসক মহল।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন