রাজ্যবাসীকে বিরাট উপহার মমতার, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে বিনামূল্যে চিকিৎসার সুযোগ এবার ভেলোর ও এইমসে

2508
রাজ্যবাসীকে বিরাট উপহার মমতার, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে বিনামূল্যে চিকিৎসার সুযোগ এবার ভেলোরে
রাজ্যবাসীকে বিরাট উপহার মমতার, স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে বিনামূল্যে চিকিৎসার সুযোগ এবার ভেলোরে

রাজ্যবাসীকে বিরাট উপহার মুখ্যমন্ত্রী মমতার; স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পে বিনামূল্যে চিকিৎসার সুযোগ এবার ভেলোরে ও এইমসে। শারীরিক অসুস্থতা নিয়ে, রোগ সারাতে; বহু বাঙালিই কলকাতার থেকে বেশি ভরসা করেন ভেলোরকে। প্রতি মাসে ভেলোরগামী ট্রেনে চড়েন; হাজার হাজার বাঙালি। লকডাউনের কারণে এখন বন্ধ থাকলেও; পশ্চিমবঙ্গের বহু রোগী; তামিলনাড়ুর ভেলোরে ক্রিশ্চিয়ান মেডিক্যাল কলেজ বা সিএমসিতে চিকিৎসার জন্য যান। যাঁরা সিএমসিতে চিকিৎসার জন্য যান; তাঁদের জন্য এবার সুখবর আনল রাজ্য সরকার। এবার থেকে রাজ্য সরকারের বিনামূল্যের স্বাস্থ্যবিমা প্রকল্প; ‘স্বাস্থ্যসাথী’র আওতায় চলে এল ভেলোরের সিএমসি। একইভাবে দিল্লির এইমসও এবার থেকে; স্বাস্থ্যসাথীর আওতায় চলে এল।

আরও পড়ুন; বেলেঘাটায় ‘তৃণমূল বাহুবলী’ রাজু নস্করের ক্লাবে বিস্ফোরণ, উড়ে গেল ছাদ, ভাঙল দেওয়াল

লকডাউন সামান্য বাধ সাধলেও; বাঙালির ভেলোর যাত্রা মোটের উপর অব্যাহতই। এবার সেই বিরাট সংখ্যক মানুষের পাশেই; নিঃশব্দে দাঁড়াল রাজ্য সরকার। রাজ্যের স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের আওতায় এল; ভেলোর সিএমসি ও দিল্লির এইমস। অর্থাৎ স্বাস্থ্যসাথীর আওতায় থাকা যে কেউ’ এই প্রকল্পের সুবিধে পাবেন ভেলোরে ও দিল্লিতে। গোটা ঘটনাটাই ঘটল নিঃশব্দে। “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পুজো উপহার”; বলছেন অনেকেই।

আরও পড়ুন; সাতদিনও হয় নি, মমতার পথশ্রী প্রকল্পে কাটমানি নিয়ে গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব শুরু তৃণমূলের

সূত্রের খবর গত ৬ অক্টোবর থেকে; এই প্রকল্পে নাম নথিভুক্ত করার কাজ চলছে। তবে এখন ট্রেন-যোগাযোগ বন্ধ থাকায়; ভেলোর যাওয়ার পরিস্থিতি নেই বললেই চলে। সেক্ষেত্রে উপভোক্তারা যাবেন; পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক হলেই। তবে নাম নথিভুক্তকরণের কাজ চলবে এখন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন; “স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্পের আওতায়; আমরা আরও দুটি হাসপাতালকে যোগ করছি। সেখানেও একইরকম সুযোগ সুবিধা পাবেন; স্বাস্থ্যসাথী কার্ড হোল্ডাররা। একটি হল ভেলোরের সিএমসি এবং অন্যটি হল দিল্লির এইমস”। তারই নাম নথিভুক্তকরণের কাজ শুরু হল এবার।

রাজ্যেকে অবশ্য এই প্রকল্প নিয়ে; বিঁধতে ছাড়ছে না বিজেপি। বিজেপি মনে করে, এর চেয়ে অনেক ভালো; আয়ুস্মান ভারত প্রকল্প। তৃণমূল সরকার অবশ্য প্রথম থেকেই; এই প্রকল্পে উৎসাহ দেখায়নি। কারণ আগে থেকেই কার্যকর; স্বাস্থ্যসাথী প্রকল্প। রাজ্য শুধু ভেলোর নয়; গাঁটছড়া বেঁধেছে দিল্লি এইমসের সঙ্গেও। সেখানেও স্বাস্থ্যসাথী আওতাভুক্তরা; নিখরচায় চিকিৎসা করাতে পারবেন অদূর ভবিষ্য়তে।

Please follow and like us:
error

আপনাদের মতামত জানাতে কমেন্ট করুন